শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগেই ভারতের প্রথম একদশ ঘোষিত! 1
Prev1 of 12
Use your ← → (arrow) keys to browse

রবিবার বার্মিংহ্যামে বহুপ্রতীক্ষিত ভারত–পাক ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে হেলায় ১২৪ রানে হারিয়েছে ভারত। ব্যাটিং, বোলিং বিভাগে পাকিস্তানকে অনেকটাই পিছনে ফেলে দিয়েছেন কোহলিব্রিগেড। যদিও একটি বিষয় টিম ইন্ডিয়াকে দারুণভাবে চিন্তায় রেখেছে। সেটা হল তাদের ফিল্ডিং বিভাগ। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সেভাবে নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি ভারতীয় ফিল্ডাররা। যার ফলে সামনে ৮ জুনে কিংস্টোন ওভালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে এই ফিল্ডিং বিভাগ নিয়ে বেশ চিন্তিত মেন ইন ব্লুজরা।

এবারের ইংল্যান্ডের পিচে বড় বড় রান উঠবে, সেটা মাথায় রেখে ভারত নিজেদের ব্যাটিং বিভাগকে সমৃদ্ধ করেছে রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, বিরাট কোহলি, যুবরাজ সিং, মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং কেদার যাদবের মতো ব্যাটসম্যানদের দলে রেখে। দলের প্রয়োজনে ভালো বোলিং করার পাশাপাশি বড় বড় শট খেলতে পারবেন ভেবে একজন জোরে বোলারের জায়গায় অলরাউন্ডার ক্রিকেটার হার্দিক পান্ডিয়াকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দলে রাখা হয়েছে। প্রয়োজনে পান্ডিয়া দলের হয়ে কি করতে পারেন, সেটা অবশ্য পাকিস্তান ম্যাচে তিনি তা করে দেখিয়েছেন। এছাড়া একমাত্র অলরাউন্ডার স্পিনার হিসেবে দলে জায়গা পেয়েছেন রবীন্দ্র স্বাভাবিকভাবেজাদেজা। ওই পিচে বাউন্স থাকায় চার জোরে বোলারে খেলার পরিকল্পনা করে ভারত। যদিও জোরে বোলার মুহাম্মদ সামির জায়গায় পান্ডিয়াকে রেখে বাকি তিন ফাস্ট বোলার ভুবনেশ্বর কুমার, উমেশ যাদব এবং জসপ্রিৎ বুমরাহ প্রত্যাশামতো দলে জায়গা পেয়েছেন।  স্বাভাবিকভাবে কিংস্টোন ওভালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টিম ইন্ডিয়া নিজেদের এই উইনিং কম্বিনেশন ভেঙে নতুন পথে যাওয়ার বিশেষ চেষ্টা চালাবে না।

পাকিস্তান ম্যাচে ভারতের ব্যাটিং বিভাগ একযোগে সবাইকে মুগ্ধ করেছে। একইভাবে তাদের বোলিং বিভাগও নজরকাড়া পারফরম্যান্স করে মাত্র ৩৩ ওভারে পাকিস্তানকে ১৬৪ রানে অল আউট করে দেয়। সে ম্যাচে বল হাতে উমেশ যাদব থেকে শুরু করে কমবেশি সবাইকে উইকেট নিতে দেখা গিয়েছে। তবে ফিল্ডিং বিভাগে কোহলির দল একটুও প্রশংসা কুড়োতে পারেনি। একদিকে প্রতিপক্ষ পাকিস্তান যেমন গোটা ম্যাচে খারাপ ফিল্ডিং করেছে, পাল্লা দিয়ে ভারতের ফিল্ডাররাও তাদের চেয়ে কিছু কম যাননি। রবীন্দ্র জাদেজা থেকে শুরু করে ভুবনেশ্বর কুমার এমনকি কেদার যাদবও ওই ম্যাচে প্রচুর মিস ফিল্ডিং করার পাশাপাশি ক্যাচও মিস করেছেন। জাদেজা, ভুবিদের মতো অভিজ্ঞ ফিল্ডারদের এভাবে পাকিস্তান ম্যাচে এভাবে সহজ ক্যাচ এবং ফিল্ডিং মিস করতে দেখে একটা সময় মাঠেই ক্ষেপে আগুন হয়ে যান খোদ কোহলিও। যার রেশ পাওয়া গেল সোমবারের সাংবাদিক সম্মেলনে। যেখান খোদ কোহলি পর্যন্ত বলে ফেললেন, ‘পরবর্তী ম্যাচগুলিতে ভালো ফলাফল করতে হলে আমাদের ফিল্ডিংয়ে আরও উন্নতি করতে হবে।’

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হার স্বীকার করেছে টিম শ্রীলঙ্কা। স্বাভাবিকভাবে জয়ের সরণীতে ফেরার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবারের কিংস্টোন ওভালে নিশ্চিতভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা চালাতে হবে লঙ্কানদের। পাশাপাশি ভারতের বিরুদ্ধে সে ম্যাচে তারা জয় তুলতে ব্যর্থ হলে, প্রতিযোগিতার নক আউট পর্বে ওঠার রাস্তা ক্রমে কঠিন হয়ে যাবে। সেটা মাথায় রেখে ওই ম্যাচটিকে একটুও হালকাভাবে নিতে নারাজ কোহলি, ধোনিরা। আর তাই দলের ব্যাটিং, বোলিংয়ের উন্নতির পাশাপাশি এখন নিজেদের ফিল্ডিং বিভাগের ধার বাড়িয়ে নিতে ভারতীয় ক্রিকেটারদের আপাতত কঠোর পরিশ্রমের দিকে ঠেলে দিতে চাইছেন হেড স্যার অনিল কুম্বলে। এবার দেখে নেওয়া যাক, চলতি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে জয়ের সরণীতে থাকতে শ্রীলঙ্কা ম্যাচে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট দলে কাকে রাখতে পারেন।

Prev1 of 12
Use your ← → (arrow) keys to browse

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *