“দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে বাইরে বসুক বুমরাহ” এই তারকা দিলেন পরামর্শ

ভারত আর দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে টি-২০ সিরিজ ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২২ সেপ্টেম্বর শেষ হয়ে গিয়েছে। এই সিরিজের প্রথম ম্যাচ বৃষ্টির কারণে রদ হয়ে গিয়েছিল, দ্বিতীয় ম্যাচ ভারত জেতে ৭ উইকেটে। অন্যদিকে তৃতীয় ম্যাচে প্রত্যাবর্তন করে দক্ষিণ আফ্রিকা পাল্টা আক্রমণে জয় লাভ করে। এখন এই দুই দলের মধ্যে ২ অক্টোবর থেকে টেস্ট সিরিজ শুরু হবে।

চেতন শর্মা জসপ্রীত বুমরাহকে বিশ্রাম দেওয়ার কথা বলেন

“দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে বাইরে বসুক বুমরাহ” এই তারকা দিলেন পরামর্শ 1

এই সময় বিশ্বের সমস্ত দল কোথাও না কোথাও ম্যাচ খেলছে, কারণ আইসিসি ২০২১এ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শুরু করার কথা বলেছে, এর জন্য সমস্ত দল সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত। এই অবস্থায় টিম ইন্ডিয়াকে ঘরোয়া সিরিজ খেলতে হবে। প্রথমে দক্ষিণ আফ্রিকা তারপর বাংলাদেশের সঙ্গে। এটা নিয়ে চেতন শর্মা হিন্দুস্তান টাইমসের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বলেছেন,

“আমার মনে হয় যে জসপ্রীত বুমরাহকে ঘরীয়া সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া উচিৎ। বিশ্বের ও এখন সবচেয়ে ভাল বোলার। এই কারণে আমাদের এই পরিস্থিতিতে ওকে টেস্ট করা উচিৎ না। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চলছে আর বুমরাহ ভারতের পরিকল্পনার জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। দুনিয়াকে এটা প্রমান করার দরকার নেই যে বুমরাহ আভ্রতীয় পিচে উইকেট নিতে পারে। এখন আমাদের জয় হাসিল করা আর পয়েন্ট হাসিল করার প্রয়োজন রয়েছে”।

দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে স্পিনাররা পেয়েছেন সুযোগ, বুমরাহ উপর বেশি চাপ না দেওয়া হোক

“দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে বাইরে বসুক বুমরাহ” এই তারকা দিলেন পরামর্শ 2

চেতন শর্মা ভারতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচকদের জসপ্রীত বুমরাহের উপর বেশি ম্যাচ খেলার চাপ না দিতে বলেছেন। এই অবস্থায় দক্ষিণ আফ্রিকার এই সিরিজ ভারতের জন্য ভীষণ জরুরী। তিনি বলেন,

“টিম ম্যানেজমেন্টের কন্ডিশনকে সাপোর্ট করা উচিৎ, ঘরোয়া সিরিজে স্পিনারদের খেলানো উচিৎ আর বুমরাহকে বিশ্রাম দেওয়া। শেষে ভারতের ম্যাচ জেতা নিয়ে মতলব। এতে প্রভাব পড়বে না যে অশ্বিন উইকেট নিচ্ছেন নাকি কুলদীপ বা বুমরাহ। টিম ইন্ডিয়ার সময় বদলে গিয়েছে। এখন সেই টাইম নেই যে আমরা স্রেফ কপিলদেব অর্থাৎ কোনো একজন খেলোয়াড়ের উপর নির্ভর রয়েছি। ইন্ডিয়ার কাছে সর্বশ্রেষ্ঠ বোলিং লাইনআপ রয়েছে। আমাদের কাছে ভুবনেশ্বর, শামি, ঈশান্ত শর্মা নভদীপও রয়েছে। এই কারণে ওদের সুযোগ দিন, একা বুমরাহের উপরই বা চাপ কেন দেওয়া? বুমরাহকে খালি তখনই ডাকা উচিৎ যখন এটা ভীষণ জরুরী”।

Leave a comment

Your email address will not be published.