ডবলিউ ডবলিউ সুপারস্টার কেভিন ওয়েন্স এবং স্য়ামি জেইনকে গত সপ্তাহে স্ম্য়াকডাউনলাইভ শো-এর পর ইউরোপিয়ান ট্য়ুর থেকে সোজা বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়। জানা গিয়েছে, তাঁদের সেগমেন্টের বুকিং নিয়ে ক্রিয়েটিভ রাইটারদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন দুই তারকা। আর সেই কারণেই ঝামেলা এড়াতে দুই সুপারস্টারকে সঙ্গে সঙ্গে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়। নিউ ডে টিমের কোফি কিংস্টনের সঙ্গে ম্য়াচে স্য়ামিকে হারতে হয় বুকিং অনুযায়ী, যেটা একেবারই তাঁর পছন্দ হয়নি। ইদানিং বন্ধু জেইনের সঙ্গে আবার জুটি বেঁধেছেন ওয়েন্স। ফলে স্য়ামির হারা মানে টিমের অঙ্গ হিসেবে তাঁরও হার। আর সেটাই না পসন্দ দুই তারকার। শো-এর পর এই কারণে দুজনে এর প্রতিবাদ করতে যান। কারণ, এই হারের ফলে দুজনেরই মোমেন্টাম ব্রেক হয়েছে। অবশ্য়, ম্য়াঞ্চেস্টার থেকে বাড়ি চলে গেলেও, সারভাইভার সিরিজের আগে শেষ শো-তে অংশ নিতে দুজনেই নর্থ ক্য়ারোলিনার শারলোটে ফিরে আসেন এবং টিভি টেপিংয়ে মুখও দেখান।

রেসলিং অবজার্ভার নিউজলেটারের রিপোর্ট অনুযায়ী, ভিনস ম্য়াকম্য়াহন এবং ক্রিয়েটিভ রাইটাররা আগে থেকেই পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন ম্য়াঞ্চেস্টারে ম্য়াচের পর ওয়েন্স আক্রমণ করবেন কোফিকে। তারপর নিউ ডে টিমের বিগ ই এবং জেভিয়ার উডস তাঁদের ট্য়াগ টিম মেম্বার কোফিকে বাঁচাতে যাবেন। এরপর নিউ ডের কাছে মার খাওয়ার পর স্য়ামি ও কেভিন্স পালাবেন। আর তার ভিত্তিতেই শারলোটে নিউ ডে এবং টিম ওয়েন্স-জেইন ট্য়াগ টিমে ম্য়াচে অংশ নেবে দুই টিমের সদস্য়রা (ম্য়াচটি গত এসডিলাইভ শোতে অনুষ্ঠিত হয় স্ক্রিপ্ট অনুযায়ী)। ম্য়াঞ্চেস্টারে ওই সেগমেন্টের পর বেজায় অখুশি হয়ে ক্রিয়েটিভ রাইটারদের সঙ্গে বুকিং নিয়ে কথাকাটাকাটি শুরু করে দেন দুই তারকা। এরপরই ডবলিউ ডবলিউ আধিকারিকরা তাঁদের বাড়ি পাঠিয়ে দেন মাথা ঠান্ডা করতে।

যদিও আরেকটি সূত্রের খবর, আসলে কেভিন এবং জেইন সেগমেন্টটি ওই রকমভাবে কথাকাটাকাটি করে শেষ হবে জানতেন। কিছু একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল এক্ষেত্রে। আসল উদ্দেশ্য় ছিল, দুজনের হিল ক্য়ারেক্টারকে তুলে ধরা। কিন্তু, অনেকে এই যুক্তিকে অস্বীকার করেছেন। বলছেন, আসলে টিম ওয়েন্স-জেইন ইচ্ছে করে ঝামেলা পাকিয়েছিলেন নিজেদের বুকিং সম্পর্কে সব জানা সত্ত্বেও। আর এই কারণেই ঝামেলা যাতে বেশিদূর না গড়ায় , তাই তাঁদের বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

 

তবে, শোনা যাচ্ছে, দুসপ্তাহ আগে যে ঘটনাটি ঘটেছে, তাতে অন্য়ান্য় ডবলিউ ডবলিউ সুপারস্টাররা একদম খুশি নন। তেরোবারের ডবলিউ ডবলিউ চ্য়াম্পিয়ন ব়্য়ান্ডি অর্টন এবং ওয়েন্সের মধ্য়ে সোশ্য়াল নেটওয়ার্কিং সাইট ট্য়ুইটারে যে ট্য়ুইট চালাচালি হয়েছে, তাতে এই সন্দেহ আরও বেড়েছে। কারণ, যে সমস্ত ট্য়ুইট করা হয়েছে, তা মোটেই স্ক্রিপ্টেড নয়, মনে করা হচ্ছে।

গত স্ম্য়াকডাউন টিভি টেপিং-এর পর ১১ নভেম্বর অর্ল্য়ান্ডোর এপিকোটে এক ফ্য়ানের বিয়েতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল কেভিনকে। তিনি যে আসতে পারবেন না ব্য়স্ত থাকায়, তা প্রায় জানাই ছিল। কিন্তু, ওয়েন্স চেয়েছিলেন, তাঁর ওই ফ্য়ানকে চমকে দেবেন বিয়ের রিসেপশন পার্টিতে ডেজার্ট আইটেম পরিবেশনের সময়। সেই মত তিনি উপস্থিত হন এবং ওই ফ্য়ান ছবিটি ট্য়ুইট করেন। আর ব়্য়ান্ডি তা দেখার পর কিছু মন্তব্য় করেন। এরপর একে অপরের মধ্য়ে ট্য়ুইট চালাচালি করেন অর্টন এবং ওয়েন্স। সোশ্য়াল সাইটে পাল্টা জবাব দেওয়ার জন্য় ওয়েন্সের প্রচুর ফ্য়ান রয়েছে। কিন্তু, ব়্য়ান্ডি অর্টনের মতো একজন ভেটেরান তারকা সেসব কিছুকে একেবারেই পরোয়া করেন না। কারণ, ব়্য়ান্ডি শুধু সুপারস্টার নন, তিনি একজন লেজেন্ড।

  • SHARE
    A sports enthusiast and a critic. Journalism is all about being unbiased to create positive influence from negative angle.

    আরও পড়ুন

    বিরাটের কাছেই স্পিন খেলা শিখেছি: স্টিভ স্মিথ

    বিরাটের কাছেই স্পিন খেলা শিখেছি: স্টিভ স্মিথ
    বিশ্ব ক্রিকেটে এই মুহুর্তে তাদের মধ্যে চলছে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। তা সত্ত্বেও এই দুজনের মধ্যে একে অপরকে সম্মান...

    তৃতীয় টি২০তে এই তারকার খেলা নিয়ে সন্দেহ

    পিটিআইয়ের একটি রিপোর্টের মোতাবিক তৃতীয় এবং ফাইনাল ওয়ান ডেতে জসপ্রীত বুমরাহের অংশ নেওয়া এখনও সন্দেহজন অবস্থায় রয়েছে।...

    বিশ্বকাপে ভারতীয় স্পিন বিভাগে কারা খেলবেন মুখ খুলনে নির্বাচক প্রধান

    বিশ্বকাপে ভারতীয় স্পিন বিভাগে কারা খেলবেন মুখ খুলনে নির্বাচক প্রধান
    ২০১৯ বিশ্বকাপের বাকি আর মাত্র দেড় বছর। তার আগে গত ২ বছর ধরেই দুরন্ত ফর্মে রয়েছে ভারতীয়...

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি
    তার ব্যাটিং প্রতিভা নিয়ে সন্দেহ নেই কারও। সকলেই একবাক্যে স্বীকার করে নিয়েছেন যে তিনি ব্যাটিংয়ের জিনিয়াস। তামাম...

    প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সদ্য সমাপ্ত একদিনের সিরিজে যে যে রেকর্ড গড়লেন ভারত অধিনায়ক বিরাট

    তার শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের সকলেই। বিশ্বের সর্বকালের সেরা একদিনের ক্রিকেটার হিসেবে তাকে মেনেও নিয়েছেন সকলে।...