আইপিএল ২০১৯এ এই তিন খেলোয়াড়কে যে কোনও মূল্যে নিতে চাইবেন নীতা আম্বানি 1

এই মরশুমের আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের প্রদর্শন এমন কিছু ভাল ছিল না। ফলে মুম্বাই দলকে আইপিএলের লীগ চরণ থেকেই ছিটকে যেতে হয়েছে। এই কারণে মুম্বাই আগামি মরশুমের আইপিএলে নিজেদের প্লেয়ারদের মধ্যে কিছু বদল ঘটাতে চাইবে, যাতে তারা আগামি মরশুমে এই খেতাব নিজেদের কাছেই ধরে রাখতে পারে। এই প্রতিবেদনে আমরা এমন তিন প্লেয়ারের কথা আলোচনা করব যাদের আগামি মরশুমের জন্য মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স কিনতে চাইবে।

জেসন হোল্ডার
আইপিএল ২০১৯এ এই তিন খেলোয়াড়কে যে কোনও মূল্যে নিতে চাইবেন নীতা আম্বানি 2
ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার জেসন হোল্ডার ব্যাট এবং বল দুটি ক্ষেত্রেই দুরন্ত প্রদর্শন করার ক্ষমতা রাখেন। যদিও এই মরশুমে জেসন হোল্ডারের কোনও ক্রেতা পাওয়া যায় নি। ফলে আগামি মরশুমের জন্য মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এই প্লেয়ারকে নেওয়ার জন্য ঝাঁপাতে পারে।

জন-জন স্মুটস
আইপিএল ২০১৯এ এই তিন খেলোয়াড়কে যে কোনও মূল্যে নিতে চাইবেন নীতা আম্বানি 3
দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া স্তরে দুরন্ত প্রদর্শন করা জন জন স্মুটসের কাছে ব্যাটিং করার পাশাপাশি স্লো আর্ম স্পিন করার ক্ষমতাও রয়েছে। ফলে তিনি ক্রিকেটের এই ক্ষুদ্র সংস্করণের খেলায় সবচেয়ে বেশি অনুকূল প্রমানিত হবেন। যে কারণেই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলের তাকে আগামি মরশুমের জন্য নিয়ে নেওয়া উচিৎ। অন্যদিকে বেশ কিছু ফ্যান্সও রয়েছেন যারা এই ক্রিকেটারকে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলে নেওয়াকে রিস্ক নেওয়াও বলতে পারেন। যদিও এই ক্রিকেটারকে যদি আইপিএল খেলার সুযোগ দেওয়া হয় তাহলে নিশ্চিতভাবেই তিনি গুরুত্বপূর্ণ প্রমানিত হবেন।

ডেভিড বিজ
আইপিএল ২০১৯এ এই তিন খেলোয়াড়কে যে কোনও মূল্যে নিতে চাইবেন নীতা আম্বানি 4
ডেভিড বিজ আইপিএলের জন্য কোনও নতুন নাম নয়। কারণ তিনি ২০১৫ এবং ২০১৬ মরশুমে আরসিবির হয়ে খেলছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার তরফে মিডল অর্ডারে খেলা এই ব্যাটসম্যান না শুধু ভাল ব্যাট করার ক্ষমতা আছে, বরং বেশি কিছুবার তিনি দলকে জয়ে এনে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাও পালন করেছেন। ফলে যদি আগামি মরশুমের জন্য মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এই ক্রিকেটারকে নেয় তাহলে নিশ্চিতভাবেই তিনি আগামি মরশুমে মুম্বাইয়ের হয়ে তিনি বিস্ফোরণ ঘটাতে পারেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *