স্টিভ স্মিথ

১৪ বছর পর কলকাতার ঐতিহাসিক ইডেন গার্ডেন খেলতে নেমেও ভাগ্য বদল হয় নি অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ম্যাচের পর দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরে যায় অস্ট্রেলিয়া। এর ফলে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ২-০ তে পিছিয়ে গেল সফরকারীরা। কিন্তু ম্যাচের যখন অর্ধেক শেষ হয় অর্থ্যাৎ ভারতের ইনিংস শেষে বেশ তৃপ্ত ই ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার দলপতি। ভারতের ইনিংস ২৫২ তে থামলে অস্ট্রেলিয়া ভেবেছিল তাড়া খুব সহজে ই এই রান করে ফেলবে। স্মিথ বলেন, “আমরা ২৫০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে বেশ খুশি ছিলাম, ভেবেছিলাম আমরা বোলিংয়ে দারুণ করেছি।”

তিনি স্বীকার করেন যে ভারতের মত দলের বিপক্ষে ভাল ফলাফল পেতে হলে ব্যাটসম্যানদের সবাই মিলে ভাল করতে হবে। বিশেষ করে প্রথম সারির ব্যাটসম্যানদের। কিন্তু রান তাড়া করতে নেমে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম সারির ব্যাটসম্যানরা সেই কাজ করতে ব্যর্থ হোন। প্রথম সারির ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা ই ম্যাচ হারার প্রধান কারন। স্মিথ প্রশংসা করেন স্টোনিশের চমৎকার ব্যাটিং এরও। কিন্তু কেউ তাকে সঙ্গ দিতে না পারার কারনে ই ম্যাচ হারতে হয়। অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক বলেন, “সে অসাধারণ একটি ইনিংস খেলেছে। অন্যান্য ব্যাটসম্যানরা যদিও অনেক বাজে সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং ভারতের মত এত শক্তিশালী দলের বিপক্ষে যেটা করা কখনই উচিত নয়। স্টোনিশ এক প্রান্ত থেকে দারুণ খেলেছে শেষ পর্যন্ত, শুধু প্রয়োজন ছিল কোনো একজন তার সাথে শেষ পর্যন্ত ক্রিজে থেকে ব্যাট করার। আমাদের প্রথম চার জন ব্যাটসম্যানদের কোনো একজনের প্রয়োজন ছিল ক্রিজে থাকা এবং শত রানের একটি ইনিংস খেলে আসা। কিন্তু তারা প্রেসার সিচুয়েশনে বাজে সিদ্ধান্ত নিয়ে আউট হয়ে এসেছে। ভারতকে ২৫০ রানের মধ্যে বেধে ফেলা বেশ ভালো ছিল।”

স্মিথ বলেন ম্যাচ জিতার জন্য তাদের ভাল পার্টনারশিপ দরকার ছিল, যেমন এই ম্যাচ এবং প্রথম ম্যাচে ভারতের ইনিংসে ছিল। কিন্তু প্রথম ম্যাচের মত এই ম্যাচেও অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে কোন কার্যকরী পার্টনারশিপ গড়ে উঠে নি। স্মিথ বলেন, “শুধু প্রয়োজন কিছু বড় পার্টনারশিপ তৈরি করতে পারা। যদি আমরা সেটা করতে পারি তাহলে এধরনের টোটাল আমরা খুব সহজেই চেজ করে ফেলতে পারবো। তারা সব কিছু হাতের কাছে তৈরি হিসেবেই পেয়েছিল, তাই নয় কি?” ম্যাচ শেষে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক। এর আগে ইন্ডিয়ান চেম্বার অফ কমার্সের সাথে এক মত বিনিময় সভায় ভারতের মাটিতে একটি সিরিজ জয়ের ইচ্ছার কথা জানান অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক। বলেন, এটা অনেক বড় উত্তেজনা এবং তা অনেক দিন ধরে ই চলছে। একজন অধিনায়ক হিসেবে আপনি অবশ্য ই ভারতে একটি সিরিজ জিততে পছন্দ করবেন। এখানে আসা এবং খেলা অনেক বড় একটি বিষয়। উইকেট গুলো অনেক ভিন্ন এবং খেলাটা অনেক উপভোগের বিষয়। হোক ওয়ানডে কিংবা টি-টুয়েন্টি কোন পার্থক্য নেই।”

  • SHARE
    A Cricket enthusiast who is pursuing his passion.

    আরও পড়ুন

    আইপিএলে দল না পেয়ে বিধ্বংসী মার্টিন গাপ্তিল, সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মালকিন

    আইপিএলে দল না পেয়ে বিধ্বংসী মার্টিন গাপ্তিল, সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মালকিন
    আসন্ন আইপিএল ২০১৮র নিলামে দল পাননি তিনি। নিলামে অবিক্রীতই থেকে গেছিলেন নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপ্তিল। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে দুরন্ত...

    আইপিএল২০১৮: সম্পূর্ণ সূচী, ম্যাচের সময়, স্থান, এবং অন্যান্য বিবরণ

    মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে আগামি ৭ এপ্রিল থেকে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং এই আইপিএলে নির্বাসন কাটিয়ে ফিরে...

    সারা তেন্ডুলকরের ফেক আইডি বানিয়ে এনসিপি প্রধানকে উত্যক্ত করার অপরাধে গ্রেপ্তার এক ব্যক্তি

    সারা তেন্ডুলকরের ফেক আইডি বানিয়ে এনসিপি প্রধানকে উত্যক্ত করার অপরাধে গ্রেপ্তার এক ব্যক্তি
    কিছুদিন আগেই ভারতের কিংবদন্তী ক্রিকেটের শচীন তেন্ডুলকরের মেয়ে সারা তেন্ডুলকরের মেয়েকে উত্যক্ত করার অপরাধে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন পশ্চিম...

    সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারত অধিনায়ক বিরাটকে অপমান করলেন কপিল শর্মা

    সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারত অধিনায়ক বিরাটকে অপমান করলেন কপিল শর্মা
    ফের বিতর্কে কমেডিয়ান কপিল শর্মা। এবার তিনি সরাসরি অপমান করলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। যার ফলে রাগে...

    ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা একদিনের সিরিজ: চতুর্থ ওয়ান ডে চলাকালীন বর্ণবিদ্বেষের শিকার দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটার

    ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা একদিনের সিরিজ: চতুর্থ ওয়ান ডে চলাকালীন বর্ণবিদ্বেষের শিকার দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটার
    ভারত দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে ওয়ান ডে সিরিজ চলাকালীনই ঘটে গেল এক অপ্রীতিকর ঘটনা। জোহানেসবার্গের চতুর্থ ওয়ান ডে...