করোনা ভাইরাসের কারণে স্থগিত আইপিএল ২০২০, এই ৩ দলের হলো অনেক বড়ো ফায়দা, জেনে নিন কীভাবে

আইপিএল ২০২০র আগে ২৯ মার্চ থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রভাবের কারণে এখন এটা ওই তারিখে করা সম্ভব নয়। আইপিএল গর্ভনিং কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে এখন এই মরশুম ১৫ এপ্রিলের পরই খেলা হবে। তবে এখনো এই টুর্নামেন্টের দিন ঠিক হয়নি।
এইভাবে আইপিএল স্থগিত হওয়ার পর সমস্ত ফ্রেঞ্চাইজি অবশ্যই নিরাশ, কিন্তু আইপিএল স্থগিত হওয়ায় কিছু দলের ফায়দা হয়েছে। যদি ২৯ মার্চ থেকে আইপিএল শুরু হতো তো কিছু খেলোয়াড় আহত থাকার কারণে শুরুর ম্যাচগুলি খেলতে পারতেন না। এখন স্থগিত হওয়ার পর তারা শুরু থেকেই খেলতে পারবেন। আজ আমরা সেই তিন দলের খুশি হওয়ার কারণ জানাতে চলেছি যারা আইপিএল ১৫ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়ায় খুশি। তবে এই দলের কাছেও নিজেদের একটা কারণ রয়েছে, যে কারণে তারা এখন ১৫ এপ্রিল সম্পূর্ণ প্রস্তুত হয়ে মাঠে নামতে পারবে।

১. দিল্লি ক্যাপিটালস

করোনা ভাইরাসের কারণে স্থগিত আইপিএল ২০২০, এই ৩ দলের হলো অনেক বড়ো ফায়দা, জেনে নিন কীভাবে 1

শ্রেয়স আইয়ারের নেতৃত্বাধীন দিল্লি ক্যাপিটালস দলের আইপিএল স্থগিত হওয়ায় একটা বড়ো ফায়দা হয়েছে। এই দলের জোরে বোলিং যে দুজন খেলোয়াড়ের উপর নির্ভর করে, বর্তমান সময়ে তাদের দুজনকেই ফিটনেস ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করতে দেখা যাচ্ছে। কাগিসো রাবাদা গত মরশুমে দিল্লি দলের হয়ে ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। উইকেট নেওয়ার ব্যাপারে তিনি দিল্লি ক্যাপিটালসদ দলের হয়ে প্রথম স্থানে ছিলেন। অন্যদিকে ঈশান্ত শর্মাও দ্রুত নিজের ফিটনেস ফিরে পেয়ে আবারও খেলতে পারেন। যদি আইপিএল ২৯ মার্চ থেকে শুরু হত তো এই দুই খেলোয়াড়কে শুরু ম্যাচ খেলতে দেখা যেত না। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে এখন ১৫ এপ্রিল থেকে আইপিএল শুরু হওয়ার কারণে তারা প্রথম ম্যাচ থেকেই দলের প্রথম একাদশের অংশ হতে পারেন, যা ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।

২. রাজস্থান রয়্যালস

করোনা ভাইরাসের কারণে স্থগিত আইপিএল ২০২০, এই ৩ দলের হলো অনেক বড়ো ফায়দা, জেনে নিন কীভাবে 2

স্টিভ স্মিথের নেতৃত্বাধীন রাজস্থান রয়্যালসের দলকে ভীষণই খুশি দেখাচ্ছে। এই দলের জোরে বোলিং যে খেলোয়াড়ের উপর নির্ভর ছিল বর্তমান সময়ে সেই খেলোয়াড়কে নিজের ফিটনেস ফিরে পাওয়ার সম্পূর্ণ প্রচেষ্টা করতে দেখা যাচ্ছে। তবে এখনো তার কম সে কম ৪০ দিন লাগবে। জোফ্রা আর্চার ডেথ ওভারের বোলিংয়ে রাজস্থান রয়্যালস দলের প্রধান খেলোয়াড় ছিলেন। তিনি নিজের দলের হয়ে সেই বোলারার ভূমিকা পালন করতেন যিনি যে কোনো পরিস্থিতিতে বোলিং করতে পারেন। তিনি ইংল্যান্ড দলের ডাক্তারদের দেখরেখে নিজের ফিটনেস উন্নত করার চেষ্টা করে চলেছেন। রাজস্থান রয়্যালসের দলের হয়ে জোফ্রা আর্চার যতই শুরুর ম্যাচে খেলতে না পারেন কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে এখন তিনি শেষের দিকের ম্যাচগুলিতে নিজের দলের হয়ে খেলতে পারেন। যা তার দলের পক্ষে ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ প্রমানিত হতে পারে।

১. চেন্নাই সুপার কিংস

করোনা ভাইরাসের কারণে স্থগিত আইপিএল ২০২০, এই ৩ দলের হলো অনেক বড়ো ফায়দা, জেনে নিন কীভাবে 3

মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসের দলও আইপিএল স্থগিত হওয়ায় খুশি পালন করছে। এই দলেরও প্রধান জোরে বোলার আহত যাদের উপর দলের বোলিং অনেকটাই নির্ভর। বর্তমান সময়ে সেই খেলোয়াড় নিজের ফিটনেস সম্পূর্ণ ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করছেন। দীপক চাহার নিজের দলের হয়ে শুরু ওভারে ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। বর্তমান সময়ে তাকে ডেথ ওভারেও ভীষণ ভালো প্রদর্শন করতে দেখা যাচ্ছিল। এই মুহূর্তে তিনি এনএসিএর দেখরেখে নিজের ফিটনেস ফিরে পাওয়ার পূর্ণ চেষ্টা করে চলেছেন। চেন্নাই সুপার কিংস দলের হয়ে দীপক চাহারকে এখন প্রথম ম্যাচ থেকে খেলতে দেখা যাবে। করোনা ভাইরাসের কারণে এখন আইপিএল ১৫ এপ্রিলের পরই খেলা হবে। সেই সময় দীপক নিজের ফিটনেস ফিরে পেয়ে দলের হয়ে খেলতে পারবেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *