১৭ ম্যাচে একটিও হাফ সেঞ্চুরি পর্যন্ত করতে পারেননি এই ভারতীয় খেলোয়াড়, তাও বিরাট পারেন নি দল থেকে বাদ দিতে

এমএস ধোনি নিজের ১৪ বছরের ক্রিকেট কেরিয়ারের সবচেয়ে খারাপ ফর্মের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমানে তার ব্যাট থেকে রান বেরচ্ছে না। যার কারণে তাকে লাগাতার সমালোচনার মুখোমুখি হতে হচ্ছে। এমএস ধোনির ২০১৮র পরিসংখ্যান ভীষণই খারাপ। এই বছর তার গড় এবং স্ট্রাইক রেটে অনেক বেশি পড়তি দেখা গিয়েছে।

২০১৮য় পারেন নি করতে হাফ সেঞ্চুরি
১৭ ম্যাচে একটিও হাফ সেঞ্চুরি পর্যন্ত করতে পারেননি এই ভারতীয় খেলোয়াড়, তাও বিরাট পারেন নি দল থেকে বাদ দিতে 1
জানিয়ে দিই, যে এমএস ধোনি ২০১৮য় একটাও হাফ সেঞ্চুরি করতে পারেননি। এমএস ধোনি এই বছর ১৭টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তিনি ২৭.২২ গড়ে এবং ৬৮.২৪ স্ট্রাইক রেটে ২৪৫ রানই করতে পেরেছেন। এর মধ্যে তিনি একটি সেঞ্চুরি বা হাফ সেঞ্চুরি করতে পারেন নি। তার ২০১৮র সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ৪২ রান।
১৭ ম্যাচে একটিও হাফ সেঞ্চুরি পর্যন্ত করতে পারেননি এই ভারতীয় খেলোয়াড়, তাও বিরাট পারেন নি দল থেকে বাদ দিতে 2
এমএস ধোনি এশিয়া কাপ ২০১৮য় ভারতীয় দলের হয়ে ৬টি ম্যাচে ১৯.২৫ গড়ে মাত্র ৭৭ রান করতে পেরেছেন। এই ম্যাচে তার স্ট্রাইকরেট থেকেছে ৬২.০৯। ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়কের এই খারাপ প্রদর্শনে পর তার সমালোচকদের আঘাত আরও বেশি হয়ে উঠেছে। জানিয়ে দিই, যে ইংল্যান্ড সফরেও এমএস ধোনির স্ট্রাইক রেট নিয়ে যথেষ্ট সমালোচনা হয়েছিল। তিনি ইংল্যান্ড সফরে মোট ৩টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছিলেন। যেখানেতিনি ৬৩.২০র খারাপ স্ট্রাইকরেটে ৭৯রানই করতে পেরেছিলেন। তাকে লাগাতার নিজের স্লো ব্যাটিংয়ের কারনে সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়।

এখনও পর্যন্ত এমন থেকেছে ধোনির কেরিয়ার
১৭ ম্যাচে একটিও হাফ সেঞ্চুরি পর্যন্ত করতে পারেননি এই ভারতীয় খেলোয়াড়, তাও বিরাট পারেন নি দল থেকে বাদ দিতে 3
প্রসঙ্গত ধোনি এখনও পর্যন্ত ভারতীয় দলের হয়ে মোট ৩২৯টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তিনি ৫০.৪৬ গড়ে ১০১৪৩ রান করেছেন। এর মধ্যে ১০টি সেঞ্চুরি শামিল রয়েছে। টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিনি ভারতের হয়ে ৯৩টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তিনি ৩৭.১৭ গড়ে ১৪৮৭ রান করেছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *