Twitter Reactions : ২৯ বছরের শাপমোচন! ভারতকে হারিয়ে উল্লাস পাক নেটিজেনদের! হতবাক ভারতীয় ক্রিকেটাররা 1

১৯৯২ সাল থেকে পাকিস্তান এই মুহূর্তের আগমনের জন্য অপেক্ষা করছিল! অবশেষে, এটি তাদের সুপারস্টার খেলোয়াড় বাবর আজমের অধিনায়কত্বে এসেছিল। পাকিস্তান প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলায় (৫০ ওভার এবং ২০ ওভারের বিশ্বকাপ মিলিয়ে) ভারতকে হারাতে সক্ষম হয়েছে। দ্য মেন ইন গ্রীন তাদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে স্পট ছিল। এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে বাবর ছাড়াও মহম্মদ রিজওয়ান এবং শাহীন আফ্রিদি এই ঐতিহাসিক জয়ের অনুঘটক ছিলেন।

এর আগে, শাহীন আফ্রিদির জন্য শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছিল ভারত, যিনি তার উদ্বোধনী স্পেলে বল দিয়ে আগুন নিঃশ্বাস ফেলেছিলেন। ৬/২-এ, খেলার শুরুতেই ভারত চাপে ছিল এবং মাঝখানে সময় কাটাতে তাদের অধিনায়ক বিরাট কোহলির প্রয়োজন ছিল। বিরাট কোহলি অবশ্য আগের দিকে এগিয়ে গিয়েছিলেন এবং তার স্ট্রাইক রেট বাড়িয়েছিলেন যা ততক্ষণে ১০০ এর কাছাকাছি ছিল। তার হাফ সেঞ্চুরি করার পাশাপাশি কয়েকটি ক্র্যাকিং স্ট্রোকও উন্মোচিত হয়েছিল। কিন্তু শাহিন আফ্রিদি তার স্পেলের শেষ ওভারে ফিরে এসে ভারত অধিনায়ককে ৫৭ রানে আউট করেন।

ভারত কখনো প্রত্যাশিত ফিনিশিং কিক পায়নি কিন্তু শেষ পাঁচ ওভারে ৫১ রান যোগ করায় রান আসতে থাকে। মেন ইন ব্লু তাদের ২০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ১৫১ রান করে। যা বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান আক্ষরিক অর্থে তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের কোন সুযোগ দেননি। তারা ভারতের জন্য কোন প্রথম উইকেট না দেয় তা নিশ্চিত করে এই জুটি নিখুঁতভাবে তাড়া করেছিল।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *