IND vs IRE: টিম ইন্ডিয়াতে দীর্ঘদিন ধরে উপেক্ষিত ছিলেন এই খেলোয়াড়, সুযোগ পেলেই চালালেন ধ্বংসযজ্ঞ ! 1

IND vs IRE: টিম ইন্ডিয়া এবং আয়ারল্যান্ডের মধ্যে দ্বিতীয় টি-২০ দুই দলই প্রচুর রানের মুখ দেখে। এই ম্যাচে দুই শিবিরের ব্যাটসম্যানরা দুর্দান্ত ফর্মে থাকার ইঙ্গিত দিয়ে প্রচুর রান করেন। এই ম্যাচে, টিম ইন্ডিয়ার একাদশে একজন এমন একজন বিস্ফোরক ব্যাটসম্যানকে সুযোগ দেওয়া হয় যিনি দীর্ঘদিন ধরেই টিম ইন্ডিয়ার বাইরে ছিলেন। তবে সুযোগ পেয়েই মারাকাটারি ইনিংস খেলে যান তিনি। মঙ্গলবার রাতে কোন আইরিশ বোলারকেই রেয়াত করেননি তিনি। বিপক্ষ শিবিরের বল হাতে সবাইকেই এ দিন তার রোষাণলে পড়তে হয়।

সুযোগ পেয়েই ধ্বংসযজ্ঞ চালালেন

IND vs IRE

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে সঞ্জু স্যামসনকে ওপেনার হিসেবে ভারতীয় দলে জায়গা করে দেওয়া হয়। সঞ্জু স্যামসন ধারাবাহিকভাবে টিম ইন্ডিয়া দলে জায়গা করে নিতে পারেননি। কিন্তু এই সফরে ঋতুরাজ গায়কোয়াডের জায়গায় তিনি দলে জায়গা পান। প্রথম ম্যাচে দলের একাদশে থাকতে পারেননি তিনি। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ পেয়েই মারকুটে মেজাজে খেলেন এবং প্রচুর রান করে যানন। এই ম্যাচে সঞ্জু স্যামসন ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেন এবং দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হন তিনি। সব মিলিয়ে এই ম্যাচে সাফল্য পেলেন রাজস্থান রয়্যালস অধিনায়ক।

খেলেছেন কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় ইনিংস

IND vs IRE: টিম ইন্ডিয়াতে দীর্ঘদিন ধরে উপেক্ষিত ছিলেন এই খেলোয়াড়, সুযোগ পেলেই চালালেন ধ্বংসযজ্ঞ ! 2

এই ম্যাচে ওপেনার হিসেবে ব্যাট করতে নে ৪২ বলে ৭৭ রান করেন সঞ্জু স্যামসন। ১৮৩.৩৩ স্ট্রাইক রেটে খেলতে গিয়ে তিনি ৯টি চার ও ৮টি ছক্কা মারেন। ভারতীয় দলের জার্সি গায়ে এটি ছিল সঞ্জু স্যামসনের কেরিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি। এই ম্যাচের আগে দেশের হয়ে তার সেরা স্কোর ছিল মাত্র ৪৬ রান। সঞ্জু স্যামসন এখনও পর্যন্ত ভারতের হয়ে ১৫টি ম্যাচ খেলেছেন, যার মধ্যে তিনি ২১.২১ গড়ে ২৯৭ রান করেছেন। সঞ্জু ২০১৫ সালে দেশের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলেছিলেন। কিন্তু তিনি টিম ইন্ডিয়ার জার্সি গায়ে খুব একটা পারফর্ম করার সুযোগই পাননি।

সিরিজে দুটি ম্যাচেই জিতল টিম ইন্ডিয়া

IND vs IRE: টিম ইন্ডিয়াতে দীর্ঘদিন ধরে উপেক্ষিত ছিলেন এই খেলোয়াড়, সুযোগ পেলেই চালালেন ধ্বংসযজ্ঞ ! 3

এই আয়ারল্যান্ড সফর টিম ইন্ডিয়ার জন্য খুবই ভালোই ছিল। দুই ম্যাচের এই সফরে হার্দিক পান্ডিয়ার নেতৃত্বে একটি তরুণ দল খেলে এবং দলটি ২-০ ব্যবধানে বিপক্ষকে নাস্তানাবুদ করে দেয়। টিম ইন্ডিয়া সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৭ উইকেটে জিতেছিল। দ্বিতীয় ম্যাচটি তারা ৪ রানে জিতে নেয়। তবে এখনেই ক্রিকেটের যাত্রা শেষ হচ্ছে না। পয়লা জুলাই থেকে এবার ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামবে টিম ইন্ডয়া।

Leave a comment

Your email address will not be published.