ভারতীয় দলের ভালো উইকেটকিপারের প্রয়োজন, এই দুই তরুণ খেলোয়াড় হতে পারে বড়ো বিকল্প 1

অস্ট্রেলিয়া সফরে থাকা টিম ইন্ডিয়ার শুরুটা যতই ভালো না হোক, কিন্তু তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচ থেকে বিরাট কোহলির দল দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন করেছে। এরপর ভারতীয় দল টি-২০ সিরিজে দুর্দান্ত জয় হাসিল করেছে। কিন্তু দলে উইকেটকিপারের অভাব অবশ্যই অনুভূত হচ্ছে। এই সময় উইকেটকিপিংয়ের দায়িত্ব কেএল রাহুলের কাঁধে রয়েছে। কিন্তু তাকে খুব একটা ভালো ছন্দে দেখা যাচ্ছে না।

টিম ইন্ডিয়ার দ্রুত উইকেটকিপারের প্রয়োজন

ভারতীয় দলের ভালো উইকেটকিপারের প্রয়োজন, এই দুই তরুণ খেলোয়াড় হতে পারে বড়ো বিকল্প 2

টিম ইন্ডিয়া যেভাবে অস্ট্রেলিয়ায় প্রত্যাবর্তন করেছে, সেই পরিস্থিতিতে দলে একজন ভালো উইকেটকিপারের দ্রুত প্রয়োজন। তবে কেএল রাহুলের ব্যাটিং লাইনআপে কোনো সমস্যা নেই আর তিনি দুর্দান্তভাবে ব্যাটিংও করছেন। কিন্তু যদি উইকেটকিপিংয়ের কথা বলা হয় তো এই ব্যাপারে দলকে অন্য বিকল্পের দিকে মনোযোগ দিতে হবে। এর দায়িত্ব সেই খেলোয়াড়কে দেওয়া উচিত যে এটাকে সঠিকভাবে পালন করতে পারবে।

উইকেটকিপারের জন্য সঞ্জু স্যামসন আর ঋষভ পন্থ হতে পারেন বিকল্প

ভারতীয় দলের ভালো উইকেটকিপারের প্রয়োজন, এই দুই তরুণ খেলোয়াড় হতে পারে বড়ো বিকল্প 3

উইকেটকিপিংয়ের জন্য বিকল্প হিসেবে টিম ইন্ডিয়া সঞ্জু স্যামসন আর ঋষভ পন্থের দিকে তাকাতে পারে। এই দুই বিকল্প নিয়ে বেশকিছু তারাক নিজেদের রায় দিয়েছেন। যদিও ঋষভ পন্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে যতই ফ্লপ হয়ে থাকুন না কেনো কিন্তু উইকেটকিপার হিসেবে তিনি সফল হয়েছে। ওয়েস্টইন্ডিজের কিংবদন্তী ব্রায়ান লারাও টিম ইন্ডিয়ার জন্য ঋষভকে ভবিষ্যতের অধিনায়ক বলে উল্লেখ করেছেন। অন্যদিকে কেভিন পিটারসনের মতো তারাকারা সঞ্জু স্যামসনকে উইকেটকিপার হিসেবে সমর্থন করেন।
ধোনির অবসর নেওয়ার পর এই দুজন এমন খেলোয়াড় যাদের আগামী ভবিষ্যতে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে। আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে ডানহাতি ব্যাটসম্যান সঞ্জু স্যামসন ভালো ফিল্ডিংয়ের পাশাপাশি ভালো ব্যাটিংও করেছিলেন। তবে অস্ট্রেলিয়া সফরে তিনি ফিল্ডিংয়ে বিশেষ কিছুই করতে পারেননি, কিন্তু উইকেটকিপার হিসেবে তিনি ভারতের কাছে একজন বড়ো বিকল্প হতে পারেন।

ফিল্ডিংয়ে প্রত্যেক খেলোয়াড় প্রমাণিত হচ্ছেন ফ্লপ

ভারতীয় দলের ভালো উইকেটকিপারের প্রয়োজন, এই দুই তরুণ খেলোয়াড় হতে পারে বড়ো বিকল্প 4

ভারতীয় দলকে স্রেফ উইকেটকিপিংয়েই নয় বরং ফিল্ডিং্যেও উন্নতি করতে হবে। যে পরামর্শ ওয়ানডে সিরিজের শুরু হওয়ার পর থেকেই তারকারা আর বিশেষজ্ঞ্রা দিয়ে চলেছেন। ২০২ এ বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে, আর টিম ইন্ডিয়ার ফিল্ডিং প্রদর্শন বাস্তবেই নিরাশাজনক থেকেছে। এএল রাহুলই একা শুধু নয় বরং তৃতীয় টি-২০ ম্যাচে ভারতীয় ফিল্ডারদের সকলেরই ফিল্ডিং যথেষ্ট খারাপ হয়েছে।
এই ম্যাচে বেশকিছু এমন গুরুত্বপূর্ণ ক্যাচ হাতছাড়া হয়েছে যা তালুবন্দী করতে পারলে ফায়দা হতে পারত। তা সে ম্যাথু ওয়েডের ক্যাচ হোক, যা দীপক চাহারের বলে ওয়াশিংটন সুন্দর হাতছাড়া করেছিলেন, কিংবা যজুবেন্দ্র চহেলের হাত থেকে পড়া ম্যাক্সওয়েলের ক্যাচ। এই অবস্থায় জরুরী হল ব্যাটিং, বোলিংয়ের পাশাপাশি টিম ইন্ডিয়া নিজেদের ফিল্ডিংয়ের দিকেও নজর দিক।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *