Pakistan Cricket: ভয়ঙ্কর গতিতে গাড়ি চালানোর জন্য ভোগান্তি এই পাক ক্রিকেটারের, পুলিশ ধরে ফেলায় ঘটালেন এই কাণ্ড! 1

Pakistan Cricket: বিশ্বের সব কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা বিলাসবহুল জীবনযাপনের সঙ্গে অভ্যস্ত। এই সমস্ত খেলোয়াড়রাও বিলাসবহুল গাড়ির জন্য পাগল। তবে সম্প্রতি পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটের সাথে সম্পর্কিত একটি বড় খবর সামনে এসেছে। পাকিস্তানের সেই প্রাক্তন ক্রিকেটারকে লাহোর থেকে করাচি যাওয়ার সময় দ্রুত গতিতে গাড়ি চালানোর জন্য জরিমানা করেছে মোটরওয়ে পুলিশ।

এই ক্রিকেটারকে ‘পাকড়াও’ করলো পুলিশ

Shahid Afridi

পাকিস্তানের প্রাক্তন অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি (Shahid Afridi) সম্প্রতি পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। এর পিছনে কারণ ছিল তিনি দ্রুত গতিতে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। লাহোর থেকে করাচি যাওয়ার সময় দ্রুত গতির জন্য মোটরওয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন শহীদ আফ্রিদি। তবে পরে জরিমানা ও বোঝানোর পর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পাকিস্তান পুলিশ আফ্রিদিকে ১৫০০ টাকা জরিমানা করেছে।

জরিমানা পরিশোধের পর এই দাবি করেন আফ্রিদি!

ধরা পড়ার পর, শহীদ আফ্রিদি (Shahid Afridi) তার ভুল স্বীকার করেছেন এবং পুলিশের সাথে ছবি তোলার জন্য পোজও দিয়েছেন। পুলিশকেও অভিনন্দন জানিয়েছেন এই পদক্ষেপের জন্য। আফ্রিদিও তার অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রিটুইট করে পুলিশকর্মীদের প্রশংসা করেন তিনি। শহিদ আফ্রিদি টুইট করে লিখেছেন, “ন্যাশনাল হাইওয়ে এবং মোটরওয়ে পুলিশের কর্মীদের সাথে আলাপচারিতা করে ভালো লাগলো এবং আমি তাদের খুব পেশাদার বলে মনে করেছি। এছাড়াও আমার বিনীত পরামর্শ হল আমাদের খুব ভালো হাইওয়ে আছে, ১২০ কিমির বেশি গতিতে গাড়ি চালানোর অনুমতি দেওয়া উচিত।”

ক্রিকেটার হিসেবে সফল আফ্রিদি

Shahid Afridi

৪২ বছর বয়সী শহীদ আফ্রিদি (Shahid Afridi) তার বর্ণাঢ্য কেরিয়ারে প্রচুর ছক্কা মেরেছিলেন। সত্যি কতা বলতে গেলে, বড় বড় ছয় মারার জন্যই তিনি বিখ্যাত। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার মোট ৪৭৬টি ছক্কা রয়েছে। মূলত তার মারকুটে ব্যাটিংয়ের সাহায্যে পাকিস্তানকে অনেক ম্যাচ জিতিয়েছেন শহীদ। তিনি পাকিস্তানের হয়ে ২৭টি টেস্ট, ৩৯৮টি ওয়ানডে এবং ৯৯টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। টেস্টে তার ১৭১৬ রান, ওয়ানডেতে ৮০৬৪ রান এবং টি-টোয়েন্টিতে ১৪১৬ রান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পর থেকে আফ্রিদি সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব সক্রিয় এবং প্রায়ই তার ছবি শেয়ার করেন। আফ্রিদি কেনিয়ার বিপক্ষে ১৯৯৬ সালে তার আন্তর্জাতিক অভিষেক হয় এবং ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেন। ২০০৯ সালে পাকিস্তানকে টি-২০ চ্যাম্পিয়ন করতে আফ্রিদি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.