অস্ট্রেলিয়া সফরে টিম ইন্ডিয়া হারলে রবি শাস্ত্রী নয় বরং এই কোচের যেতে পারে চাকরি

অস্ট্রেলিয়া সফরে যাওয়া টিম ইন্ডিয়া ক্যাঙ্গারুদের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট ম্যাচ দারুণভাবে হেরে গিয়েছে। যে কারণে ভারতীয় দলকে অনেক বেশি সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে। এর পেছনে একটা বড়ো কারণ দলের খারাপ ফিল্ডিংও ছিল। যে কারণে ওয়ানডে সিরিজও হারতে হয়েছে ভারতীয় দলকে।

৪-০ ফলাফলে টিম ইন্ডিয়া হারলে হতে পারে বড়ো ধামাকা

অস্ট্রেলিয়া সফরে টিম ইন্ডিয়া হারলে রবি শাস্ত্রী নয় বরং এই কোচের যেতে পারে চাকরি 1

দুই দলের মধ্যে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ মেলবোর্নের মাঠে খেলা হবে যার মাধ্যমে টিম ইন্ডিয়া এই সিরিজে দারুণভাবে প্রত্যাবর্তন করার সম্পূর্ণ চেষ্টা করবে। কিন্তু যদি দ্বিতীয় ইন্ডিয়া দ্বিতীয় টেস্টেও কামব্যাক করতে না পারে আর ভারতীয় দল ৪-০ ফলাফলে এই সিরিজে হেরে যায়, তো এই অবস্থায় টিম ম্যানেজমেন্টের জন্য বড়ো সমস্যা তৈরি হয়ে যেতে পারে। অর্থাৎ একজন সদস্যকে নিজের চাকরি হারাতে হতে পারে। অস্ট্রেলিয়া সফরে যাওয়া ভারতীয় দলের ভুলগুলির কথা বলা হলে, এর মধ্যে সবচেয়ে বড়ো ভুল টিম ইন্ডিয়ার খেলোয়াড়দের মাঠে খারাপ ফিল্ডিং থেকেছে। যে কারণে ভারতীয় দলকে বির্তকের মুখেও পড়তে হয়েছে।

ফিল্ডিং কোচের উপর নামতে পারে খাঁড়া

অস্ট্রেলিয়া সফরে টিম ইন্ডিয়া হারলে রবি শাস্ত্রী নয় বরং এই কোচের যেতে পারে চাকরি 2

এক সময়ে নিজেদের দারুণ ফিডিংয়ের জন্য জনপ্রিয় ভারতীয় দল এখন ফিল্ডিংয়ের কারণেই সমালোচনার মুখে পড়ছে। ভারতীয় দলের ফিল্ডিং কোচ হিসেবে বর্তমানে আর শ্রীধর কাজ করছেন। যদি এইভাবে খারাপ ফিল্ডিংয়ের কারণে টেস্ট সিরিজের ফল খারাপ হয়, তা মাথায় রেখে যদি বিসিসিআই কোন সিদ্ধান্ত নেয় তো সবার আগে ম্যানেজমেন্ট থেকে যাকে নিজের চাকরি খোয়াতে হতে পারে, তিনি রবি শাস্ত্রী নন বরং তিনি হলেন আর শ্রীধর। এর পেছনে কারণ এটাই যে তিনি টিম ইন্ডিয়ার ফিল্ডিং কোচ। অন্যদিকে রবি শাস্ত্রী অধিনায়ক বিরাট কোহলির পছন্দের কোচ। এই কারণে বিসিসিআইয়ের কোচ রবি শাস্ত্রীর উপর কোনো অ্যাকশন নেওয়া অসম্ভব মনে হচ্ছে।

আগেও এভাবেই নেওয়া হয়েছে সিদ্ধান্ত

অস্ট্রেলিয়া সফরে টিম ইন্ডিয়া হারলে রবি শাস্ত্রী নয় বরং এই কোচের যেতে পারে চাকরি 3

আপনাদের ২০১৯ এর বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের কথ মনে করিয়ে দেওয়া যাক। যখন ভারতীয় দলকে লজ্জাজনকভাবে হারতে হয়েছিল। এরপর এই খবর শিরোনামে উঠে এসেছিল যে টিম ইন্ডিয়ার কোচ বদলানো হতে পারে। কিন্তু সমস্ত সম্ভাবনাকে দূর করে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল তা সকলকেই অবাক করে দিয়েছিল। কারণ সেই সময় কোচ হিসবে রবি শাস্ত্রীকে নয় বরং ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গারকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। যদিও দলের হারার পর মানুষ আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন যে, রবি শাস্ত্রীকে কোচের পদ থেকে সরানো হতে পারে। কিন্তু বিসিসিআই আরও একবার তাকেই ভারতীয় দলের প্রধান কোচ বহাল করেছিল। সবচেয়ে অবাক করার ব্যাপার ছিল যে ব্যাটিং কোচ ছাড়া দলের সমস্ত স্টাফদেরই আবারও ম্যানেজমেন্টে শামিল করা হয়েছিল। কিন্তু মহেন্দ্র সিং ধোনিকে ৭ নম্বরে ব্যাট করতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত সঞ্জয় বাঙ্গারের জানিয়ে তাকে টিম ইন্ডিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এই অবস্থায় এবারও এই ধরণের অনুমান করা হচ্ছে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *