৩৬ বছর বয়সে নিজের প্রথম টেস্ট খেলেই এই ইতিহাস গড়লেন পাকিস্তানের এই পেসার 1

জিম্বাবওয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে পাকিস্তান প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেটে ৫১০ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। এরপরে, খেলার দ্বিতীয় দিন শেষে জিম্বাবওয়ে প্রথম ইনিংসে ৫২ রানে ৪ উইকেট পড়েছে। জিম্বাবুয়ে ইনিংসের সময়, পাকিস্তানের ৩৬ বছর বয়সী ফাস্ট বোলার তাবিশ খান টেস্ট ক্রিকেটে ৭০ বছর পরে একটি বিশেষ রেকর্ড তৈরি করেছিলেন। আসলে, তাবিশ খান ৩৬ বছর বয়সে টেস্টে অভিষেকের সুযোগ পেয়েছিলেন। এই টেস্ট ম্যাচটি তাবিশের কেরিয়ারের প্রথম টেস্ট ম্যাচ। তাবিশ যখন বোলিং করতে আসেন, তিনি টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম ওভারের শেষ বলে উইকেট নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছিলেন। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ওভারে উইকেট শিকারি তাবিশ বিশ্বের তৃতীয় প্রবীণ বোলার হয়েছেন। তাবিশ ৩৬ বছর ১৪৭ দিন বয়সে এই কীর্তিটি করেছিলেন।

এর আগে, শেষবারের মতো একজন বয়স্ক বোলার টেস্টের প্রথম ওভারে উইকেট নিয়েছিলেন, ১৯৫১ সালে, দক্ষিণ আফ্রিকার জেফ চব ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিজের প্রথম ওভারে উইকেট শিকার করেছিলেন। জিওফ যখন এই কীর্তিটি করেছিলেন, তখন তাঁর বয়স ছিল ৪০ বছর ৫৭ দিন। একই সময়ে, ইংল্যান্ডের রিচার্ড হাওয়ার্থ ১৯৪৭ সালে ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অভিষেকের সময় কেরিয়ারের প্রথম ওভারেই উইকেট শিকারে সফল হন। তখন রিচার্ডের বয়স ছিল ৩৮ বছর ১১৪ দিনের।

পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার তাবিশ খান (তাবিশ খান) ২০০২ সালে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। এখনও অবধি প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তাবিশ ১৩৭ ম্যাচে ৫৯৮ উইকেট নিয়ে দুর্দান্ত কাজ করেছেন। এ ছাড়া তাবিশ খান ৪৩টি টি টোয়েন্টি ম্যাচে ৪২ উইকেট নিয়েছেন। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দুর্দান্তভাবে বোলিং করা সত্ত্বেও তাবিশকে পাকিস্তানের হয়ে টেস্টে অভিষেকের জন্য ১৮ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছিল। তাবিশ টেস্টে পা রেখে তাঁর ৭০ বছরের ইতিহাস পুনরাবৃত্তি করেছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.