হেড কোচ হওয়ার পর ভারতীয় ক্রিকেট দলের অভিভাবক হিসেবে তাঁর সেকেন্ড ইনিংসটা বেশ ভালোভাবে উপভোগ করছেন করছেন রবি শাস্ত্রী। তিন ধরনের ফরম্য়াটেই অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে কাজ করতে দারুন লাগছে তাঁর। টেস্ট ও একদিনের ক্রিকেটে শাস্ত্রী-বিরাট জোড়ি এখনও পর্যন্ত অপরাজিত। রবি শাস্ত্রী দলের দায়িত্ব নেওয়ার পর টেস্ট ও একদিনের সিরিজ মিলিয়ে টানা সাতটি ম্য়াচে ভারত অনায়াসে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে।

পঞ্চান্ন বছরের শাস্ত্রী এর আগে ভারতীয় ক্রিকেট দলের টিম ডিরেক্টর ছিলেন (২০১৪-১৬)। তারপর অনিল কুম্বলে ভারতীয় দলের হেড কোচ হন। কিন্তু, অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে মত পার্থক্য়ের জেরে জাম্বো স্বেচ্ছায় পদত্য়াগ করার পর ক্রিকেট অ্য়াডভাইজরি কমিটি শাস্ত্রীকে হেড কোচ করে ফিরিয়ে আনে। অবশ্য়ই, বিরাটের ইচ্ছে এর পেছনে মূল কারণ ছিল। ২০১৯ বিশ্বকাপ পর্যন্ত শাস্ত্রীকে নিয়োগ করা হয়েছে।

শাস্ত্রী জমানায় এখনও পর্যন্ত ইন্দ্রপতন হয়নি ভারতের। শ্রীলঙ্কায় দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে বিজয় রথ। ভারতীয় দলের হেড কোচের বক্তব্য় অধিনায়কের সঙ্গে তাঁর বোঝাপড়া ভালো হওয়াতেই এই ম্য়াজিক। বিরাটের মতো একজন ব্য়ক্তি ভারতীয় দলের অধিনায়ক হওয়ার কারণেই তাঁর কাজটা আরও সহজ হয়ে গিয়েছে। শাস্ত্রী বলেন, দুজন মানুষের ভাবনা-চিন্তা একই রকম হলে কাজটা অনেক সহজ হয়ে যায়। কারণ, বোঝাপড়াটা ভালো হয় তাতে। দুজনে একই চিন্তা-ভাবনা নিয়ে এগোলে সবকিছু ঠিকঠাক চলে। আর তার প্রতিক্রিয়াটাও দলের অন্য়ান্য়দের ওপর পড়ে। আপনারা যখন বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেট দলটাকে মাঠে দেখেন, তখন একসঙ্গে খেলতে দেখেন। সবার মধ্য়ে একটা দলগতভাব রয়েছে। সবাই একে অপরের সঙ্গে (দায়িত্ব) ভাগ করে নেয়। প্রত্য়েকের মধ্য়েই সফলতার একই রকম খুশি দেখতে পাবেন আপনি। যেমন কেউ ভালো খেললে সকলেই খুশি হয়। আবার কেউ তার প্রতিভার প্রতি ঠিকমতো বিচার না করতে পারলে, সবাই একসঙ্গে হতাশ হয়। এই একতাটাই টিমগেম। কোনও ব্য়ক্তি হিসেবে নয়, একসঙ্গে একটা টিম হিসেবে সবাই লড়াই করাটাই আসল ব্য়াপার। বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেট দলটাকে একজন এইভাবেই বর্ণনা করবেন। কারণ, দলের সবার মধ্য়ে সুসম্পর্ক আছে।

বর্তমানে ভারতের একদিনের ক্রিকেট টিমে তারুণ্য়ের ছড়াছড়ি। একজন ব্য়র্থ হলে তাঁর জায়গা আরেকজন নেওয়ার জন্য় তৈরি। বিষয়টা যে কোনও দলের পক্ষেই শুভ ইঙ্গিত। আর কোচ শাস্ত্রী তাতে খুশি। তবে, অধিনায়ক যে টিমের সর্বময়কর্তা তা জানাতে তিনি ভোলেননি। অধিনায়ক (পড়ুন বিরাট কোহলি) এই ভারতীয় দলটার বস। আর কেউ নয়। এটা কখনও বদলাবে না। আমার সঙ্গে আমার সাপোর্ট স্টাফরা আছে। যারা খুব ভালো কাজ করছে। আমি টিম ডিরেক্টর যখন হয়েছিলাম, তখন আমার পাশে ছিল ওরা। আমি এখন দলের হেড কোচ। সাপোর্ট স্টাফদের সঙ্গে দলের ক্রিকেটারদেরও বোঝাপড়াটা খুব ভালো এবং সকলের মধ্য়ে বিশ্বাসের একটা বন্ধন তৈরি হয়ে গিয়েছে। আর এই কারণে সবাই রিল্য়াক্সড থাকে। মানসিকভাবে সকলেই চাঙ্গা হয়ে থাকে সবসময়।

SHARE

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক সেঞ্চুরির মালিক যে পাঁচ ক্রিকেটার

ক্রিকেটে একজন ব্যাটসম্যানের মানদণ্ড বিচার করার ক্ষেত্রে কোন ব্যাটসম্যান কত সংখ্যক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তাঁর ক্যারিয়ারে তা অতীব...

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে যে তিনটি মাইলফলক স্পর্শ করতে পারেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা

ঘরের মাটিতে জয়রথ যেন থামছেই না টিম ইন্ডিয়ার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাদা পোশাকে সিরিজ জয়ের পর রঙিন...

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম
ভারতীয় দল আর ওয়েস্টইন্ডিজ দলের মধ্যে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ আগামিকাল ২১ অক্টোবর গুয়াহাটির মাঠে...

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান
বিশ্বের সবচেয়ে আক্রামণাত্মক ওপেনার্সদের একজন বীরেন্দ্র সেহবাগ ৪০তম জন্মদিন পালন করছেন। ক্রিকেট জগত আর ওপেনিংকে নতুন পরিভাষা...

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়
নিজের দলের হয়ে উইকেট নিতে প্রত্যেক বোলারেরই ইচ্ছে থাকে। পাপু রায় এক এমন বোলার যার জন্য উইকেট...