TOP 3: ভারতীয় ক্রিকেটারদের দ্বারা অর্জন করা ৩টি মাইলস্টোন, যার সাক্ষী থেকেছেন "ক্যাপ্টেন কুল" মহেন্দ্র সিং ধোনি !! 1
Prev1 of 3
Use your ← → (arrow) keys to browse

ভারতীয় ক্রিকেটে মহেন্দ্র সিং ধোনির অবদানের কথা অস্বীকার করতে পারবে এমন ক্রিকেটবোদ্ধা গোটা বিশ্বের প্রতিটি কোণা তল্লাশি করলেও সম্ভবত পাওয়া যাবে না। ২০০৪ সালে অভিষেকের পর থেকেই ‘টিম ইন্ডিয়া’র ক্রিকেট খেলার রীতিনীতিতে যেন এক নয়া ধারার প্রবর্তন করেন ঝাড়খণ্ডের ‘মাহি।’ উইকেটরক্ষক-ব্যাটার হিসেবে শুরু করে ভারতের শ্রেষ্ঠতম অধিনায়ক হয়ে ওঠার পথে একের পর এক রেকর্ড গড়েছেন তিনি নিজে। সাথে নতুন নতুন রেকর্ড গড়েছে তাঁর নেতৃত্বাধীন ‘টিম ইন্ডিয়া’ও। একমাত্র অধিনায়ক হিসেবে তিনটি আইসিসি ট্রফি জেতার নজির রয়েছে তাঁর। রয়েছে একদিনের ক্রিকেটে ১০০০০ এর বেশী রান। ধোনির নেতৃত্বেই ভারত প্রথমবার টেস্টে পয়লা নম্বর স্থান অর্জন করেছিলো র‍্যাঙ্কিং-এ। এক কথায় ধোনির (MS Dhoni) আগমনে ভারতীয় ক্রিকেটের পালে যেন লেগেছিলো সৌভাগ্যের এক দমকা হাওয়া। পরিসংখ্যান ঘেঁটে দেখা যায় ভারতীয় দলে তাঁর সতীর্থদের কাছেও একইরকম সৌভাগ্য বয়ে এনেছিলেন ‘মাহি।’ ক্রিকেট মাঠে একের পর এক দুরন্ত রেকর্ড গড়ার সময় তাঁরা পাশে পেয়েছেন ধোনি’কে। কখনও অপর প্রান্তে ব্যাটিং পার্টনার হিসেবে আবার কখনো উইকেটের পিছনে অধিনায়ক হিসেবে ‘মাহি’ তাঁদের সাহায্য করেছেন রেকর্ড বইয়ের পাতায় নিজেদের নাম লেখাতে। তেমনই ৩টি ব্যাটিং রেকর্ডের হদিশ রইলো এই প্রতিবেদনে।

শচীন তেন্ডুলকরের প্রথম ODI দ্বিশতরান-

Sachin Tendulkar | image: twitter
MS Dhoni was at the other end of the pitch when Sachin Tendulkar scored his double century in ODI cricket

১৯৯৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বেলিন্ডা ক্লার্ক (Belinda Clarke) একদিনের ক্রিকেটে দ্বিশতরান করলেও পুরুষদের ক্রিকেটে ODI দ্বিশতরান দেখতে অপেক্ষা করতে হয়েছিলো আরও ১৩টা বছর। দীর্ঘদিন সঈদ আনোয়ারের ১৯৪ রানের ইনিংসটিই পুরুষদের একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ছিলো। অবশেষে গ্বালিয়রের মাঠে দুশোর গণ্ডী স্পর্শ করেন শচীন তেন্ডুলকর (Sachin Tendulkar)। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সেই ম্যাচে বীরেন্দ্র শেহবাগের সঙ্গে ভারতের ইনিংস ওপেন করেন ‘মাস্টার ব্লাস্টার।’ ডেল স্টেইন, জ্যাক ক্যালিস, কার্ল ল্যাঙ্গভেল্ট সমৃদ্ধ প্রোটিয়া বোলিং অ্যাটাককে কখনোই মাথা তুলে দাঁড়াতে দেন নি শচীন। ভারতের স্কোর যখন ঠিক ৩০০ তখন আউট হন ইউসুফ পাঠান (Yusuf Pathan)। ব্যাটিং অর্ডারে পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নামেন মহেন্দ্র সিং ধোনি (MS Dhoni)। শচীনের রেকর্ড গড়ার মঞ্চে ধোনির ব্যাটেও রানের বন্যা দেখা যায়। ধুন্ধুমার ব্যাটিং করে ৩৫ বলে ৬৭ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। শেষের ওভারগুলোয় ধোনির কাছে স্ট্রাইক বেশী থাকায় একসময় মনে হয়েছিলো দ্বিশতকের সামান্য আগেই থেমে যাবে শচীনের (Sachin Tendulkar) ইনিংস। কিন্তু ঠিক সময় নন-স্ট্রাইকার প্রান্তে গিয়ে ক্রিকেটের ঈশ্বরকে ODI ক্রিকেটের প্রথম ডবল সেঞ্চুরিয়ন হওয়ার সুযোগ ঠিকই করে দেন ‘মাহি।’ ইনিংসের শেষে ঠিক ২০০ রানেই অপরাজিত থাকেন শচীন।

Prev1 of 3
Use your ← → (arrow) keys to browse

Leave a comment

Your email address will not be published.