PAK vs ENG: পাকিস্তান বোলারদের নাস্তানাবুদ করে এক দিনে ৫০৬ রান তুলল ইংল্যান্ড, চার ব্যাটসম্যানের শতরানে গড়ল নয়া নজির !! 1

PAK vs ENG: বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া প্রথম টেস্ট ম্যাচের প্রথম দিনেই পাকিস্তানি বোলারদের গুঁড়িয়ে দিলেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। খারাপ আলোর কারণে যখন দিনের খেলা শেষ হয় তখন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে রান ৭৫ ওভারে ৪ উইকেটে ৫০৬ রান। যে কোন টেস্ট ম্যাচের প্রথম দিনে এটাই সবচেয়ে বড় স্কোর। এ দিনের আগে কোন দলই এক দিনে ৫০০ রানের অঙ্ক স্পর্শ করতে পারেনি। এর আগে, ১৯১০ সালের ৯ ডিসেম্বর সিডনিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়া ৬ উইকেটে ৪৯৪ রান করে।

টেস্ট ব্যাটিংয়ে ইংল্যান্ডের নামে বিশ্ব রেকর্ড

PAK vs ENG: পাকিস্তান বোলারদের নাস্তানাবুদ করে এক দিনে ৫০৬ রান তুলল ইংল্যান্ড, চার ব্যাটসম্যানের শতরানে গড়ল নয়া নজির !! 2

ম্যাচে জ্যাক ক্রাউলি ১১১ বলে ২১ চারের সাহায্যে ১২২ রান করেন একজন ওপেনার হিসাবে ইংল্যান্ডের হয়ে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডও। তার পর বেন ডাকেট ১১০ বলে ১০৭ রান, অলি পোপ ১০৪ বলে ১০৮ রান এবং হ্যারি ব্রুকস ৮১ বলে অপরাজিত ১০১ রান করেন ১৪ চার ও ২ ছক্কায়। তিনি ছাড়াও অধিনায়ক বেন স্টোকস ১৫ বলে ৬ চার ও একটি ছক্কায় ৩৪ রানে অপরাজিত আছেন। শুধু তাই নয়, এক ওভারের ৬ বলে টানা ৬টি চার মারার কীর্তিও গড়েন ব্রুকস। এই দুই ব্যাটসম্যানই দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করবেন। খারাপ আলোর কারণে যদি বন্ধ না হত তাহলে খেলায় আরও ১৫ ওভার হয়ে যেত এবং সম্ভবত প্রথম দিনেই ইংল্যান্ড ৬০০ রানের স্কোর পেরিয়ে যেতে পারত।

এক ইনিংসে চারজন সেঞ্চুরিয়ান

PAK vs ENG: পাকিস্তান বোলারদের নাস্তানাবুদ করে এক দিনে ৫০৬ রান তুলল ইংল্যান্ড, চার ব্যাটসম্যানের শতরানে গড়ল নয়া নজির !! 3

ওপেনার জ্যাক ক্রাউলি এবং বেন ডাকেট প্রথম উইকেটে ২৩৩ রানের জুটি গড়েন। পাকিস্তানি বোলারদের প্রচুর ছক্কা মারেন তিনি। ম্যাচের এক দিন আগে ইংল্যান্ডের পাঁচ-ছয়জন খেলোয়াড় ভাইরাল সংক্রমণের শিকার হয়ে ম্যাচ শুরুর এক দিন পিছিয়ে যাওয়ার কথা উঠলেও বৃহস্পতিবার ম্যাচের দুই ঘণ্টা আগে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। বোর্ড পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে ডাকে। বোর্ডকে জানিয়ে দেয় তাদের ১১ জন খেলোয়াড় ম্যাচ খেলতে প্রস্তুত।

পাকিস্তানি বোলারদের দুর্দশা

PAK vs ENG: পাকিস্তান বোলারদের নাস্তানাবুদ করে এক দিনে ৫০৬ রান তুলল ইংল্যান্ড, চার ব্যাটসম্যানের শতরানে গড়ল নয়া নজির !! 4

ক্রাউলি অবশ্য সেই খেলোয়াড়দের মধ্যে ছিলেন যারা ভাইরাল রোগে আক্রান্ত হননি। যখন তিনি ৯৯ রানে ছিলেন তখন মাঠের আম্পায়ার তাকে এলবিডব্লিউ বলে রায় দেন। কিন্তু রিভিউ দাবি করার পর সিদ্ধান্তটি বাতিল করা হয়। তিনি ১১ বলে ২১ চারের সাহায্যে ১২২ রান করেন। ছয় বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো টেস্ট দলে জায়গা পাওয়া ডাকেট ১১০ বলে ১৫ চারের সাহায্যে ১০৭ রান করেন। টেস্টে এটাই তার প্রথম সেঞ্চুরি।

পাকিস্তান দ্বিতীয় সেশনে তিন উইকেট নিয়ে বাউন্স ব্যাক করে, ক্রাউলি এবং ডাকেট টেস্ট ক্রিকেটে কোচ ব্রেন্ডন ম্যাককালামের আক্রমণাত্মক দৃষ্টিভঙ্গি অব্যাহত রেখে ২৩৩ রানের জুটি গড়েন। লেগ-স্পিনার জাহিদ মাহমুদ (২/১৬০) এবং হারিস রউফ (১/৭৮) পরপর দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে দেন। ২৩ রান করে জাহিদের বলে এলবিডব্লিউ হন প্রাক্তন অধিনায়ক জো রুট।

Leave a comment

Your email address will not be published.