এইভাবে আরও একবার ভারতের দল টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে হতে পারে এক নম্বর

টেস্ট ক্রিকেটে বর্তমানে তিনটি দলের মধ্যে আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বর হওয়ার লড়াই বজায় রয়েছে। বর্তমানে আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে নিউজিল্যান্ডের দল সামান্য ব্যবধানে প্রথম স্থানে রয়েছে। কিন্তু এখনও এটা নিশ্চিত নয় যে নিউজিল্যান্ডের দল এই জায়গায় বজায় থাকবে। কারণ ভারত আর অস্ট্রেলিয়াও এক নম্বর হওয়ার দৌড়ে শামিল রয়েছে। যদি ভারতীয় ক্রিকেট দলের কথা বলা হয় তো টিম ইন্ডিয়াও আইসিসি র্যা ঙ্কিংয়ে এক নম্বর দল হতে পারে।

প্রথম স্থানের জন্য কড়া টক্কর

আইসিসির র‍্যাঙ্কিংয়ে বর্তমানে নিউজিল্যান্ডের দল (১১৬ পয়েন্ট) প্রথম স্থানে রয়েছে। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়া (১১৬) রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। দুই দলের পয়েন্ট সমান সমান, কিন্তু নিউজিল্যান্ড আইসিসির র‍্যাঙ্কিংয়ে এই কারণে এক নম্বরে উঠে এসেছে কারণ তারা দুটি ম্যাচ কম খেলেছে। অন্যদিকে ভারতীয় দল সাম্প্রতিক র‍্যাঙ্কিংয়ে ১১৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। আর টিম ইন্ডিয়ার কাছে এক নম্বর হওয়ার সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে। বর্তমান সময়ে দুটি সিরিজ (ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া) (নিউজিল্যান্ড বনাম পাকিস্তান) আইসিসির এক নম্বর র‍্যাঙ্কিং ঠিক করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

দুটি টেস্ট সিরিজ ঠিক করবে কে হবে এক নম্বর

ভারত আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে চলা ৪টেস্ট ম্যাচের সিরিজ এবং নিউজিল্যাণ্ড আর পাকিস্তানের মধ্যে চলা টেস্ট সিরিজ টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের সমীকরণ বদলে দিতে পারে। তবে দুটি টেস্ট ম্যাচের সিরিজ খেলতে নিউজিল্যাণ্ড যাওয়া পাকিস্তান দলের দ্বিতীয় আর ফাইনাল ম্যাচ এই ব্যাপারে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হবে। যদি নিউজিল্যান্ডের দল দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে দেয় তো তারা এক নম্বর হওয়ার প্রবল দাবীদার হয়ে যাবে। কিন্তু যদি তারা টেস্ট ম্যাচ হেরে যায় বা ড্র হয়ে যায় তো ভারত আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে চলা টেস্ট সিরিজ আইসিসি র্যা ঙ্কিংয়ে কে এক নম্বর হবে তা ঠিক করবে।

ভারত হতে পারে এক নম্বর

যদি ভারতীয় দল আগামি দুটি ম্যাচ জিতে যায় আর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচে নিউজিল্যাণ্ড জয় না পায় তো ভারত এক নম্বর হতে পারে। তবে যদি টিম ইন্ডিয়া আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে চলা টেস্ট সিরিজ ড্র (২-২) হয় তো নিউজিল্যান্ড এক নম্বরেই থাকবে। যদি অস্ট্রেলিয়ার দল আগামি দুটি টেস্ট ম্যাচ জিতে যায় তো অস্ট্রেলিয়ার দল এক নম্বর হয়ে যাবে।

Leave a comment

Your email address will not be published.