এখনও সুযোগ পেলেন না সঞ্জু স্যামসন, সিরিজ জিতেও প্রাক্তনীর কটাক্ষের মুখে ভারতের টিম ম্যানেজমেন্ট !! 1

নিউজিল্যান্ডে টি-২০ সিরিজ জেতা একটা চ্যালেঞ্জ ছিলো ভারতের অস্থায়ী টি-২০ অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়ার কাছে। রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিদের মত অনেক বড় নাম উপস্থিত ছিলেন না ভারতীয় দলে। বিশ্বকাপে হারের হতাশা কাটাতে তাই কিউইদের বিপক্ষে তারুণ্যের স্পর্ধা দেখাতে চেয়েছিলেন হার্দিক। প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে গিয়েছিলো। মাউন্ট মাউঙ্গানুয়ার বে ওভালে সূর্যকুমার যাদবের ৫১ বলে ১১১* এবং দীপক হুডার ১০ রানের বিনিময়ে ৪ উইকেটের সুবাদে বড় জয় পায় ভারত। তৃতীয় ম্যাচ বৃষ্টিতে ভিজে ‘টাই’ ঘোষিত হওয়ায় ১-০ ফলেই সিরিজ পকেটে পুরে ফেলে ভারত। এই জয়ের আনন্দের আবহেই টিম ম্যানেজমেন্টের কিছু কিছু সিদ্ধান্তে ক্ষোভের বাতাবরণ তৈরি হয়েছে ভারতের ক্রিকেটমহলে। সঞ্জু স্যামসনের (Sanju Samson) মত প্রতিভা কেনো দিনের পর দিন বাইরে বসে থাকবেন? সেই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। এই তালিকায় নবতম সংযোজন ভারতের প্রাক্তন পেসার ডোডা গণেশ (Dodda Ganesh)। এই সিদ্ধান্তের জন্য ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট’কে কটাক্ষ করতে ছাড়েন নি তিনি।

কেনো বাইরে সঞ্জু? সমালোচনায় রুষ্ট হার্দিক-

Sanju Samson | image: twitter
Sanju Samson did not get a chance in IND vs NZ T20 series.

বলা হয়েছিলো নতুন ভারতীয় দল খেলা যাবে, আগামীর প্রতিভাদের সুযোগ দেওয়া হবে, কিন্তু কোথায় কি? মোটামুটি অভিজ্ঞদের নিয়েই দল গড়েছিলেন অধিনায়ক হার্দিক (Hardik Pandya) এবং কোচ লক্ষ্মণ (VVS Laxman)। বারবার ব্যর্থ হয়েও খেলেছেন ঋষভ পন্থ (Rishabh Pant)। ব্যাট হাতে নামার সুযোগ পান নি সঞ্জু স্যামসন (Sanju Samson)। প্রশ্নের মুখে পড়ে হার্দিক সোজাসাপ্টা জানিয়ে দেন, “ প্রথম কথা হলো বাইরে কে কি বলছে তাতে পেশাদার ক্রিকেটে কিছু এসে যায় না। এটা আমার টিম। আমার এবং কোচের যা ঠিক মনে হবে, যে দল আমরা মনে করবো যে আমাদের প্রয়োজন, সেই একাদশ’ই খেলানো হবে।” সুযোগ না মেলায় হতাশ হওয়ার কারণ নেই কারও, জানাচ্ছেন অধিনায়ক। “অনেক সময় আছে এখনও। সবাই সুযোগ পাবে, আর যখন পাবে তখন লম্বা খেলবে।” সিরিজে মাত্র তিনটি ম্যাচ ছিলো, তার মধ্যে একটা ভেস্তে যায় বৃষ্টিতে। সবাইকে সুযোগ দিতে না পারার সেটাও একটা কারণ বলেছেন তিনি। “এটা যদি বড় সিরিজ হত, ম্যাচ বেশী থাকত, তাহলে অবশ্যই সবাইকে খেলানোর সুযোগ বেশী পাওয়া যেত। যেহেতু ছোটো সিরিজ ছিলো, সবাইকে সুযোগ দিতে পারি নি। আর আমি বিশেষ কাটছাঁট, অদলবদলে বিশ্বাস করি না, আগেও করি নি, ভবিষ্যতেও করবো না।” আত্মবিশ্বাসী সুরে জানিয়ে দিয়েছেন পান্ডিয়া।

সঞ্জু নেই একাদশে, কারণ বুঝছেন না ডোডা গণেশ –

Dodda Ganesh | image: twitter
Ex-Indian fast bowler Dodda Ganesh questioned Sanju Samson’s exclusion from the Indian squad.

তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজে খেলা হয়েছে দুটি ম্যাচ। একটিতেও সুযোগ পান নি সঞ্জু স্যামসন (Sanju Samson)। কেরালার উইকেটরক্ষক ব্যাটারের জাতীয় দলে খেলার কাহিনীতে বরাবর’ই চড়াই উতরাই দেখা যায়। দুই-একটি ম্যাচে সুযোগ পান, আবার সরে যেতে হয় তাঁকে। এখনও অব্দি তিনি মাত্র ১০ টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন ভারতের হয়ে। করেছেন ২৯৪ রান। সর্বোচ্চ ৮৬। ব্যাটিং গড় ৭৩.৫। ব্যাটিং তালিকার নীচের দিকে খেলার সুযোগ পাওয়ায় বিশেষ আউট হন নি তিনি। ২ টি অর্ধশতরানসহ তাঁর স্ট্রাইক রেট’ও দুর্দান্ত। একদিনের ম্যাচে ১০৭ এর কাছে স্ট্রাইক রেট তাঁর। টি-২০ ম্যাচ তিনি খেলেছেন ১৬ টি। করেছেন ২৯৬ রান। রয়েছে একটি অর্ধশতক। এছাড়া আইপিএলেও তাঁর ব্যাটিং পরিসংখ্যান বেশ ভালো। রয়েছে ৩ টি শতরান। ক্রমাগত পারফর্ম করা সত্ত্বেও জাতীয় দলের প্রথম একাদশ জায়গা পাচ্ছেন না তিনি। এর আগেও রবি শাস্ত্রীর (Ravi Shastri) মত অনেকে বলেছেন, “প্রয়োজনে অন্যদের বাইরে বসাও, কিন্তু সঞ্জুকে খেলাও।” এবার একই সুর শোনা গেলো কর্ণাটকের প্রাক্তন পেসার ডোডা গণেশের (Dodda Ganesh) থেকে। সঞ্জু প্রথম একাদশে সুযোগ না পাওয়ায় ট্যুইটারে তিনি লিখলেন, “সঞ্জু স্যামসন এখনও একটা ম্যাচে সুযোগ পেলো না। এই সিদ্ধান্ত বুঝে ওঠা মুশকিল।” দেখে নিন সেই ট্যুইট’টি-

“শেখার কোনও ইচ্ছেই নেই” ডোডা গণেশের আক্রমণ ভারতীয় দল’কে-

Shreyas Iyer | image: twitter
Dodda Ganesh also questioned Shreyas Iyer’s selection ahead of Sanju Samson.

স্যামসনের সাথে এই রকম আচরন করার জন্য ভারতের টিম ম্যানেজমেন্টের ওপর ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন প্রাক্তন ভারতীয় পেসার ডোডা গণেশ (Dodda Ganesh)। তিনি নিজের ট্যুইটারে প্রশ্ন তুলেছেন শ্রেয়স আইয়ার’কে (Shreyas Iyer) সঞ্জুর বদলে দিনের পর দিন খেলিয়ে যাওয়ার যৌক্তিকতা নিয়ে। দলের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে ট্যুইটারে ডোডা লেখেন, “সঞ্জু’কে বাইরে রেখে আইয়ার’কে সুযোগ দিয়ে ভারতীয় দলের থিঙ্কট্যাঙ্ক আবার বুঝিয়ে দিলো আগেকার ভুল থেকে কোনোরকম শিক্ষা নিতেই তারা রাজী নয়। টি-২০ ক্রিকেট নিয়ে ভারতের ধারণা’ও বদলাবে বলে মনে হয় না।” দেখে নিন সেই ট্যুইট’টি-

টি-২০ সিরিজের পর আগামী শুক্রবার থেকে ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে শুরু হতে চলেছে একদিনের সিরিজ। সেই দলেও রয়েছেন সঞ্জু স্যামসন। হার্দিক নয়, একদিনের দলের নেতৃত্ব দেবেন শিখর ধাওয়ান (Shikhar Dhawan)। অধিনায়কত্বে বদল এলে সঞ্জু’র ভাগ্যেও বদল আসে কিনা সেইদিকেই তাকিয়ে ভারতের ক্রিকেট্মহল।

Leave a comment

Your email address will not be published.