আগামী মরশুমে বদল হতে চলেছে আইপিএলের এই গুরুত্বপূর্ণ নিয়মের পরিবর্তন, ফ্র্যাঞ্চাইজিদের দাবি মেনে এমন ভাবনা 1

কয়েক দিন আগেই শেষ হল এই বছরের আইপিএল। একাধিক দুর্দান্ত মুহুর্ত ও দারুণ ক্রিকেটের স্বাক্ষী থেকেছে ক্রিকেট বিশ্ব। কিন্তু এবারের মত টুর্নামেন্ট শেষ হলেও আর কয়েক মাস বাদেই আবারও শুরু হবে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী নিশ্চিত করে দিয়েছেন, আগামী এপ্রিল মাস নাগাদ ভারতের মাটিতে হবে আইপিএল। আর এর জন্য প্রস্তুতি ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট মহলে।

How cricket became the most lucrative game in India - The Daily Guardian

ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে, আগামী বছর আইপিএল এর পরিধি বাড়াতে আরও নতুন দুই ফ্র্যাঞ্চাইজিকে আনা হবে। সেই মত টেন্ডার ডাকতে পারে বিসিসিআই। আর এই নিয়ে খুশি নয় বাকি আট ফ্র্যাঞ্চাইজি। তাদের দাবি, এর ফলে টুর্নামেন্ট থেকে যে লাভের অঙ্ক আসে তা আরও কমে আসবে। এর পাশাপাশি নতুন দল আসলে মেগা নিলামের আয়োজন করতে হবে, যার জেরে অসুবিধায় পড়ে যাবে একাধিক সেট টিম, কারণ গোটা টিমকেই ভেঙে নতুন করে তৈরি করতে হবে। এছাড়া টিম বেশি হলে আরও বেশি ভারতীয় ক্রিকেটারকে নিতে হবে, যার জেরে ভালো ক্রিকেটার পাওয়া মুশকিল হয়ে যাবে।

Full List of Players Retained and Released by IPL Franchise before Auction  2017 | The SportsRush

এই নিয়ে জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকরা বলেছেন, “কোয়ালিটি বজায় রাখতে ইতিমধ্যেই দলগুলির পক্ষে কঠিন হয়ে পড়ছে। বেশিরভাগ আইপিএল দলের স্কোয়াডের দিকে তাকালে দেখা যাবে, দলের মূল শক্তি হিসেবে থাকে সাত থেকে আটটি খেলোয়াড় এবং দুই থেকে তিনটি খেলোয়াড় সঠিক ভারসাম্যের জন্য অন্য দলে যায়। এবার, যদি এই আটটি টিমের সংখ্যা বেড়ে ১০ এ গিয়ে দাঁড়ায়, তখন কোয়ালিটি আরও পড়ে যাবে। আমাদের একটি নির্দিষ্ট স্যালারি পার্স দেওয়া হয় যার মাধ্যমে কোনও ফ্র্যাঞ্চাইজির যতই খরচ করার ক্ষমতা থাকুক না কেন, তারা একটি সমান জায়গায় থেকে খেলোয়াড় নির্বাচন করতে পারবে, এটাই আইপিএল এর শক্তি। কিন্তু এবার আরও দুটি দল এসে এই নিলামে অংশ নেয় এবং সেই একই খেলোয়াড়দের উপর তারা টার্গেট করে, তাহলে কি কোয়ালিটি নিশ্চিত থাকবে?”

IPL's Top 5 Most Valuable Franchise | Franchise business in India

যদিও এই নিয়ে সমস্যা রয়েইছে, কিন্তু তার সমাধান হিসেবে একটি বড়সড় বিষয় তুলে ধরেছেন বিসিসিআই এর এক কর্মকর্তা। উচ্চপদস্থ এই বিসিসিআই আধিকারিক সুপারিশ দিয়েছেন যাতে বিদেশীদের সংখ্যা চার থেকে বাড়িয়ে পাঁচ করে দিতে। বর্তমানে প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি নিজেদের দলে আটটি বিদেশীকে রাখতে পারবে এবং তার মধ্যে প্রথম একাদশে চারজন বিদেশীকে খেলাতে পারবে। কিন্তু এবার সেই নিয়ম বদলের সুপারিশ দিলেন খোদ বিসিসিআই এর এই উচ্চপদস্থ কর্তা। এই বিষয়ে টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ঐ কর্মকর্তা বলেছেন, “এই নিয়মের জন্য বেশ কিছু ভালো মানের বিদেশীরা মাঠের বাইরে রয়ে থাকে। একটি অতিরিক্ত বিদেশী খেলাতে পারলে ভারসাম্য অনেকটাই ভালো হবে।”

Leave a comment

Your email address will not be published.