ক্রিকেটের শীর্ষ পাঁচ স্বার্থপর ইনিংস, যার জন্য পুরো টিমকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে ! 1

একজন ক্রিকেটার দলের প্রয়োজনে সবকিছুই করতে পারে তা বটে কিন্তু মাঝেমাঝে দেখা যায় অনেক ক্রিকেটাররা শুধু নিজের প্রয়োজনেই খেলে থাকেন, তাদের এই ব্যক্তিগত স্বার্থের কারণে অনেক জয়ের ম্যাচ হারতে হয় দলকে।

আসুন দেখে নেই ক্রিকেটের শীর্ষ পাঁচ স্বার্থপর ইনিংস-

১) ডেভিড ওয়ার্নার, ১৪২ বলে ১০০ রান, প্রতিপক্ষ শ্রীলংকাঃ

ক্রিকেটের শীর্ষ পাঁচ স্বার্থপর ইনিংস, যার জন্য পুরো টিমকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে ! 2

সিরিজ নির্ধারণকারী ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে ১৪২ বল খেলে মাত্র ১০০ রান করেন ওয়ার্নার অথচ ওয়ার্নারকে সবাই মারকুটে ব্যাটসম্যান হিসেবে চিনে-জানে তার এই স্বার্থপর ইনিংসের জন্য সিবি সিরিজ হারতে হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার। তার এই স্লো গতির সেঞ্চুরি ও অধিনায়ক ক্লার্কের ৯১ বলে ১১৭ রানের ইনিংসে ভর করে অস্ট্রেলিয়া ২৭২ রানের টার্গেট দেয় শ্রীলংকাকে জবাবে তিলকারত্নে দিলশানে সেঞ্চুরি ও সাঙ্গাকারা-মাহেলার হাফ-সেঞ্চুরিতে ম্যাচটি সহজেই জিতে ভারত।

এই ম্যাচের আগের ম্যাচে ওয়ার্নার করেছিলেন ১৬৩ রান কিন্তু ফাইনাল ম্যাচে তার এই স্বার্থপর ইনিংসের কাছে সিরিজ পরাজয়ের স্বাদ গ্রহণ করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

২) মিচেল ভ্যানডোর্ট, ১১৭ বলে ৪৮ রান, প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়াঃ

ক্রিকেটের শীর্ষ পাঁচ স্বার্থপর ইনিংস, যার জন্য পুরো টিমকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে ! 3

২০০৬ সালে শ্রীলংকার মাঠে, প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৫০ ওভারে ৩১৮ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। যার ফল প্রতি ওভারে ৬ রান বা তার থেকে সামান্য একটু বেশি করে দরকার ছিল শ্রীলংকার। কিন্তু এই ম্যাচটি একাই ধসিয়ে দেন এই সিরিজে অভিষেক ভ্যানডোর্ট। ৩১৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে খুব দৃঢ় গতিতে ব্যাট করতে থাকেন ভ্যানডোর্ট, তার এই স্বার্থপর ইনিংসের কারণে এই ম্যাচে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগেই পায়নি শ্রীলংকা। ১১৭ বল খেলে মাত্র ৪৮ রান করেন যা টেস্ট ইনিংসের সমতুল্য। তার এই ইনিংসে ভর করেই সহজ জয় পেয়ে সিরিজে ফাইনালে পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া।

৩) জ্যাক ক্যালিস ৬৩ বলে ৪৮ রান, প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়াঃ

ক্রিকেটের শীর্ষ পাঁচ স্বার্থপর ইনিংস, যার জন্য পুরো টিমকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে ! 4

২০০৭ সালে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের মত আসরেও জ্যাক ক্যালিসের মত অভিজ্ঞ ক্রিকেটারও এই স্বার্থপর ইনিংস খেলার তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন। যে মুহূর্তে দক্ষিণ আফ্রিকা চমক দেখানোর জন্য তৈরি ঠিক এই মুহূর্তেই ক্যালিস তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে ইনিংসটি খেলে বসেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ম্যাথু হেডেনের সেঞ্চুরিতে ভর করে ৩৭৭ রান করে। জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকা ৩৭৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে গ্রায়েম স্মিথ ও এবিডি ভিলিয়ার্সের দায়িত্ববান ইনিংসে প্রায় জয়ের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা কিন্তু একদম শেষ পর্যায়ে এসে অলরাউন্ডার ক্যালিস যেন ম্যাচটিকে ইচ্ছা করেই হাত ছাড়া করে দেন, দলের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ৬৩ বল খেলে মাত্র ৪৮ রান করেন তিনি। যার ফলে অস্ট্রেলিয়া ম্যাচটি ৮৪ রানে জিতে যায় এবং দক্ষিণ আফ্রিকা টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যায়।

৪) শচীন তেন্ডুলকর, ১৪৭ বলে ১১৪ রান, প্রতিপক্ষ বাংলাদেশঃ

ক্রিকেটের শীর্ষ পাঁচ স্বার্থপর ইনিংস, যার জন্য পুরো টিমকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে ! 5

২০১২ সালে এশিয়া কাপ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে শচীন তেন্ডুলকর শততম সেঞ্চুরির দেখা পান তবে তার এই রেকর্ড গড়া ম্যাচের ইনিংসটিও স্বার্থপর ইনিংসের তালিকায় জায়গা পেয়েছে। ১১৪ রান করতে বল খেলেছেন ১৪৭ টি যার ফলে দলীয় রান খুব বেশি করতে পারেনি ভারত। ২৮৯ রানেই ভারতের ইনিংস থেমে যায় জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা খুব সহজেই জয় তুলে নেয় অন্যদিকে নিজের শততম সেঞ্চুরি করা ম্যাচটিও হেরে অনেক আফসোসে পুড়তে হয়েছে শচীন কে।

৫) সুনীল গাভাষ্কার, ১৭৪ বলে ৩৬ রান, প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ডঃ

ক্রিকেটের শীর্ষ পাঁচ স্বার্থপর ইনিংস, যার জন্য পুরো টিমকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে ! 6

১৯৭৫ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে অবিশ্বাস করার মত এইরকম একটি ইনিংস খেলেনে সুনীল। ৬০ ওভারের ম্যাচে ৪ উইকেটে ৩৩৪ রান করে ইংল্যান্ড জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৩২ রানেই গুটিয়ে যায় ভারত। বিশ্বকাপের আসরে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সুনীল গাভাষ্কার ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা স্বার্থপর ইনিংসটি খেলেন ১৭৪ বলে খেলে করেন মাত্র ৩৬ রান যা সাধারণত টেস্ট ম্যাচেও এইরকম ইনিংস কেউ খেলে না। তার এই স্বার্থপর ইনিংসের জন্যই ভারত ২০২ রানে হেরে যায় ইংল্যান্ডের কাছে।

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published.