শুরুতেই চোট পেয়ে পরবর্তী ম্যাচের জন্য অনিশ্চিত এই গুরুত্বপূণর্ণ খেলোয়াড়টি! 1

ঘরের মাঠে আয়োজিত হওয়া চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শুরুতেই বড় ধাক্কা খেলো টিম ইংল্যান্ড। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ওভালে প্রথম ম্যাচে মাত্র দুই ওভার বল করেই চোট নিয়ে পা টানতে টানতে মাঠ ছাড়েন ইংল্যান্ডের পেসার ক্রিস ওকস। পরে ওভালে তাঁকে পর্যবেক্ষণের পরই ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, পাঁজরের বাঁ দিকের পেশিতে মারাত্মক চোট পেয়েছেন এই জোরে বোলারটি। এর ফলে বাকি ম্যাচগুলোতে তাঁর খেলা নিয়ে রীতিমতো সংশয় দেখা দিয়েছে।  যদিও তিনি কতদিন মাঠের বাইরে থাকবেন, সে ব্যাপারে এখনও কিছু বলেনি ইসিবি। ওকসের মতো গুরুত্বপূর্ণ বোলার যদি গোটা প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে যান, তাহলে ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা জেতার মিশনে দারুণভাবেই ধাক্কা খাবে ইংল্যান্ড। এ ব্যাপারে ম্যাচ শেষে ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান পর্যন্ত বলে দিলেন, ‘ওর মতো একজন বোলার চোট পেয়ে মাঠের বাইরে চলে যাওয়া এবং বল করতে ফিরে না আসাটা আমাদের কাছে সত্যি খুবই চিন্তার একটা বিষয়।’

এর আগে থেকেই এই চোট নিয়ে ভুগছিলেন ওকস। যার ফলে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি শুরু আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেই ক্রিস ওকসকে নিয়ে সংশয় দেখা গিয়েছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজের শেষ দুই ওয়ানডেতেও তিনি ব্রিটিশদের দলে ছিলেন না। তা সত্ত্বেও তাঁকে দলে রেখেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এই টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নামে ইংল্যান্ড। মাঠ ছাড়ার আগে পর্যন্ত মাত্র ২ ওভার বল করেই মাঠ ছাড়েন ওকস। তাঁর অঙ্গভঙ্গি দেখে একটা সময় মনে হচ্ছিল, বেশ কিছুদিনের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাচ্ছেন ওকস। এই ম্যাচে অবশ্য বল হাতে শুরুটা ভালো করেছিলেন তিনি। কোনও রান না দিয়েই ওভার শুরু করেছিলেন। কিন্তু শেষমেশ দলকে এই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বেশিক্ষণ ভরসা দিতে পারলেন না কলকাতা নাইট রাইডার্সের এই জোরে বোলারটি।

ওকসের চোট পাওয়ার পরই ট্যুইটারে টুইট করেন ইংল্যান্ডের প্রাক্তন পেসার ড্যারেন গফ। গফের মতে, পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওকসের মাঠে ফিরতে কমপক্ষে চার থেকে ৬ সপ্তাহ লাগতে পারে। তাঁর মতে, ইন্টারকোস্টাল মাসলে চোট পেয়েছেন ওকস।  আর সেটা হলে তাঁকে  গোটা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে দলে পাওয়া নিয়ে সংশয় দেখা দিতে পারে । একই সঙ্গে ওই ম্যাচে ওকসের সঙ্গে আরও এক পেসার লিয়াম প্লাঙ্কেটও মাঠ ছাড়েন চোট নিয়ে। এদিকে পরের ম্যাচে ওকস দলে না ফিরতে পারলে, তাঁর জায়গা স্টিভেন ফিনকে আনার ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা শুরু করে দিয়েছে টিম ইংল্যান্ড।  উল্লেখ্য, ৬২টি ওয়ানডে ম্যাচে ৮৯ উইকেট পেয়েছেন ক্রিস ওকস।  দুটি হাফ সেঞ্চুরি করার পাশাপাশি ৮০০ রানও করেছেন ইংলিশ এই পেসারটি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.