প্রেম, ভালবাসা যখন তীব্র হয়ে ওঠে তখন কারো না তো বয়েসের সীমা মনে থাকে না জন্মের বাঁধন। আপনাদের মধ্যে হয়ত কেউই এই বিষয়টাকে বুঝতে পারবেন না। সম্পর্ক মন থেকে হয় আর তাতে ভালবাসা থাকা ভীষণই জরুরী হয়। কিন্তু আপনারা কি এটা ভাবতে পারেন যে কেউ ভালবাসায় জন্ম, বয়েসই শুধু নয় বরং আত্মীয়তাকেও দূরে সরিয়ে দিতে পারেন? আমরা জানি যে এটা শুনে আপনারা হয়ত ভাবছেন যে কেউ নিজের আত্মীয়তাকে কিভাবে দূরে সরাতে পারে বা কার কার মনে এটাও ভাবনা আসছে যে সম্ভবত এখানে ফ্যামিলি মেম্বার্সদের কথা বলা হচ্ছে যারা তাদের প্রেম সম্পর্কে বাঁধা দিচ্ছেন। কিন্তু তা নয়, আমরা ২ জন লাভার্সের কথা বলছি। হ্যাঁ, এমন বহু মানুষ আছেন যারা নিজেরই বোন বা এমন কোনো বিশেষ আত্মীয়কেই ভালবেসে ফেলেন আর তাদের সঙ্গে আজীবন কাটানোর শপথ নেন। এই প্রতিবেদনে আমরা এমন পাঁচ খেলোয়াড়ের ব্যাপারে জানাব যারা নিজেরই বা বা কোনো আত্মীয়্র সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন।

১— বীরেন্দ্র সেহবাগ

ভারতীয় ক্রিকেট দলের ওপেনার বীরেন্দ্র সেহবাগ শ্রেষ্ঠ ব্যাটসম্যানদের তালিকায় শামিল রয়েছেন। সেহবাগ নিজের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের সৌজন্যে বেশ কিছু রেকর্ড স্থাপন করেছেন আর ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে নিজের নাম নথিভুক্ত করে ফেলেছেন।

বীরেন্দ্র সেহবাগের পার্সোনাল লাইফও যথেষ্ট ইন্টারেস্টিং। তিনি নিজের ছেলেবেলার বান্ধবী আরতি আহলাবতকে বিয়ে করেন। বীরেন্দ্র সেহবাগ আর আরতির লাভস্টোরি তখনই শুরু হয়ে গিয়েছিল যখন তাদের বয়েস ৭ বছর ছিল। কিন্তু তার তাদের সম্পর্কে তখন টুইস্ট আসে যখন সেহবাগের কাজিনের বিয়ে আরতির পিসির সঙ্গে হয়।

এরপর এই দুজনে নিজেদের পরিবারকে বিয়ের জন্য মানানোর যথা সম্ভব প্রচেষ্টা করেন। শেষমেশ গিয়ে মাত্র তিন বছর পর্যন্ত একে অপরকে ডেট করার পর ২২ এপ্রিল ২০০৪ এ বীরেন্দ্র সেহবাগ আরতি আহলাবতের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। আত্মীয়কে বিয়ে করা নিয়ে পুরো পরিবার তাদের বিরোধ করেন, কিন্তু এটাই ভালবাসার এমন তীব্রতা যে তা থামার নামই নেয় না।

২— মুস্তাফিজুর রহমান

মুস্তাফিজুর রহমান বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সবচেয়ে দুর্দান্ত জোরে বোলারদের তালিকায় শামিল রয়েছেন। তার সামনে বড়ো বড়ো ব্যাটসম্যানরাও ব্যাট চালানোর আগে ভাবনা চিন্তা করেন।

যদিও কারো ব্যক্তিগত জীবনে ইন্টারফেয়ার করার কারো অধিকার নেই। কিন্তু আজ যেহেতু আমরা এই বিশেষ প্রতিবেদনে আপনাদের সেই খেলোয়াড়দের তালিকার ব্যাপারে জানাচ্ছি যারা নিজের আত্মীয়দের সঙ্গেই বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিতে হওয়া জঙ্গী হামলায় মুস্তাফিজুর রহমানসহ বেশ কিছু বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের জীবন অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছিল।

এই ঘটনার দ্রুত পরেই মুস্তাফিজুর রহমান বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন। মুস্তাফিজুর নিজের খুড়তুতো বোন সামিয়া পরভীনের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। শামিয়া পরভিন ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে সাইকোলজির ছাত্রী ছিলেন। মুস্তাফিজুর রহমান ২০১৯ বিশ্বকাপের পর বিয়ের রিসেপশন বড়ো ধুমাধাম সহকারে করেছিলেন।

৩– মোসাদ্দেক হুসেন

প্রতিভাবান তরুণ ক্রিকেটার মোসাদ্দেক হুসেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের উদীয়মান তারকা। তিনি নিজের দুর্দান্ত পারফর্মেন্সে সকলেরই মন জয় করে নিয়েছেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে রার রেকর্ড সত্যিই প্রশংসার যোগ্য।

ইংল্যান্ড অ্যাণ্ড ওয়েলসে খেলা হওয়া আইসিসি বিশ্বকাপে তিনি দুর্দান্ত প্রদর্শন করেছিলেন। যদিও তার দলের সফর সেমিফাইনালের আগেই শেষ হয়ে গিয়েছিল কিন্তু এই খেলোয়াড় নিজের প্রভাব ফেলেছিলেন। তিনি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ডবল সেঞ্চুরি করা বাংলাদেশের একমাত্র ব্যাটসম্যান। মোসাদ্দেক হুসেন নিজের পার্সোনাল লাইন নিয়েও শিরোনামে থেকেছেন। ২০১২ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়েস মোসাদ্দেক নিজের খুড়তুতো বোন শরমীন সমীরা ঊষার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

যদিও বিয়ের পরে তিনি বিতর্কেও থেকেছেন। আপনাদের জানিয়ে দিই যে বিয়ের পর এই তারকা খেলোয়াড়ের উপর নিজের স্ত্রীর উপর পণের জন্য অত্যাচার করার অভিযোগও উঠেছিল। এই ঘটনার পর মোসদ্দেক হুসেন দলে নিজের জায়গাও হারিয়ে ফেলেছিলেন।

৪—শাহিদ আফ্রিদি

পাকিস্তানের প্রাক্তন বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান যাকে বুমবুম আফ্রিদি নামেও ডাকা হয়ে থাকে তিনিও সেই খেলোয়াড়দের তালিকায় শামিল রয়েছেন যারা নিজের পরিবারের মেয়েকেই বিয়ে করেছেন।

আফ্রিদির খেলা তো আপনারা সকলেই জানেন যে এখন এই ব্যাটসম্যান মাঠে নামে তো বড় বড় বোলাররাও তাকে বল করার আগে দুবার ভাবেন। এই খেলোয়াড়ের সঙ্গে বেশ কিছু ভারতীয় খেলোয়াড়ের মাঠে লড়াইও হয়েছিল। কিন্তু আজ আমরা আপনাদের আফ্রিদির পার্সোনাল লাইফের ব্যাপারে জানাব। আফ্রিদি মাত্র ২০ বছর বয়েসে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন। আফ্রিদি নিজের বিয়ে নিয়েও বেশ শিরোনামে এসেছিলেন।

আসলে শাহিদ আফ্রিদি নিজের মামাত বোন নাদিয়াকে বিয়ে করেন, যিনি পেশায় একজন ডাক্তারও। আফ্রিদি আর তার মামাত বোন নাদিয়ার বিয়ে ২২ অক্টোবর ২০০০ সালে হয়েছিল। এই সময় আফ্রিদি আর নাদিয়ার চারটি মেয়ে।

৫– সঈদ আনোয়ার

ইসলাম ধর্মে নিজের কোনো আত্মীয়র সঙ্গে বিয়ে করা নিয়ে কোনো বিধি নিষেধ নেই। এই কারণে এই তালিকায় আপনারা বেশিরভাগ মুসলমান খেলোয়াড়ই পেয়েছেন। পাকিস্তানের আরো একজন খেলোয়াড় রয়েছেন যিনি নিজের আত্মীয়কে বিয়ে করেছিলেন।

পাকিস্তানের ওপেনার সঈদ আনোয়ারের গুনতি পাকিস্তানের বড় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে হয়। বিশেষকরে সঈদ আনোয়ারের নিজের চিরপ্রতিদ্বন্ধী ভারতের বিরুদ্ধে রান করার রেকর্ড রয়েছে। ভারতের বিরুদ্ধে চেন্নাইতে সঈদ আনোয়ার ওয়ানডেতে ১৯৪ রানের স্মরণীয় ইনিংস খেলেছিলেন। সঈদ আনোয়ার নিজের পার্সোনাল লাইফ নিয়েও যথেষ্ট শিরোনামে ছিলেন। পাকিস্তানের ওপেনার সঈদ আনোয়ার ১৯৯৬ সালে নিজের খুড়তুতো বোন লুবনার সঙ্গে নিকাহ করে একসঙ্গে জীবন কাটানোর শপথ নেন। লুবনা পেশায় একজন ডাক্তার।

আনোয়ারের ব্যক্তিগত জীবন যথেষ্ট চড়াইউৎরাই ভরা থেকেছে। ২০০১ এ তার জীবনে একটি বড় ঘটনা ঘটে যখন তার মেয়ে অসুস্থ হয় এবং মারা যায়। জানিয়ে দিই যে সঈদ আনোয়ার ২০০৪ বিশ্বকাপের পর ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন

যুবরাজ সিংয়ের অবদানের কথা মাথায় ১২ নম্বর জার্সি কে ” অবসর ” দেওয়া হোক, বিসিসিআই কে এমন পরামর্শ দিলেন গৌতম গম্ভীর

সম্প্রতি একটি প্রতিবেদনে বিসিসিআই কে " ১২ " নম্বর জার্সিকে অবসরে পাঠানোর আবেদন করলেন প্রাক্তন ভারত ক্রিকেটার...

দীপাবলির আগে ভারতীয় খেলোয়াড়দের বিসিসিআই দিল বাম্পার গিফট, এখন হবে টাকার বৃষ্টি

বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে ধোনি ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই সবসময়ই তাদের ব্যানারের তলায় অর্থাৎ ভারতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলা...

হার্দিক পাণ্ডিয়া আর উর্বশী রাউতেলার মধ্যে এখনো চলছে কিছু? ছবির কমেন্ট বলছে এই কথা

হার্দিক পাণ্ডিয়া আর উর্বশী রাউতেলার মধ্যে এখনো চলছে কিছু? ছবির কমেন্ট বলছে এই কথা
ভারতীয় ক্রিকেট দলের তারকা অলরাউন্ডার হার্দিক পাণ্ডিয়া আজ দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হিসেবে নিজের পরিচিতি তৈরি করে...

বিশ্বকাপ ২০১৯ সেমিফাইনালে ভারতের হারের দায় একে মানেন COA প্রধান বিনোদ রায়

বিশ্বকাপ ২০১৯ সেমিফাইনালে ভারতের হারের দায় একে মানেন COA প্রধান বিনোদ রায়
ইংল্যান্ড আর ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের আতিথেয়তায় সম্প্রতিই শেষ হওয়া আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯এ বিরাট কোহলির অধিনায়কত্বে ভারতীয়...

ভারতকে ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ী করা গৌতম গম্ভীর করলেন শচীন আর যুবরাজকে চ্যালেঞ্জ

ভারতকে ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ী করা গৌতম গম্ভীর করলেন শচীন আর যুবরাজকে চ্যালেঞ্জ
যে কোনো খেলায় খেলোয়াড়দের জন্য সফলতার সবচেয়ে বড়ো রহস্য তাদের ফিটনেস হয়। ফিটনেস খেলার এমন একটা ভাগ...