বিরাট কোহলিকে অধিনায়ক করায় সুনীল গাভাস্কারের নির্বাচকদের উপর গুরতর অভিযোগ

বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের কিছু ভুল সিদ্ধান্তের কারণে তারা সেমিফাইনাল থেকে ছিটকে যায়। এই সিদ্ধান্ত আর কারো নয় বরং অধিনায়ক আর কোচের ছিল। এই সবকিছু সত্ত্বেও এমন খবর সামনে আসছে যে বিশ্বকাপের পর অধিনায়ক বিরাট কোহলি আর জসপ্রীত বুমরাহকে বিশ্রাম দেওয়া হবে। কিন্তু এখজন ওয়েস্টইন্ডিজ সফরের জন্য আরো একবার বিরাট কোহলিকেই নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছে। যারপর ভারতীয় তারকা সুনীল গাভাস্কার এই বিষয় নিয়ে যথেষ্ট ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সুনীল গাভাস্কার বিরাট কোহলির নেতৃত্ব নিয়ে বললেন এই বড়ো কথা

বিরাট কোহলিকে অধিনায়ক করায় সুনীল গাভাস্কারের নির্বাচকদের উপর গুরতর অভিযোগ 1

ভারতীয় তারকা খেলোয়াড় সুনীল গাভাস্কারের মতে বিরাট কোহলিকে ওয়েস্টইন্ডিজ সফরের জন্য অধিনায়কত্ব দেওয়ার আগে কোনো অফিসিয়াল বৈঠক কেন হয়নি। মিড-ডেতে প্রকাশিত নিজের কলামে গাভাস্কার লেখেন,

“আমাদের জানার মোতাবেক কোহলির নিযুক্তি বিশ্বকাপের পর্যন্তই ছিল। এরপর নির্বাচকরদের এই বিষয়ে মিটিং ডাকা উচিত ছিল। এটা আলাদা ব্যাপার যে এই মিটিং পাঁচ মিনিটই চলত কিন্তু এমনটা হওয়া উচিত ছিল”।

দলের সমীক্ষা বৈঠক না হওয়ার উপর গাভাস্কার শোনালেন ভাল-মন্দ

বিরাট কোহলিকে অধিনায়ক করায় সুনীল গাভাস্কারের নির্বাচকদের উপর গুরতর অভিযোগ 2

সুপ্রিম কোর্ট দ্বারা গঠিত প্রশাসক কমিটি পরিস্কার করে দিয়েছে যে তারা বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের প্রদর্শন নিয়ে কোনো রিভিউ বৈঠক করবে না, কারণ সময়ের অভাব। গাভাস্কার লেখেন যে,

“নির্বাচক কমিটিতে বসা ব্যক্তিরা কাঠের পুতুল। পুর্ননিযুক্তির পর কোহলিকে মিটিংয়ে দল নিয়ে নিজের ভাবনা জানানোর জন্য ডাকা হয়। প্রক্রিয়াকে বাইপাস করায় এই মেসেজ যায় যে কেদার জাধব, দীণেশ কার্তিককে খারাপ প্রদর্শনের কারণ দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে যদিও বিশ্বকাপ চলাকালীন আর তার আগে অধিনায়ক এই খেলোয়াড়দের উপরেই ভরসা দেখিয়েছিলেন আর ফলাফল এটাই হয় যে দল ফাইনালেও পৌঁছতে পারেনি”।

এই সবকিছু দেখে এমনটা প্রতীত হচ্ছে যে এখন গাভাস্কারও রোহিত শর্মার হাতে ভারতীয় দলের নেতৃত্ব দিতে চান।

বিরাট কোহলি আর রোহিত শর্মার অধিনায়কত্বে প্রদর্শন

বিরাট কোহলিকে অধিনায়ক করায় সুনীল গাভাস্কারের নির্বাচকদের উপর গুরতর অভিযোগ 3

এমনটা নয় যে অধিনায়ক হিসেবে কোহলির ভাল রেকর্ড নেই। কিন্তু টিম ইন্ডিয়া টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সফরে অর্থাৎ বড়ো ম্যাচে জায়গা করে নেওয়া সত্ত্বেও তারা দুবার হেরে গিয়েছে। কোহলির নেতৃত্বে ভারতীয় দল দুটি আইসিসি ট্রফি জিততে ব্যর্থ হয়েছে। ২০১৭য় ভারত আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে হেরে গিয়েছিল তাও নিজেদের চির প্রতিদ্বন্ধী পাকিস্তানের কাছে। এরপর ২০১৯ বিশ্বকাপেও ভারতীয় দল ফাইনালে হেরে ছিটকে যায়। ভারতীয় অধিনায়ক ২০১৩ থেকে আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়কত্ব করছেন। কিন্তু এই ফ্রেঞ্চাইজি এখনো পর্যন্ত একটিও ট্রফি পায়নি। অন্যদিকে ভারত রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ২০১৮য় এশিয়া কাপ জেতে এরপর তিনি আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের চারবারের খেতাব জয়ে নেতৃত্ব দেন। চারটি ট্রফি জিতে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আইপিএলের ইতিহাসের সবচেয়ে সফল ফ্রেঞ্চাইজি।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *