ভারতীয় দলে কে থাকবে কে নয় তা ঠিক করে সিলেকশন কমিটি নয় এই ব্যক্তি 1

সম্প্রতি মুরলী বিজয় আর করুণ নায়ারকে ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে ভারতীয় ক্রিকেট দলে জায়গা দেওয়া হয়নি। তারপর থেকে এ নিয়ে বিতর্ক থামার নামই নিচ্ছে না। এই মামলায় একের পর এক টুইস্ট চলেই আসছে। করুণ নায়ার স্বয়ং এই ব্যাপ্র নিয়ে উল্লেখ করেছিলেন। যে তার সঙ্গে এই ব্যাপারে কেউই কোনও রকম কথা বলেন নি। অন্যদিকে তার এই বয়ানের পর ওপেনার মুরলী বিজয়ও নায়ারের কথায় নিজের সহমতি জানিয়ে তার সুরেই সুর মিলিয়েছেন।এই সমস্ত কিছুর পরই এখন নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদ সামনে এসে গুরুতর অভিযোগের বন্যা বইয়ে দিয়ে বলেছেন যে,
ভারতীয় দলে কে থাকবে কে নয় তা ঠিক করে সিলেকশন কমিটি নয় এই ব্যক্তি 2

“এমএসকে প্রসাদের ম্যানেজমেন্ট করা নির্বাচক সমিতির কাছে ভারতীয় ক্রিকেট দলের মুখ্য কোচ রবি শাস্ত্রী আর ভারতীয় দলের অধিনায়ক কোহলিকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো অভিজ্ঞতা নেই”।

করুণ নায়ার আর মুরলী বিজয়ের দাবী
ভারতীয় দলে কে থাকবে কে নয় তা ঠিক করে সিলেকশন কমিটি নয় এই ব্যক্তি 3
যেখানে একদিকে এই দুই ভারতীয় ক্রিকেটারকে এই কথার দাবী করতে দেখা গিয়েছে যে নির্বাচকরা তাদের টেস্ট দল থেকে বাদ দেওয়ার আগে তাদের সঙ্গে কোনও কথা বলেননি। ত অন্যদিকে এখন এমএসকে প্রসাদ তাদের কথার খন্ডন করে বলেছেন,

“ এই দুই ব্যাটসম্যানকে এই সিদ্ধান্তের খবর দেওয়া হয়েছিল’।

বিবাদের প্রশ্নে কিরমানির জবাব

নির্বাচন বিতর্কে যখন প্রাক্তণ ভারতীয় উইকেটকিপার সৈয়দ কিরমানিকে প্রশ্ন করা হয় তো তিনি জবাব দিয়ে বলেন,

“যদি আপনি আমার কাছ থেকে এর জবাব চান, তো আমি বলব রবি শাস্ত্রী ভারতীয় দলের মুখ্য কোচ আর নির্বাচক কর্তাও অন্যদিকে অন্য সিনিয়র সদস্য এবং অধিনায়কের সঙ্গে কথা বলেন আর যেমনটা কি উনি চান তেমনটা তিনি নির্বাচক সমিতিকে জানিয়ে দেন”।

ভারতীয় দলে কে থাকবে কে নয় তা ঠিক করে সিলেকশন কমিটি নয় এই ব্যক্তি 4
প্রাক্তণ নির্বাচক সমিতির প্রধান থাকা কিরমানি আগে কথা বলতে গিয়ে এটাও জানিয়েছেন,

“ বর্তমান সময়ে যে নির্বাচক সমিতি রয়েছে তারা কোচ রবি শাস্ত্রী এবং কোহলির সামনে অনভিজ্ঞ। এই কারণে যাই টিম ম্যানেজমেন্ট চায় তারা মঞ্জুরি দিয়ে দেন, কারণ তারা এখনও ততটা অভিজ্ঞ নন”।

Leave a comment

Your email address will not be published.