আইপিএল ২০১৯: বিশ্বকাপ ২০১৯ এ ভারতীয় দলের চার নম্বর পজিশনের দাবীদার যুবরাজ সিং?

গতকাল ২৪ মার্চ যুবরাজ সিং এবং তার ভক্তদের জন্য এক বিশেষ দিন ছিল। এই দিনটি যুবরাজের জন্য বিশেষ দিন কারণ তিনি আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলের হয়ে ডেবিউ করলেন। নীল জার্সি গায়ে এদিন যুবি দুর্দান্ত থাকলেও তিনবারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের আইপিএলের শুরুর ম্যাচে ভাগ্য বদলালো না। যদিও এই ম্যাচে যুবরাজ তার দলকে জয় এনে দিতে পারেননি কিন্তু যুবি তার লড়াকু হাফসেঞ্চুরিতে সকলেরই মন জয় করে নিয়েছেন। তার এই ইনিংসে পুরোনো যুবির ছায়া দেখতে পাওয়া গিয়েছে। দলের মুশকিল পরিস্থিতিতে ব্যাট করতে নেমে যুবরাজের শুরুটা কয়েকটি মিস টাইমিং শট দিয়ে হলেও তা মেনে নেওয়া যায় কারণ ভারতীয় দলের এই প্লেয়ার দীর্ঘদিন ধরেই ক্রিকেট অ্যাকশনের বাইরে রয়েছেন। গত যুবরাজ মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে ৩টি ছয় এবং ৫টি চারের সাহায্যে ৩৫ বলে ৫৩ রানের এক দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন।

মুম্বাইয়ের হয়ে প্রথমবার ব্যাট হাতে নেমেই হাফসেঞ্চুরি
আইপিএল ২০১৯: বিশ্বকাপ ২০১৯ এ ভারতীয় দলের চার নম্বর পজিশনের দাবীদার? 1
এদিন দিল্লির বিরুদ্ধে ম্যাচে টসে জেতে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু এদিন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বোলাররা ছন্দে ছিলেন এবং বিপক্ষ দল ২১৩ রানের বিশ্বাল স্কোর তুলে ফেলে মুম্বাইকে চাপে ফেলে দেয়। মুম্বাইয়ের হয়ে এদিন চার নম্বরে ব্যাট করতে এসে যুবরাজ এদিন বেশ কিছু ব্যতিক্রমী শট খেলেন। বিশেষ করে তিনি স্পিনারদের উপর ছিলেন নির্দয়ী এবং তিনটি ছক্কা মারেন। জোরে বোলারদেরও তিনি বেশ কিছু ভাল শট মারেন। যদিও যুবরাজ এদিন তার সেরা জায়গায় ছিল না তবে এটা বিশ্বাস করা যেতে পারে যে এই শুরুটা আগে যুবরাজের জন্য স্পেশাল হতে চলেছে। যুবরাজ একজন লড়াকু ব্যাটসম্যান সেই সঙ্গে জাতীয় দলকে বারবার বিপদ থেকে উদ্ধার করার জন্যও তিনি বিশেষভাবে পরিচিত। ফলে আশা করা যেতে পারে যে ২০১৯ বিশ্বকাপের ভারতীয় দলে যুবরাজ জায়গা তৈরি করে নিতে পারে।

চার নম্বরের সমস্যা
আইপিএল ২০১৯: বিশ্বকাপ ২০১৯ এ ভারতীয় দলের চার নম্বর পজিশনের দাবীদার? 2
গত বেশ কয়েকমাস ধরেই ভারতীয় দলে ৪ নম্বর ব্যাটসম্যানের সমস্যা চলেছে। এই জায়গায় বেশ কয়েকজনকে পরীক্ষা করা হলেও কেউই এই জায়গায় ধারাবাহিকতা দেখাতে পারেননি। ফলে বিশ্বকাপে এটি ভারতের সমস্যা হয়ে দেখা দিতে পারে। যদি চলতি আইপিএল মরশুমে যুবি নিজের পারফর্মেন্সে ধারাবাহিকতা দেখাতে পারেন তাহলে সম্ভবত আগামি বিশ্বকাপের ফ্লাইটে উঠে যেতে পারেন এই তারকা ব্যাটসম্যান।
যদিও ভারতীয় নির্বাচকরা আগেই পরিস্কার করে দিয়েছেন যে আইপিএলের পারফর্মেন্সকে বিশ্বকাপের নির্বাচনে বিচার করাহবে না। কিন্তু এই বাস্তবকেও অস্বীকার করার উপায় নেই যে আইপিএলের মত বড়ো টুর্নামেন্টের পারফর্মেন্স একেবারে অস্বীকার করা যাবে না। ফলে যুবরাজের এই দুর্দান্ত ইনিংসের পর তিনি নির্বাচক কমিটির সামনে নিজের দাবী তুলে ফেলেছেন। যুবরাজ সিং বড় ম্যাচের প্লেয়ার এবং তার যে কোন পরিস্থিতিতেই খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। এর আগে ২০০৭ টি-২০ বিশ্বকাপ এবং ২০১১ একদিনের বিশ্বকাপে ভারতের জয়ের অন্যতম কারিগর ছিলেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *