বার্থডে স্পেশাল: যদি এমন হত তো ভারত নয় বরং পাকিস্তানের হয়ে খেলতেন বিরাট কোহলি 1

আজকের দিনটি ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসের যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ কারণ আজকের দিনে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি আজ অর্থাৎ ৫ নভেম্বর নিজের ৩১তম জন্মদিন পালন করছেন। আজ বিরাট কোহলি ৩১ বছরের হয়ে গিয়েছেন এর সঙ্গেই সম্ভবতই আপনারা জানেন যে কোহলির সঙ্গে পাকিস্তানের ভীষণই পুরোনো সম্পর্ক রয়েছে।

এই রকমভাবে আছে বিরাট কোহলির পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক

বার্থডে স্পেশাল: যদি এমন হত তো ভারত নয় বরং পাকিস্তানের হয়ে খেলতেন বিরাট কোহলি 2

এ কথা জেনে আপনারা অবাক হবেন যে খেলার মাঠে ভারতের চিরপ্রতিদ্বন্ধী পাকিস্তান দলের একজন প্লেয়ারের নাম বিরাটও হতে পারত। ১৯৪৭ সাল যা কেউই ভুলতে পারবেন না তা সে ভারতীয়ই হোক বা পাকিস্তানী হোক, ১৫ আগস্ট ১৯৪৭ সালের পর একই দেশে থাকা বেশকিছু খেলোয়াড় একে অপরের বিরোধী হয়ে মাঠে নামতে শুরু করেছিলেন। এদের মধ্যে একটি নাম বিরাট কোহলিরও হতে পারত। ভারত আর পাকিস্তানে এখনো বহু মানুষ ১৯৪৭এ হওয়া দেশভাগের যন্ত্রণাকে ভুলতে পারেননি। কোহলির পরিবারও এই যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে গিয়েছে কিন্তু তারপর পাকিস্তান থেকে আসা বিরাট কোহলির বাবা ভারতে নিজের ব্যবসা শুরু করেন। যদি কোহলির বাবা পাকিস্তানেই থেকে যেতে তো আজ ভারত নয় বিরাট কোহলি পাকিস্তান দলের হয়ে খেলতেন।

পরিবার রাজনীতিতেও থেকেছে

বার্থডে স্পেশাল: যদি এমন হত তো ভারত নয় বরং পাকিস্তানের হয়ে খেলতেন বিরাট কোহলি 3

ক্রিকেটে নিজের ঝাণ্ডা ওড়ানোর পর থেকে কোহলি লাগাতার উচ্চতাকে ছুঁয়ে চলেছেন, বর্তমানে আজ তার পরিবার যথেষ্ট সমৃদ্ধ, তার স্ত্রী একজন বলিউড ডিভা এবং কোহলি নিজেও ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব করছেন। বিরাটের বাবা দিল্লিতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠিত করেছেন তো তার দাদা আর বৌদি কাটনিতে রাজনীতির মাঠে নিজেদের সাফল্য পেয়েছে। কাটনির বাসিন্দা বিরাটের কাকিমা আশা কোহলি সেই শহরের পৌরমাতা (মিউনিসিপ্যালিটির চেয়ারম্যান) নির্বাচিত হয়েছেন। কোহলির ট্যাটুর ভীষণই শখ রয়েছে আর তার শরীরের মোট ৯টি ট্যাটু রয়েছে, এর মধ্যে কিছু তার গুড লাকের চিহ্ন তো কোথাও কোথাও তিনি নিজের জোডিয়াক সাইন স্কর্পিয়োর ট্যাটু করিয়েছেন এর সঙ্গেই তিনি ভোলানাথের ট্যাটুও করিয়েছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *