জাতীয় দলে ফেরার ব্যাপারে আশাবাদী এই ৩৩ বছর বয়সী ভারতীয় ক্রিকেটার 1

সবে মাত্র ৩৩ বছর বয়সে পৌঁছেছেন, যে কেউই বলবে যে ইরফান পাঠানের মধ্যে এখনো অনেক ক্রিকেট বাকি রয়ে গিয়েছে। দল থেকে বাদ পড়ার পর ৩৬ কিংবা ৩৭ বছর বয়সে আশিস নেহরা এবং অন্য ক্রিকেটাররা ভারতীয় জাতীয় দলে আবার ফিরে এসেছিলেন। তাই ইরফান পাঠানও এখনো স্বপ্ন দেখছেন আবার জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়ানোর।

জাতীয় দলে ফেরার ব্যাপারে আশাবাদী এই ৩৩ বছর বয়সী ভারতীয় ক্রিকেটার 2

এপ্রসঙ্গে পাঞ্জাবে একটি অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “আমি আমার সেরাটা দিয়ে চেষ্টা করছি আবার ভারতীয় দলে ফেরার জন্য।” 

মাত্র ১৯ বছর বয়সে অভিষেক হওয়ার পাঠান, ভারতীয় দলের বাইরে ছিটকে যান ভয়ংকর বাজে ফর্মের কারনে। এই অলরাউন্ডারের বাজে ফর্ম ধারাবাহিক ভাবেই চলতে থাকে যার ফলে একটা পর্যায় এমনকি ভারতের ঘরোয়া টি-২০ টুর্নামেন্ট আইপিএলেও দল পাওয়া সম্ভব হয় নি তাঁর পক্ষে। এমনকি এটি তাকে কোচিং ক্যারিয়ারের সূচনা দেখায়। জম্মু ও কাশ্মীরে ক্রিকেটে কোচ হিসেবে তিনি দায়িত্ব নেন তিনি।

জাতীয় দলে ফেরার ব্যাপারে আশাবাদী এই ৩৩ বছর বয়সী ভারতীয় ক্রিকেটার 3

সম্প্রতি, পাঞ্জাব রাজ্যে ক্রিকেট খেলার প্রচারণার জন্য পাঞ্জাব ক্রিকেট একাডেমীতে একটি প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। আর সেখানে উপস্থিত হন ভারতের এই তারকা ক্রিকেটার। অনুষ্ঠানে কথা বলার সময় ইরফান বলেন, “পাঞ্জাব অনেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা তৈরি করেছে যারা বিদেশী মাটিতে দেশকে গর্বিত করেছে। কিন্তু পাঞ্জাবের সবচেয়ে বড় শহরগুলোর মধ্যে একটিতে এই একাডেমীটি খোলার প্রধান উদ্দেশ্য হল এর মাধ্যমে প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের তুলে আনা, যারা ভারতীয় ক্রিকেট দলের জন্য ভবিষ্যতে অবদান রাখতে পারেন সাবেক খেলোয়াড়দের মত। উন্নত কোচিং দক্ষতার সঙ্গে, কোচ রাজ্য জুড়ে তরুণ প্রতিভাবানদেরকে আরো ভালো ভাবে তৈরি হতে সাহায্য করবে এবং সাবধানে তাদের কর্মক্ষমতা যাচাই করবে।”

তিনি যোগ করেন, “শহরের তরুণদের জন্য আমার বার্তা হল যে, তারা অন্যান্য কর্মকান্ডে যেমন গুরুত্ব প্রদান করছে তেমনি তরুণদের খেলাধুলার ক্ষেত্রেও তাদের একই গুরুত্ব দেওয়া উচিত কারণ তরুণদের সার্বিক উন্নয়নের জন্য খেলাধুলা প্রয়োজন।”

 

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *