ENG vs IND

ENG vs IND: সোমবার ছিল লেস্টারশায়ার ও ভারতের মধ্যে চলতি অনুশীলন ম্যাচের শেষ দিন। এই ম্যাচে প্রথম দুইবার ব্যর্থ হওয়ার পর ছন্দে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন শুভমান গিল। ২ রানের লিড নিয়ে ভারত তাদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে। চতুর্থ দিনে টিম ইন্ডিয়া তাদের ৩৬৩ রানে ইনিংস ডিক্লেয়ার করে। লিসেস্টারশায়ারের জয়ের জন্য ৩৬৭ রান প্রয়োজন ছিল। এই রান তাড়া করতে নেমে ভারতীয় ওপেনার শুভমান গিল লেস্টারশায়ারের হয়ে খেলছিলেন। এ দিন গিল তার হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করে আরও বড় রান করার সুযোগ ছিল তার সামনে। তবে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের স্পিনে আটকে গিয়ে আউট হন তিনি।

তৃতীয় সুযোগে ৬২ রান করেন শুভমান গিল

ENG vs IND: ভারতের হয়ে ফ্লপ হলেও লেস্টারের হয়ে 'হিরো' শুভমান গিল! জানুন কীভাবে 1

ওপেনার হিসাবে শুভমান গিল টিম ইন্ডিয়ার পছন্দ ছিলেন না। চোটের কারণে কেএল রাহুলকে সিরিজ থেকে বাদ পড়তে হয়। খুব তাড়াতাড়ি ছন্দে ফিরতে হবে তাকে যাতে তিনি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আসন্ন ম্যাচগুলিতে নিজের জায়গা পাকা করতে পারেন। তবে অনুশীলন ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ভালো শুরু করেও আউট হয়ে যান।। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসেও ঠিক তেমনটাই ঘটে। তবে শেষ পর্যন্ত তৃতীয়বার ক্রিজে এসে শুভমান গিল লম্বা ইনিংস খেলতে সক্ষম হন।

শুভমান গিল যখন লেস্টারশায়ারের হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে খেলতে আসেন, তখন তিনি ভারতীয় বোলারদের বিরুদ্ধে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলতে থাকেন এবং একটানা বড় শটও খেলেন। এমন পরিস্থিতিতে, কোভিড পজিটিভ হওয়ার পরে সুস্থ হয়ে ফিরে আসা রবিচন্দ্রন অশ্বিন অনুশীলন ম্যাচের প্রথম দিনে শুভমানের গুরুত্বপূর্ণ উইকেট নেন।

লেস্টার বনাম ভারত অনুশীলন ম্যাচ ড্র হয়েছে

ENG vs IND

লেস্টারশায়ার এবং ভারতের মধ্যে খেলা ৪ দিনের প্রস্তুতি ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ড্র হয়েছে। চতুর্থ দিনের খেলার শুরুতে, টিম ইন্ডিয়া তাদের ৩৬৪ রানে ইনিংস ডিক্লেয়ার করে। ২ রানের লিড নিয়ে ভারত তাদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে। লিসেস্টারশায়ারের জয়ের জন্য ৩৬৭ রান প্রয়োজন ছিল। যার জবাবে দিন শেষ পর্যন্ত মাত্র ২১৪ রান করতে পারে দলটি।

১ জুলাই ইংল্যান্ড-ভারত মুখোমুখি হবে

ENG vs IND: ভারতের হয়ে ফ্লপ হলেও লেস্টারের হয়ে 'হিরো' শুভমান গিল! জানুন কীভাবে 2

পয়লা জুলাই ইংল্যান্ড এবং টিম ইন্ডিয়ার মধ্যে গত বছরের পতৌদি ট্রফির শেষ টেস্ট ম্যাচটি এজবাস্টনে খেলা হবে। গত বছর করোনার সংখ্যা দুরন্ত গতিতে বেড়ে যাওয়ার কারণে সিরিজটি স্থগিত করা হয়েছিল। এই সিরিজে ভারত বর্তমানে ২-১ ফলে এগিয়ে রয়েছে। এক বছরের ব্যবধানে কোন দল এগিয়ে থাকবে সেটাই দেখার বিষয়।

Leave a comment

Your email address will not be published.