ইরফান পাঠানের খোলসা, গ্রেগ চ্যাপেল নয় বরং এই খেলোয়াড়ের কথাতেই পেয়েছিলেন ৩ নম্বরে ব্যাটিং

ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে ভালো অলরাউন্ডারদের কথা উঠলে সকলেই কপিল দেবের নাম নেন। প্রাক্তন বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক কপিল দেব অলরাউন্ডার হিসেবে পুরো ক্রিকেট জগতে নিজের বিশেষ পরিচিতি তৈরি করেছিলেন। কিন্তু যখন কপিলদেবের পর ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে ভালো অলরাউন্ডারের কথা বলা হয় তো প্রাক্তন তারকা ক্রিকেটার ইরফান পাঠান এই ছবিটি দেখিয়েছিলেন।

ইরফান পাঠান দেখিয়েছিলেন বল আর ব্যাট দুটিতেই দম

ইরফান পাঠানের খোলসা, গ্রেগ চ্যাপেল নয় বরং এই খেলোয়াড়ের কথাতেই পেয়েছিলেন ৩ নম্বরে ব্যাটিং 1

ভারতের প্রাক্তন তারকা অলরাউন্ডার ইরফান পাঠান দলে জায়গা করার পর দেখতে দেখতেই নিজের বিশেষ প্রভুত্ব দলে স্থাপন করে ফেলেছিলেন। ইরফান পাঠা ভারতীয় দলে না কেবল সুইং বোলিং বরং একজন উপযোগী ব্যাটসম্যান হিসেবেও গুরুত্ব রাখতেন। এমনিতে ভারতীয় ক্রিকেট দলে যেমন আশা করা হয়েছিল রেমনটা তো ইরফান পাঠান সুযোগ পাননি আর তার কেরিয়ার তার ২৮ বছর বয়সেই শেষ হয়ে যায়। কিন্তু তিনি বল আর ব্যাটে অসাধারণ যোগদান দিয়েছিলেন।

তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেতেই উজ্জ্বল হন পাঠান

ইরফান পাঠানের খোলসা, গ্রেগ চ্যাপেল নয় বরং এই খেলোয়াড়ের কথাতেই পেয়েছিলেন ৩ নম্বরে ব্যাটিং 2

ইরফান পাঠানকে তার সর্বশ্রেষ্ঠ সময়ে তো ওপেনিং বোলিংয়ের পাশাপাশি তিন নম্বরেও ব্যাটিংয়ের সুযোগ দেওয়া হয় আর তিনি ২০০৫ এ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে তিন নম্বরে খেলে প্রথম ম্যাচেই ৭০ বলে ৮৩ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। এরপর তো ইরফানকে নিয়মিত এই নম্বরে ব্যাটিংয়ের সুযোগ দেওয়া হয়। যেখানে তিনি কিছু স্মরণীয় ইনিংস খেলেন। ইরফান পাঠান তিন নম্বরে ব্যাটিং করার পর বোলিংয়ে ধীরে ধীরে শেষ হয়ে যান আর বেশকিছু মানুষের মতে ইরফান পাঠানের কেরিয়ার ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দেওয়ার কারণেই শেষ হয়েছে। তো অন্যদিকে তার তিন নম্বরে ব্যাটিং করার শ্রেয় গ্রেগ চ্যাপেলকে দেওয়া হয়। কিন্তু অন্যদিকে ইরফান এই বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

শচীন পাজির বলাতেই আমাকে প্রথমবার দেওয়া হয়েছিল তিন নম্বরে সুযোগ

ইরফান পাঠানের খোলসা, গ্রেগ চ্যাপেল নয় বরং এই খেলোয়াড়ের কথাতেই পেয়েছিলেন ৩ নম্বরে ব্যাটিং 3

ইরফান পাঠান একটি ইনস্টাগ্রাম চ্যাট চলাকালীন বলেন যে, “আমাকে শচীন পাজির পরামর্শেই তিন নম্বরে নামানো হয়েছিল। আমার কেরিয়ার শেষ হওয়াতে গ্রেগ চ্যাপেলের কোনো হাত ছিল না। যতদূর আমাকে ৩ নম্বরে ব্যাটিংয়ে প্রমোট করার কথা তো এই আইডিয়া শচীন পাজির ছিল। শচীন পাজি রাহুল দ্রাবিড়কে আমাকে ৩ নম্বরে পাঠানোর পরামর্শ দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে ও (ইরফান) ছক্কা মারার শক্তি রাখে। নতুন বলে দ্রুতগতিতে রান করতে পারে। আর জোরে বোলারদেরও ভালোভাবে খেলতে পারে। এই কারণে ওকে ব্যাটিংয়ে প্রমোট করা উচিৎ”।

মুরলীধরণের বিরুদ্ধে আক্রামণাত্মক খেলার জন্য পাঠানো হয়েছিল ৩ নম্বরে

ইরফান পাঠানের খোলসা, গ্রেগ চ্যাপেল নয় বরং এই খেলোয়াড়ের কথাতেই পেয়েছিলেন ৩ নম্বরে ব্যাটিং 4

ইরফান পাঠান আরো বলেন, ‘যখন মুরলীধরণ নিজের দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন, তখন আমাকে ব্যাটিংয়ের জন্য প্রমোট করা হয়েছিল। দিলহারা ফার্নান্ডোও স্পিলিট ক্লাসের সঙ্গে স্লোয়ার বল করছিলেন। যাতে ব্যাটসম্যানদের মুশকিল হচ্ছিল। তখন আমাকে মুরলীধরণ আর ফার্নান্ডোর বিরুদ্ধে আক্রামক ব্যাটিং করার জন্য পাঠানো হত। যাতে দলের ফায়দা হতে পারে। এই কারণে এটা বলা সঠিক হবে না যে চ্যাপেল আমার কেরিয়ার খারাপ করেছেন। ও ভারতীয় ছিলেন না, এই কারণে ওকে টার্গেট করা সহজ”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *