INDvsAUS: শেষ ম্যাচে হারের পর বিরাট কোহলি জানালেন টেস্ট সিরিজে তাদের রণনীতি কী হবে 1

ভারত আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে আজ সিডনিতে তৃতীয় আর শেষ ম্যাচ খেলা হয়েছে। যেখানে টসে জিতে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেন। তবে আজকের ম্যাচ ভারতীয় দল ১২ হারে হেরে যায়। এই ম্যাচে হার্দিক পাণ্ডিয়ার ব্যাট থেকে কিছু বড়ো শট অবশ্যই বেরিয়েছে কিন্তু তিনি ম্যাচ শেষ করার আগেই আউট হয়ে ফিরে যান।

১২ রানে হারল টিম ইন্ডিয়া

INDvsAUS: শেষ ম্যাচে হারের পর বিরাট কোহলি জানালেন টেস্ট সিরিজে তাদের রণনীতি কী হবে 2

অস্ট্রেলিয়ার দল প্রথমে ব্যাট করতে নেমে টিম ইন্ডিয়াকে ১৮৭ রানের লক্ষ্য দেয়। যা তাড়া করতে নেমে টিম ইন্ডিয়া শূন্য রানের নিজেদের প্রথম উইকেট কেএল রাহুলের রূপে হারায়। তে এরপর দ্বিতীয় নম্বরে ব্যাট করতে নেমে টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক বিরাট কোহলি একদিক সামলে রাখেন আর ৮৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন। কিন্তু শেষে তিনিও নিজের উইকেট দিয়ে বসেন আর এখানেই ভারতীয় দলের জন্য ম্যাচ আটকে যায়। শেষে ব্যাট করতে আসা ওয়াশিংটন সুন্দরও এক-দুটি লম্বা শট খেলেন, কিন্তু তিনিও ম্যাচ জেতাতে ব্যর্থ হন। এই অবস্থায় অস্ট্রেলিয়া এই ম্যাচ ১২ রানে জিতে নেয়।

হার্দিক পাণ্ডিয়াকে দিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ভয় পাওয়ানোর চেষ্টা

INDvsAUS: শেষ ম্যাচে হারের পর বিরাট কোহলি জানালেন টেস্ট সিরিজে তাদের রণনীতি কী হবে 3

তবে ম্যাচ শেষ হওয়ার পর ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি দলের খেলোয়াড়দের নিয়ে একটি বড়ো বয়ান দিয়েছেন। তিনি এই ম্যাচের ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে বলেন যে, “একটা সময় যখন হার্দিক দ্রুতগতিতে ব্যাটিং শুরু করেছিল, তো আমরা ভেবেছিলাম যে আমরা লক্ষ্য তাড়া করতে পারব। আমাদের ব্যাটিংয়ের সময় মাঝের সময়ে আমরা সুযোগ দিয়েছি। হার্দিকের তরফে ৩০ রানের পার্টনারশিপ এটাকে সরল করে দিয়েছিল। আমরা প্রত্যাবর্তন করার আর বিরোধী দলকে ভয় পাওয়ানোর উপায় খুঁজছি আর এই সিরিজ জয় আমাদের জন্য এই মরশুমকে উচ্চতায় শেষ করার জন্য অল্পই ছিল”।

কোহলি ভিড়কে বললেন প্রেরণার নতুন ডাইমেনশন

INDvsAUS: শেষ ম্যাচে হারের পর বিরাট কোহলি জানালেন টেস্ট সিরিজে তাদের রণনীতি কী হবে 4

আগে কথা বলতে গিয়ে বিরাট কোহলি এটাও বলেন যে, “আমার মনে হয় যে সমর্থকরা একটা বড়ো কারণ ছিলেন। এটা সবসময়ই আপনাকে প্রেরণার এক নতুন ডাইমেনশন দেয়। আমাদের ভিড় আমাদের কখনও কখনও অস্ট্রেলিয়ার মাধ্যমেও নিজেদের দিকে টানে। আর আমরা খেলোয়াড় হিসেবেও ভিড়ের উৎসাহকে আরও বাড়িয়ে দিই”।

এরপর টেস্টের ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে বিরাট কোহলি বলেন যে, “আমাদের টেস্টে সমান প্রতিযোগীতামূলক মেজাজ দেখানোর প্রয়োজন রয়েছে, আর এখানে কিছু সময় খেলার পর আমরা রানও করতে পারি। একবার যখন এই পুঁজি লাগানোর আর স্কোর করার সময় হয় তো আমাদের সেই সেশনে রান করার আবশ্যকতা রয়ছে। আমার বিশ্বাস যে বর্তমান দল গতবারের (টেস্ট ম্যাচে) তুলনায় বেশি শক্তিশালী আর আমরাও শক্ত মজবুত পরিস্থিতিতে রয়েছি”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *