এই বিদেশীকে বিসিসিআই করল নিজেদের নতুন ফিটনেস কোচ!

ভারতীয় ক্রিকেট দলেগত কিছুদিনের মধ্যে একের পর এক সাপোর্ট স্টাফ নিযুক্ত হচ্ছিল যা রবিবার পূর্ণ হল। নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদের সভাপতিত্বে শেষ নিযুক্তি হিসেবে স্ট্রেংথ অ্যাণ্ড কন্ডিশনিং বিভাগে তিনিজন শর্টলিস্টেড প্রার্থীর নির্বাচন করা হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের প্রাক্তন রাগবি ট্রেনার নিক ওয়েব ভারতীয় দলের ফিজিয়োর রেসে সবার আগে

রবিবার ব্যাঙ্গালুরুতে ভারতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক কমিটি স্ট্রেংথ অ্যাণ্ড কন্ডিশনিংয়ের জন্য ইন্টারভিউ নিয়েছে যেখানে ৫জন প্রার্থীদের ইন্টারভিউর পর তিনজন প্রার্থীকে শর্টলিস্টেড করা হয়েছে, যার মধ্যে নিউজিল্যাণ্ডের প্রাক্তন রাগবি ট্রেনার নিক ওয়েবকেও শামিল করা হয়েছে।

এই বিদেশীকে বিসিসিআই করল নিজেদের নতুন ফিটনেস কোচ! 1

নিউজিল্যান্ডের মহিলা ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ট্রেনার আর অকল্যান্ড রাগবি দলের ট্রেনার হিসেবে কাজ করা নিক ওয়েবকে ভারতীয় দলের স্ট্রেংথ অ্যাণ্ড কন্ডিশনিং কোচের তিন শর্টলিস্টেড নামের মধ্যে সবার আগে রাখা হয়েছে।

তিনটি নামকে করা হয়েছে শর্টলিস্টেড, নিক ওয়েবকে রাখা হয়েছে প্রথম স্থানে

ভারতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচকরা ব্যাঙ্গালুরুতে অবস্থিত জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে ফিটনেস স্পেশালিস্ট রণদীপ মৈত্রর সঙ্গে ভারতের ফিজিওর জন্য ৫জন প্রার্থীর মূল্যাঙ্কন করেছেন আর এদের মধ্যে ৩জনকে শর্টলিস্টেড করেছেন।

এই বিদেশীকে বিসিসিআই করল নিজেদের নতুন ফিটনেস কোচ! 2

যাদের মধ্যে নিক ওয়েবকে প্রথম স্থানে রাখা হয়েছে তো অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে লিউক উডহাউস আর তৃতীয় স্থানে ভারতের এস রজনীকান্ত রয়েছেন। এদের মধ্যে একজনে ভারতীয় ক্রিকেট দলের পরবর্তী ফিজিয়ো নিযুক্ত করা হবে।

ওয়েব ছাড়াও এই দুজন প্রার্থীও রয়েছেন দৌড়ে মজুত

বিসিসিআই এটা নিয়ে নিজেদের বয়ানে বলেছে যে, “ওয়েবকে এই তালিকায় টপ প্রার্থী হিসেবে রাখা হয়েছে তো ক্রমশঃ দ্বিতীয় আর তৃতীয় স্থানে লিউক উডহাউস আর রজনীকান্ত শিভগণানমকে নির্বাচিত করা হয়েছে”।
বিসিসিআই আগে বলেছেন যে,

এই বিদেশীকে বিসিসিআই করল নিজেদের নতুন ফিটনেস কোচ! 3

“ব্যাকগ্র্যান্ড পরীক্ষা হয়ে গিয়েছে। আর এখন শুধু সিওএর এগিয়ে আসা বাকি আর একবার এটা শেষ হওয়ার পর কোচকে তার চুক্তি দিয়ে দেওয়া হবে। স্ট্রেংথ আর কন্ডিশনিং কোচ বর্তমানে ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে ব্যবহারিক মূল্যাঙ্কনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। তো একবার যা করা হয়, তিন সদস্যের কমিটির দ্বরা সকলের সইয়ের সঙ্গে করা হবে। এই চুক্তি পূর্ণ করার জন্য এখন কিছু সময় বাকি রয়েছে, এই কারণে আমাদের কাছে প্রক্রিয়া পূর্ণ করার জন্য কিছু সময় রয়েছে”।

Leave a comment

Your email address will not be published.