যুবরাজ নিয়ে প্রশ্ন করায় কেনও সাংবাদিকদের উপর চটে গেলে অশ্বিন? 1

চলতি আইপিএল একাদত তম বছরে পা রেখেছে। ভারতীয় ক্রিকেট ক্যালেন্ডারে গত দশ বছর ধরেই আইপিএল ধীরে কিন্তু নিশ্চিতভাবে অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠেছে। স্থানীয় তরুণ ভারতীয় প্লেয়ারদের জন্য বিশ্ব ক্রিকেকেটে অন্যতম সেরাদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলার সুযোগ করে দিয়েছে এই প্রতিযোগিতা। অতীতে দেখা গেছে বহু তরুণ ক্রিকেটারই ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেত দলে জায়গা করে নিয়েছেন তাদের দুরন্ত আইপিএল সাফল্যের কারণেই। বিশেষ করে ভারতীয় জাতীয় দলে এরকম বহু উদাহরণই দেখতে পাওয়া যায়। তবে আইপিএল শধুমাত্র তরুণ প্লেয়ারদেরই উঠে আসার মঞ্চ এমন নয়। আন্ডার ফর্মে চলা বহু সিনিয়র ক্রিকেটারকেও জাতীয় দলে ফিরে আসার জন্য আইপিএলকেই মঞ্চ হিসেবে বেছে নিতে দেখা যায় ব্যাড প্যাচ কাটিয়ে ওঠার জন্য।

যুবরাজ নিয়ে প্রশ্ন করায় কেনও সাংবাদিকদের উপর চটে গেলে অশ্বিন? 2
অতীতেও বহুবারই এমন উদাহরণ দেখা গেছে যেখানে নিজেদের সংশ্লিষ্ট ফ্রেঞ্চাইজির হয়ে দুরন্ত পারফর্মেন্সের জোরা জাতিয় দলে নিজের জায়গা ফিরে পেয়েছেন ক্রিকেটাররা। সাধারণত বেশিরভাগ ফ্রেঞ্চাইজিতেই এমন কিছু সিনিয়র প্লেয়ার থাকেন দলে ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য। এই মরশুমে জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত নিলামে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব দু কোটি টাকার বেস প্রাইসে তাদের দলে ফিরিয়ে এনেছিল জাতীয় দলের বাইরে থাকা যুবরাজ সিংকে। যদিও আশানুরূপ পারফর্মেন্স এখনও পর্যন্ত দেখিয়ে উঠতে পারেন নি তিনি। এখনও পর্যন্ত চূড়ান্ডভাবেই ব্যর্থ হয়েছেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে। ফলে তাকে বসিয়ে তার জায়গায় সুযোগের দরজা খুলে গিয়েছিল বাংলার মনোজ তেওয়ারির জন্য। শেষ পর্যন্ত মনোজ সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে এই মরশুমে প্রথমবার পাঞ্জাবের হয়ে অভিষেক ঘটান। বাস্তবে মনোজ এই টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই প্রতীক্ষায় ছিলেন তাদের রিজার্ভ বেঞ্চে। হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে পাঞ্জাব ব্যর্থ হয় হায়দ্রাবাদের সামান্য ১৩৩ রান তাড়া করতে।
যুবরাজ নিয়ে প্রশ্ন করায় কেনও সাংবাদিকদের উপর চটে গেলে অশ্বিন? 3
ওপেনিং জুটি হিসেবে কেএল রাহুল এবং ক্রিস গেইল ৫৫ রানের পার্টনারশিপ খেলে পাঞ্জাবকে দারুণ শুরুয়াত দিয়েছিলেন। কিন্তু নিজেদের দুরন্ত বোলিং পারফর্মেন্সের কারণেই এই ম্যাচে দারুণভাবে ফিরে এসে হায়দ্রাবাদ মাত্র ১৩ রানে এই ম্যাচ জিতে নেয়। ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব অধিনায়ককে জিজ্ঞাসা করা হয় যুবরাজ সিংয়ের ব্যাপারে আপডেট জানার জন্য। তিনি যথেষ্টই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন এবং কঠিন জবাব দেন, “ কি…… কিসের আপডেট? আমি পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছিলাম ওর পরিবর্ত হিসেবে দলে এসেছে মনোজ তেওয়ারি”। এটা খুবই স্পষ্ট যে অশ্বিন না তো অশ্বিন এই প্রশ্নে খুশি হয়েছেন আর না তাদের দলের পারফর্মেন্স নিয়ে তিনি খুশি। যদিও পাঞ্জাবের তাদের পারফর্মেন্স নিয়ে চিন্তার কিছু নেই, কারণ তারা ৭ ম্যাচে পাঁচ জয় এবং দুটি হার সহ পয়েন্ট টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।
যুবরাজ নিয়ে প্রশ্ন করায় কেনও সাংবাদিকদের উপর চটে গেলে অশ্বিন? 4

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *