IPL 2022

আইপিএল ২০২২-এর (IPL 2022) ৪৬ নম্বর ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয় চেন্নাই সুপার কিংস ই সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের মধ্যে । এই ম্যাচে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই চেন্নাই সুপার কিংসকে জয়ের রাস্তায় এনে দিলেন এমএস ধোনি। রবিবার সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে আইপিএল ম্যাচে তাদের তৃতীয় জয় পেল চারবারের চ্যাম্পিয়নরা। ঋতুরাজ গায়কওয়াড় এবং ডেভন কনওয়ের ব্যাটিং এবং মুকেশ চৌধুরীর দুর্দান্ত বোলিং চেন্নাইয়ের জয়ে সিংহভাগ অবদান রাখে। এই মরশুমের শুরুতে চেন্নাইয়ের ওপেনিং জুটি সেভাবে বিশেষ কিছুই করতে পারেনি। কিন্তু আজকের ম্যাচে, ঋতুরাজ গায়কোয়াড এবং ডেভন কনওয়ের মধ্যে প্রথম উইকেটে ১৮২ রানের পার্টনারশিপ হয়,যার সুবাদে চেন্নাই সুপার কিংস রবিবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে দুই উইকেটে 202 রান তুলে বড় রানের লক্ষ্য দেয়।

গায়কোয়াড ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেন

SRH vs CSK: প্লেয়ার অফ দ্যা ম্যাচ ঋতুরাজ গায়কোয়াড় জানালেন তার বিস্ফোরক ইনিংসের রহস্য 1

এ দিন ঋতুরাজ গায়কোয়াদ ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হলেও, ৫৭ বলে ৯৯ রানের আক্রমণাত্মক ইনিংস খেলেন। তাঁর এই ইনিংস ছ’টি চার ও ছ’টি ছক্কা দিয়ে সাজানো ছিল। অন্যদিকে কনওয়ে ৮৫ বলে অপরাজিত ৮৫ রানের ইনিংস খেলেন। তাঁর ইনিংস  আটটি চার ও চারটি ছক্কা দিয়ে সাজানো। এ দিনের লড়াইয়ে নিজের মারকুটে ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করেই সানরাইজার্স বোলারদের কাউকেই রেহাই দেননি গায়কওয়াড।

ঋতু ঝড়ে উড়লেন ভুবি- উমরান

SRH vs CSK: প্লেয়ার অফ দ্যা ম্যাচ ঋতুরাজ গায়কোয়াড় জানালেন তার বিস্ফোরক ইনিংসের রহস্য 2

রবিবার সানরাইজার্স হায়দরাবাদের জোরে বোলার ভুবনেশ্বর কুমার চার ওভারে ২২ রান দিলেও কোনো উইকেট পাননি। একই সঙ্গে গত ম্যাচে পাঁচ উইকেট নেওয়া জোরে বোলার উমরান মালিকও চার ওভারে ৪৮ রান দিয়েও কোন সাফল্য পাননি। টি নটরাজন দুটি উইকেট নিলেও ৪২ রান দিয়েছেন। উমরান এই টুর্নামেন্টের দ্রুততম বলটি করেন এই ম্যাচেই। কিন্তু গায়কোয়াড ৩৩ বলে নিজের অর্ধশতরান পূর্ণ করার পথে উমরানকে দুটি ছক্কা মারেন। কনওয়ে তার সুইপ শট এই ম্যাচে ভালোভাবে ব্যবহার করেন। তিনি ১৫তম ওভারে জ্যানসেনকে ছয় মেরে ৩৯ বলে তার হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন।

কী বললেন ম্যাচ সেরা ঋতুরাজ?

SRH vs CSK: প্লেয়ার অফ দ্যা ম্যাচ ঋতুরাজ গায়কোয়াড় জানালেন তার বিস্ফোরক ইনিংসের রহস্য 3

এ দিন খেলা শেষ হওয়ার পর ম্যাচের সেরা বাছা হয় ৯৯ রান করা ঋতুরাজ গায়কোয়াডকে। ম্যাচের পর তিনি বলেন,

“এমন ইনিংস খেলে দারুণ অনুভূত হচ্ছে। যখন আপনার দল যেতে আর আপনি ভাল ইনিংস খেলেন তা অসাধারণ অনুভব। প্রথম কিছু ম্যাচ আমার জন্য ভাল যায়নি। তবে আমি প্রতিটা ম্যাচ শূন্য থেকে শুরু করার উপর বিশ্বাস রাখি। এতে আমি সাহায্যে পাই। আমার গত পছন্দ। যখন বল ভাল গতিতে আপনার দিকে আসে তো আমার নিজের শট মারতে যথেষ্ট সহজ অনুভূত হয়। আমি চেষ্টা করছিলাম যে পিচে বেশি সময় কাটাতে। আমি কনওয়েকেও এটাই বলছিলাম। এই পিচকে আমি ভালভাবে জানি। এই কারণে আমি ওকে বলছিলাম যে টকে খেলো রান আপনা আপনি আসবে।”

Leave a comment

Your email address will not be published.