এই বিশেষ কারণে ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা তৃতীয় ওয়ানডে চলাকালীণ নিজের হাতে বেঁধে রেখেছিল কালো পট্টি

ভারত আর ওয়েস্টইন্ডিজের মধ্যে এই সময় ওয়ানডে সিরিজ খেলা হচ্ছে। এই সিরিজে এখনও পর্যন্ত ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়দের প্রদর্শন যথেষ্ট বেশি ভালো থেকেছে। দলের প্রায় প্রত্যেক খেলোয়াড় দলের হয়ে যোগদান দিয়েছেন। সেই সঙ্গে এইবার সিরিজে এক আরও একটা ব্যাপার সবচেয়ে বেশি অবাক করে দেওয়ার মত। ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ চলাকালীন ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা কালো ব্যান্ড ব্যান্ড নিজেদের হাতে বেঁধে রেখেছে। তো আসুন জেনে নিন যে কি কারণে ওয়েস্টইন্ডিজ খেলোয়াড়রা এই ব্যান্ড বেঁধেছেন।

এই কারণে ব্যান্ড বেঁধেছেন
এই বিশেষ কারণে ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা তৃতীয় ওয়ানডে চলাকালীণ নিজের হাতে বেঁধে রেখেছিল কালো পট্টি 1
আপনাদের জানিয়ে দিই এই সময় ব্ল্যাক হিস্ট্রি মান্থ চলছে। এই মাসে ওয়েস্টইন্ডিজ আর আফ্রিকার সেই সৈনিকদের স্মরণ করা হয়, যারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে নিজের প্রাণ হারিয়েছিলেন। এছাড়াও তাদের দেশেরও স্মরণে যা লড়াইয়ের কারণে যথেষ্ট বেশি প্রভাবিত হয়েছিল। এই অবস্থায় তাদের স্মরণে এই মাস উদযাপন করা হয়।
এই বিশেষ কারণে ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা তৃতীয় ওয়ানডে চলাকালীণ নিজের হাতে বেঁধে রেখেছিল কালো পট্টি 2
এই যুদ্ধ চলাকালীন অ-শ্বেতাঙ্গ সৈনিকদের কখনওই বর্ণভেদ নীতির কারণে গোরা সৈনিকদের মত সম্মান জানানো হয়নি। কিন্তু তারপরও এই সৈনিকরা তাদের দেশের হয়ে লড়াই করেছিল। এই অবস্থায় সেইসমস্ত সৈনিকদের স্মরণ আর তাদের সম্মানে ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা নিজেদের হাতে কালো ব্যান্ড বেঁধে রেখেছেন।

প্রথমটেস্ট ম্যাচেও ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা করেছিলেন এমনটা
এই বিশেষ কারণে ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা তৃতীয় ওয়ানডে চলাকালীণ নিজের হাতে বেঁধে রেখেছিল কালো পট্টি 3
এরাগে ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট ম্যাচেও ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা ব্ল্যাক ব্যান্ড বেঁধেছিলেন। সেই সময় কেমার রোচের ঠাকুমার মৃত্যু হওয়ার পর ওয়েস্টইন্ডিজের খেলোয়াড়রা এমনটা করেছিলেন। রোচ নিজের ঠাকুমার মৃত্যুর কারণে এইটেস্ট সিরিজে খেলতে পারেন নি। এই সিরিজে ওয়েস্টইন্ডিজকে ২-০ হারের মুখোমুখি হতে হয়।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *