NZ vs IND: ওয়েলিংটনে পাওয়া হারের জন্য বিরাট কোহলি একে করলেন দায়ী, বললেন… 1

নিউজিল্যান্ড আর ভারতের মধ্যে চলা দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ ওয়েলিংটনে খেলা হয়েছে, যেখানে ঘরের দল এই ম্যাচ সহজেই নিজেদের নামে জিতে নিয়েছে। প্রথম টেস্ট ম্যাচের চতুর্থদিন ভারতীয় দল নিউজিল্যান্ডের সামনে বেশিক্ষণ সংঘর্ষ করতে পারেননি আর ১০ উইকেটে লজ্জাজনক হারের মুখে পড়ে।

ভারতীয় দল ১০ উইকেটে হারল

NZ vs IND: ওয়েলিংটনে পাওয়া হারের জন্য বিরাট কোহলি একে করলেন দায়ী, বললেন… 2

ভারতীয় দল তৃতীয় দিনে নিজেদের স্কোর ৪ উইকেটে ১৪৪ রানের আগে খেলতে শুরু করে। ভারতের সামনে নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংসের আধারে ১৮৩ রানের লীড নিয়েছিল কিন্তু এখানে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা চতুর্থদিন সম্পূর্ণভাবে আত্মসমর্পণ করে। আর একের পর এক ব্যাটসম্যানরা প্যাভিলিয়নে ফেরত যেতে শুরু করেন। নিউজিল্যান্ডের বোলাররা দুর্দান্ত বোলিং করে ভারতকে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯১ রানে অলআউট করে দেয়। তবে তারা অবশ্যই ইনিংস হার বাঁচাতে সক্ষম হয় কিন্তু নিউজিল্যান্ড ৯ রানের লক্ষ্যকে সহজেই হাসিল করে ১০ উইকেটে ম্যাচ জেতে।

ম্যাচের পর অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেন নিউজিল্যান্ডকে ১০০ রানের কম লীডে আটকাতে হত

NZ vs IND: ওয়েলিংটনে পাওয়া হারের জন্য বিরাট কোহলি একে করলেন দায়ী, বললেন… 3

ম্যাচের পর ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেন যে,

“টস ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটি ব্যাটিং ইউনিট হিসেবে আমরা প্রতিদ্বন্ধী হওয়া নিয়ে গর্ব করি, কিন্তু এখানে আমরা সেটা করিনি। এমনকী ২২০-২৩০র স্কোরও ভালো হতো। ওই প্রথম ইনিংসটি আমাদের পেছনে ফেলে দিয়েছে আর তারপর লিড আমাদের আরো বেশি চাপে ফেলেছে। বোলাররা ভালো প্রদর্শন করেছে, একটা দল হিসেবে আমরা প্রতিদ্বন্ধী হওয়া নিয়ে গর্ব করেছি। নিউজিল্যান্ডের প্রথম ৭টি উইকেট নিয়ে ভালো জায়গায় ছিলাম, লীডকে ১০০ রানের নীচেই থামানো উচিত ছিল। কিন্তু ওদের ব্যাটসম্যানরা শেষের রানগুলিতে মুশকিল বাড়িয়ে দিয়েছে। কিন্তু বোলাররা আরো বেশি অনুশাসিত হতে পারত। ওরা বোলিং প্রদর্শনেও ততটা খুশি ছিল না”।

পৃথ্বী শয়ের উপর এখন থেকে দেওয়া যেতে পারে না চাপ

NZ vs IND: ওয়েলিংটনে পাওয়া হারের জন্য বিরাট কোহলি একে করলেন দায়ী, বললেন… 4

পৃথ্বী শয়ের ব্যাপারে প্রশ্ন করার বিরাট কোহলি বলেন যে, “আপনি পৃথ্বীর মতো মানুষদের উপর অনেক চাপ দিতে চাননা। ও স্রেফ ২টি টেস্ট বিদেশে খেলেছে। ও একটা রাস্তা খুঁজবে। ও রান করার একটা ধরণ খুঁজে নেবে। ময়ঙ্ক নিজেকে ভালোভাবে বজায় রেখেছে। আর ও রাহানের পর একমাত্র অন্য ব্যক্তি, যিনি আমাদের ব্যাট হাতে একটা গতি দিয়েছে। আমাদের শক্তি আমাদের বোলারদের জন্য বড়ো স্কোর করার ছিল কিন্তু ওরা ম্যাচে সম্পূর্ণভাবে গায়েব ছিল”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *