ধ্বংসের মুখে ঈশান কিষণের কেরিয়ার, BCCI করেছে একঘরে !! 1

গত বছরের ডিসেম্বর মাস থেকেই ক্রিকেটমহলের চর্চার কেন্দ্রে রয়েছেন ঈশান কিষণ (Ishan Kishan)। ২০২৩-এ তিন ফর্ম্যাটেই টিম ইন্ডিয়াতে (Team India) নিয়মিত হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। প্রতিটি ম্যাচে প্রথম একাদশে না থাকলেও স্কোয়াডে তাঁর জায়গা একপ্রকার নিশ্চিতই ছিলো। কিন্তু জটিলতা সৃষ্টি হয় দক্ষিণ আফ্রিকা (SA) সফর চলাকালীন। মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতির কথা বলে মাঝপথে দেশে ফিরে আসতে চান তিনি। বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে বোর্ড’ও তাঁর ছুটির আবেদন মঞ্জুর করে। কিন্তু দেশে ফিরেই তিনি গিয়েছিলেন দুবাইতে একটি বর্ষবরণের পার্টিতে যোগ দিতে। এছাড়া অমিতাভ বচ্চন সঞ্চালিত একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানেও বিসিসিআই-এর অনুমতি ছাড়াই যোগ দেন ঈশান (Ishan Kishan)।

ঝাড়খণ্ডের ক্রিকেটারের কর্মকাণ্ড ভালো চোখে দেখেন নি বিসিসিআই কর্মকর্তারা। টানাপোড়েন সপ্তমে পৌঁছায় ঈশান (Ishan Kishan) ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতে রাজী না হওয়ায়। সচিব জয় শাহ ব্যক্তিগত ভাবে প্রত্যেক ক্রিকেটারকে বার্তা দিয়েছিলেন ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত অংশ নেওয়ার জন্য। কিন্তু তা সম্পূর্ণরূপে উপেক্ষা করে ঈশান কিষণ শুরু করে দেন আইপিএলের প্রস্তুতি। বরোদা উড়ে যান হার্দিক (Hardik Pandya) ও ক্রুণাল পাণ্ডিয়ার সাথে অনুশীলনের জন্য। বেহিসেবি কার্যকলাপ বরদাস্ত করে নি বোর্ড। এরপর ভারত বনাম ইংল্যান্ড সিরিজের দল থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয় তাঁকে। পরে ছেঁটে ফেলা হয় কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেই। এরপর বেশ কয়েক মাস কেটে গেলেও ঈশান বনাম বিসিসিআই দ্বন্দ্ব যে মেটে নি তার প্রমাণ মিললো আজ জিম্বাবুয়ে সফরের দল ঘোষণা হতেই।

Read More: বৃষ্টির কারণে ম্যাচ ভেস্তে গেলেও লক্ষ্মীলাভ ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার, সেমিফাইনালের রেস থেকে ছিটকে যাবে আফগানিস্তান !!

জিম্বাবুয়ে সিরিজেও মিললো না সুযোগ-

Ishan Kishan | Image: Getty Images
Ishan Kishan | Image: Getty Images

টি-২০ বিশ্বকাপের (T20 World Cup) পর জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে পাঁচ টি-২০ ম্যাচের সিরিজ খেলতে চলেছে ভারতীয় দল। কোহলি, রোহিতের মত সিনিয়ররা যে খেলবেন না তা অনুমান করতেই পেরেছিলেন ক্রিকেটজনতা। প্রত্যাশামতই তারুণ্যে ভরপুর দল গঠন করেছে অজিত আগরকারের নেতৃত্বাধীন নির্বাচকমণ্ডলী। প্রথমবারের জন্য টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়কত্ব পেয়েছেন শুভমান গিল। এছাড়া সুযোগ পেয়েছেন রিঙ্কু সিং (Rinku Singh), সঞ্জু স্যামসন’ও (Sanju Samson)। শুভমান ও রিঙ্কু কুড়ি-বিশের বিশ্বকাপে ছিলেন ট্র্যাভেলিং রিজার্ভ হিসেবে। সঞ্জু মূল স্কোয়াডে থাকলেও এখনও একটি ম্যাচেও খেলার সুযোগ পান নি। এছাড়াও জায়গা পেয়েছেন আবেশ খান, খলিল আহমেদ’রা। দ্বিতীয় উইকেটরক্ষক হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিমানে উঠতে চলেছেন ধ্রুব জুড়েল।

একঝাঁক তরুণ তুর্কির প্রত্যাবর্তনের মাঝেও সকলের নজর কেড়ে নিয়েছে ঈশান কিষণের (Ishan Kishan) অনুপস্থিতি। রাহুল দ্রাবিড় সরে যাচ্ছেন আর কিছুদিনের মধ্যেই। সবকিছু ঠিক থাকলে কোচের হটসিটে বসবেন গৌতম গম্ভীর। ‘গুরু’ গম্ভীর জমানার সূচনালগ্নেও জাতীয় দলের টিকিট হাতে আসছে না ঈশানের। আজকের ঘটনার পর অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন যে প্রতিভাবান তরুণের ভবিষ্যতে তাহলে কি লেখা রয়েছে? আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জায়গায় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটকে প্রাধান্য দেওয়ার শাস্তিই যে তিনি পাচ্ছেন তা দিনের আলোর মত পরিষ্কার। বিশেষজ্ঞদের সিংহভাগ জানাচ্ছেন যে নিজের ভুল স্বীকার করে বার্তা দেওয়া উচিৎ ঈশানের। এছাড়াও ঘরোয়া ক্রিকেটের আঙিনায় নিজেকে প্রমাণ করার পরামর্শও পাচ্ছেন তিনি।

Also Read: দায়িত্ব পেয়েই বড় সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন গম্ভীর, চাপ বাড়তে চলেছে কোহলি-রোহিতদের উপর !!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *