তিনি কোনওদিনই কাউকে তোয়াক্কা করেননি। সে ২২ গজে হোক কিংবা ব্যাক্তিগত জীবনে। এমনকি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটেও ছিলেন তাঁর ব্যাটের মতো ধারালো। সর্বক্ষেত্রে তিনি বেশ ভয়–ডরহীন। তিনি বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম মারকুটে ব্যাটসম্যান। এই মুহূর্তে তিনি সংবাদের শিরোনামে বিশেষ একটি কারণে। সেই কারণটি হল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পাশাপাশি অধিনায়ক বিরাট কোহলিও বীরুকে ভারতীয় দলের পরবর্তী কোচ করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন। সেই মোতাবেক নজফগড়ের নবাবের কাছে ক’য়েকদিন আগে বায়োডাটা চেয়ে পাঠিয়েছিল বোর্ডের উপদেষ্টা কমিটি। সেখানেও তিনি নবাবী মেজাজে সবাইকে তাক লাগিয়ে মাত্র দুই লাইনের একটা বায়োডাটা পাঠিয়ে দিলেন বিসিসিআইকে। এমন কাণ্ডে বিস্মিত হয়ে এদিন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফ থেকে সেহওয়াগকে আবার পূর্ণ বায়োডাটা পাঠানোর কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এখানে দেখুনঃ সেহওয়াগকে দলের কোচ করার দরবারের পিছনেই কি এই ভারতীয় ক্রিকেটারের হাত !

ভারতের পরবর্তী কোচ হওয়ার জন্য বীরেন্দ্র সেহওয়াগ বোর্ডকে নিজের যে বায়োডাটা পাঠিয়েছেন, সেটা নাকি মাত্র দু’লাইনেই শেষ হয়ে গিয়েছে। আর এমন কাজটি বীরু নাকি নিজেই ঘটিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। বিশেষ সূত্রের মাধ্যমে জানা গিয়েছে, ওই বায়োডাটাতে সেহওয়াগ লিখেছেন, “আমি আইপিএলে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের কোচ এবং মেন্টর হিসেবে কাজ করেছি। এবং অতীতে ভারতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলার সুবাদে টিমে সবার সঙ্গে খেলেছি।”

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কোচ ও মেন্টর হিসেবে সেহওয়াগ

বীরুর পাঠানো এমন বায়োডাটা দেখে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় বোর্ড কর্তাদের। বোর্ডের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, “সেহওয়াগ মাত্র দুই লাইনের একটা আবেদনপত্র পাঠিয়েছেন। এর সঙ্গে অতিরিক্ত কিছুই যোগ করা ছিল না। ওকে আমরা আবেদনপত্রের পাশাপাশি দীর্ঘ একটা বায়োডাটা পাঠাতে বলেছি। সর্বোপরি তিনি প্রথমবারের মতো সাক্ষাতে উপস্থিত হবেন।”

Image result for sehwag smile

চলতি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর ভারতের বর্তমান কোচ অনিল কুম্বলের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। বোর্ডের অন্দরমহল অবশ্য কুম্বলেকে আর কোচ রূপে দ্বিতীয় দফায় চাইছে না। সেটা মাথায় রেখে ক’দিন আগে বোর্ডের তরফ থেকে নতুন কোচ নিয়োগের ব্যাপারে একটা বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়। তারই ভিত্তিতে টম মুডি, রিচার্ড পাইবাস, লালচাঁদ রাজপুত, ডোড্ডা গণেশ, ক্রেইগ ম্যাকডারমট – কোহলিদের নতুন কোচ হওয়ার জন্য বোর্ডের কাছে আবেদনপত্র পাঠান। নতুন প্রক্রিয়ায় বর্তমান কোচকে নতুন করে আবেদন জানাতে হবে না। সেক্ষেত্রে কুম্বলেকে ওই তালিকায় সরাসরি যুক্ত করা হবে না। এখনই ভারতের কোচ হওয়ার ইচ্ছে সেহওয়াগের না থাকলেও, শুধুমাত্র বিরাট কোহলির ডাকে সাড়া দিয়ে শেষদিকে ভারতের পরবর্তী কোচ হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ দেখান বীরেন্দ্র সেহওয়াগও।

আরোও দেখুনঃ ম্যাচের পর সৌরভ গাঙ্গুলিকে নিয়ে মজা ওরালেন সহবাগ; যা বললেন দেখলে আপনিও অবাক হয়ে যাবেন।