চিকেন বাটার মশালা। নামটা শুনলেই কেমন যেন জীভে জল চলে আসে। গন্ধটা নাকে গেলেই মনটা উসখুশ করে ওঠে। কখন খাবো কখন খাবো করে। মুখে পড়ার পর অসীম শান্তি। পেটে গেলে রসনা তৃপ্তি। সবারই কোনও কোনও প্রিয় ডিশ রয়েছে। খাদ্য় রসিক মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না, এমনটা বোধহয় হতেই পারে না। অবশ্য়ই ব্য়তিক্রম বাদে। তবে, পেট যার আছে, তার জীভে খিদে আছে। নাক হয়ে রসনার বাসনা শুরু আর আর পেটেতে রসনার তৃপ্তি। রসনার বাসনা যেন ভারতীয়রা মায়ের পেট থেকে নিয়ে আসে। কারও চিকেন বাটার মশালা তো কারও ডাল মাখানি। কারও আবার চিকেন তন্দুরি তো, কারও আবার মটন কারি। বিরিয়ানি আর ফিশফ্রাই। এটাতে না করবেন এদেশে এমন কেউ নেই। শুধু মটন, না চিকেন – এটাই বলার অপেক্ষা।

বলা হয়, স্পোর্টস পার্সন হতে গেলে লোভনীয় খাবার বর্জন করতে হয়। ফিট থাকতে গেলেই, তবেই না খেলবে। আর ভালো খেললে, তবেই না সুনাম হবে। তবে, এমন অনেকে আছেন, যাঁরা এসব নিয়ে কোনও বাধা-নিষেধ মানেন না। অথচ খেলার ময়দানে চ্য়াম্পিয়ন।

ক্রিকেটের ঈশ্বর শচীন তেন্ডুলকর। যেমন খেতে ভালোবাসেন, তেমন পারেন রাঁধতে। নানারকম মাছের পদের প্রতি তাঁর ভালোবাসা জানতে আর কারও বাকি নেই। বিশ্বজয়ী ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি, তিনিও খাদ্য় রসিক। নিজের অফিসিয়াল ট্যুইটার প্রোফাইলে লিখেই রেখেছেন চিকেন বাটার মশালার প্রতি তাঁর প্রেমের কথা। ক্রিকেট মহলে ধোনির খাদ্য় রসিক ইমেজ বেশ প্রসিদ্ধ।

শচীন তেন্ডুলকর

আমাদের মানে ভারতবাসীকে দু-টো বিশ্বকাপ এনে দেওয়া মাহি এতটাই খাদ্য়রসিক, আর তাতে কেউ বাদ সাধলে তিনি যে কতটা রাগতে পারেন, এমন ঘটনার সাক্ষী হয়েছেন অনেকেই। এরকম একবার রাগ করে যে হোটেলে ছিলেন, সেই হোটেল ছেড়ে অন্য় হোটেলে গিয়ে ওঠেন। ২০১৪ সালের একটি ঘটনা। তখন চ্য়াম্পিয়ন্স লিগ টি-২০ চলছে। মাহির দল চেন্নাই সুপার কিংস সেই সময় হায়দরাবাদে। শাহরুখ খানের টিম কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে ম্য়াচ খেলতে। আইটিসি কাকাটিয়াতে রাখা হয়েছিল চেন্নাইয়ের ক্রিকেটারদের। ঘরের ছেলে যখন শহরে এসেছে, তাই অম্বাতি রায়াড়ুর বাড়ির থেকে গোটা ধোনি এবং সিএসকে টিমের জন্য় হায়দরাবাদি বিরিয়ানি পাঠানো হয়েছিল। বোর্ড রুমে দলের সতীর্থদের জন্য় বিরিয়ানি পার্টি দিতে চান বলে মাহি হোটেলের স্টাফদের কাছে অনুমতি নিতে যান। নিয়ম বশত, বোর্ড রুমে পার্টি করা যাবে না বলে তাঁরা নিজেদের হোটেলের রুমে খাওয়ার কথা বলেন হোটেল কর্তারা। কিন্তু, বিরিয়ানি যখন হোটেলে এসে পৌঁছোয় তখন হোটেলের স্টাফরা বাইরের খাবার ভেতরে খাওয়ার অনুমতি নেই বলায়, বেজায় চটে যান ক্য়াপ্টেন কুল। সঙ্গে সঙ্গে ওই হোটেল ছেড়ে দলের খেলোয়াড়দের নিয়ে অন্য় হোটেলে গিয়ে ওঠেন মাহি এবং বিরিয়ানি পার্টিও দেন।

মহেন্দ্র সিং ধোনি
মহেন্দ্র সিং ধোনি
মহেন্দ্র সিং ধোনি
মহেন্দ্র সিং ধোনি

দেখুনঃ মহেন্দ্র সিং ধোনির রাজপ্রাসাদ 

SHARE

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক সেঞ্চুরির মালিক যে পাঁচ ক্রিকেটার

ক্রিকেটে একজন ব্যাটসম্যানের মানদণ্ড বিচার করার ক্ষেত্রে কোন ব্যাটসম্যান কত সংখ্যক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তাঁর ক্যারিয়ারে তা অতীব...

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে যে তিনটি মাইলফলক স্পর্শ করতে পারেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা

ঘরের মাটিতে জয়রথ যেন থামছেই না টিম ইন্ডিয়ার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাদা পোশাকে সিরিজ জয়ের পর রঙিন...

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম
ভারতীয় দল আর ওয়েস্টইন্ডিজ দলের মধ্যে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ আগামিকাল ২১ অক্টোবর গুয়াহাটির মাঠে...

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান
বিশ্বের সবচেয়ে আক্রামণাত্মক ওপেনার্সদের একজন বীরেন্দ্র সেহবাগ ৪০তম জন্মদিন পালন করছেন। ক্রিকেট জগত আর ওপেনিংকে নতুন পরিভাষা...

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়
নিজের দলের হয়ে উইকেট নিতে প্রত্যেক বোলারেরই ইচ্ছে থাকে। পাপু রায় এক এমন বোলার যার জন্য উইকেট...