জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করাতে চেয়েছিলেন শাহিদ আফ্রিদি, গুরুতর অভিযোগ করলেন এই ক্রিকেটার !! 1

ক্রিকেটে পাকিস্তানের (Pakistan) প্রাক্তন অধিনায়ক এবং বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার শাহিদ আফ্রিদির (Shahid Afridi) মর্যাদা কতটা উঁচু তা সকলেই জানেন। আফ্রিদি শুধু পাকিস্তানেরই নয় বিশ্বের অন্যতম সফল ক্রিকেটার। কিন্তু আজকাল নতুন বিতর্কের জেরে শিরোনামে রয়েছেন এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। আফ্রিদির বিরুদ্ধে বড় অভিযোগ করেছেন সতীর্থ দলের এক খেলোয়াড়।

‘ধর্ম পরিবর্তনে বল প্রয়োগ করা হয়েছে’

জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করাতে চেয়েছিলেন শাহিদ আফ্রিদি, গুরুতর অভিযোগ করলেন এই ক্রিকেটার !! 2

শাহিদ আফ্রিদির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন দলের সাবেক অভিজ্ঞ স্পিনার দানিশ কানেরিয়া (Danish Kaneria)। কানেরিয়া বলেছেন যে হিন্দু হওয়ার কারণে আফ্রিদি পাকিস্তানি ক্রিকেট দলে সবসময় তার সাথে খারাপ ব্যবহার করতেন। এ ছাড়া কানেরিয়া জানান, আফ্রিদি তাকে বেশ কয়েকবার ধর্ম পরিবর্তন করতে বলেছেন। জি নিউজকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে কানেরিয়া বলেন, “আমি সবসময় আফ্রিদির থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করেছি। তিনি প্রায়ই আমাকে ধর্ম গ্রহণ করতে বলতেন, কিন্তু আমি তার কথা উপেক্ষা করতাম। আমি প্রতিটি ধর্মকে সম্মান করি।”

এ ছাড়া কানেরিয়া আরও বলেন, আফ্রিদি ছাড়া দলের কোনো খেলোয়াড়ই তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেননি। কিন্তু আফ্রিদি দলের অধিনায়ক ছিলেন, তাই তিনি প্রায়ই এই খেলোয়াড়কে বেঞ্চে বসিয়ে রাখতেন। তিনি বলেন, “দলের পুরো নিয়ন্ত্রণ রাখতেন অধিনায়ক। অধিনায়কত্বের সময় আফ্রিদি আমাকে বেঞ্চে বসাতেন। আমাকে দল থেকে বাদ দিতেন। এমনকি পুরো সিজন বাইরে রাখতেন। আমি ভালো করতে গিয়েও কেন এমন হচ্ছে বুঝতে পারছিলাম না। আমি যখন এ ক্যাটাগরির কেন্দ্রীয় চুক্তি পেয়েছি, আফ্রিদি আমাকে অনেক গালিগালাজ করেছিলেন। এই সব আমার মানসিকতার উপর একটি বড় প্রভাব ফেলেছিল।”

ফিক্সিংয়ের ফাঁদে পড়েছিলেন কানেরিয়া

জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করাতে চেয়েছিলেন শাহিদ আফ্রিদি, গুরুতর অভিযোগ করলেন এই ক্রিকেটার !! 3

স্পট ফিক্সিং নিষেধাজ্ঞার কারণে ২০১৩ সালে দানিশ কানেরিয়া ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। এই খেলোয়াড় ফিরে আসার জন্য তার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু তিনি আর কখনো সুযোগ পাননি। এ ছাড়া কানেরিয়া এমনকি পাকিস্তানের আরও অনেক খেলোয়াড় ফিক্সিংয়ের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ করেছিলেন, কিন্তু তাদের আবার খেলার সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। যেমন মহম্মদ আমিরকে (Mohammad Amir) দেখতে পারেন। কানেরিয়া আরও বলেন, “আমার অগ্রাধিকার হল আমার আজীবন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া উচিত। আমি পিসিবি চেয়ারম্যান রামিজ রাজার সাথে অনেকবার কথা বলেছি কিন্তু এখন 8 মাস হয়ে গেছে এবং বিষয়টি এগোয়নি। আমি চাই আইসিসি আমাকে সাহায্য করুক, আমি পুনর্বাসনের জন্য প্রস্তুত। আমি মাঠে ফিরতে চাই।”

 

Read More: ২০১৯ বিশ্বকাপে ভারতের হারের কারণ হিসেবে সরাসরি এই দুই খেলোয়াড়ের নাম নিলেন যুবরাজ সিং

Leave a comment

Your email address will not be published.