আইপিএল ২০২০: বায়ো বাবল ভাঙা নিয়ে বিসিসিআই হলো কড়া, বানালো এই নিয়ম

করোনা ভাইরাসের মহামারীর মধ্যে ক্রিকেট জগতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তনের পর বিসিসিআই আইপিএলের এবারের মশুমে যে কোনো মূল্যেই অনুষ্ঠিত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ছিল। এর মধ্যে শেষমেশ গত মাসে আইপিএলের ১৩তম মরশুমের শুরু হয়েছে, যা সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলা হচ্ছে।

আইপিএলের এই মরশুমে করোনা সুরক্ষার রাখা হচ্ছে ধ্যান

আইপিএল ২০২০: বায়ো বাবল ভাঙা নিয়ে বিসিসিআই হলো কড়া, বানালো এই নিয়ম 1

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের ১৩তম মরশুম ইউএই-তে করোনার মধ্যেই পুরো সুরক্ষার সঙ্গে খেলা হচ্ছে। বিসিসিআই আর আইপিএল গর্ভনিং কাউন্সিল করোনার কারণে শক্ত নিয়মকে মাথায় রেখেছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে পৌঁছোনোর সঙ্গেই সমস্ত দলগুলিতর খেলোয়াড়দের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে সময় কাটাতে হয়েছে। যারপরই তারা মাঠে নামতে পেরেছে। এছাড়াও সমস্ত খেলোয়াড়দের বাইরের মানুষদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার ব্যাপারে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধতা রয়েছে।

কেএম আসিফ দ্বারা বায়ো বাবল প্রটোকল ভাঙার পর বিসিসিআই কড়া

আইপিএল ২০২০: বায়ো বাবল ভাঙা নিয়ে বিসিসিআই হলো কড়া, বানালো এই নিয়ম 2

একটি জবরদস্ত জৈব সুরক্ষার পরিবেশে আইপিএলের এই মরশুম খেলা হচ্ছে, যেখানে দলের সঙ্গে যুক্ত মানুষরা ছাড়াও সমস্ত খেলোয়াড়দের জন্য নিজেদের হোটেলেরও বাইরের কারও সঙ্গে সাক্ষাৎ করার অনুমতি নেই। প্রটোকলের পুরো খেয়াল রাখা হচ্ছে। কিন্তু এর মধ্যে চেন্নাই সুপার কিংসের জোরে বোলার কেএম আসিফ এই প্রটোকল ভেঙে ফেলেছিলেন। যিনি সম্প্রতিই নিজের রুমের চাবি হারিয়ে ফেলার পর দ্বিতীয় চাবি নেওয়ার জন্য হোটেলের রিসেপশনে পৌঁছে গিয়েছিলেন। আসিফকে এরপর ৬ দিন কোয়ারেন্টিনে সময় কাটাতে হয়েছিল। এরপর বিসিসিআই বয়ো বাবল নিয়ে আরও কড়া হয়ে গিয়েছে।

এখন খেলোয়াড়রা বায়ো বাবল ভাঙলে দেওয়া হবে বার করে

আইপিএল ২০২০: বায়ো বাবল ভাঙা নিয়ে বিসিসিআই হলো কড়া, বানালো এই নিয়ম 3

বিসিসিআই দ্রুত এরপর বায়ো বাবল ভাঙা খেলোয়াড় আর দলকে নিয়ে কড়া জরিমানার প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে। যা নিয়ে তারা সমস্ত দলগুলোকে সূচনা পাঠিয়ে দিয়েছে। এররর অধীনে কড়া নিয়ম ঠিক করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথমবার নিয়ম ভাঙলে ৬ দিনের কোয়ারেন্টিনে সময় কাটাতে হবে। আর দ্বিতীয় বার নিয়ম ভাঙলে ১ ম্যাচের জন্য ব্যান করা হবে। আরও একবার এমন করলে খেলোয়াড়কে টুর্নামেন্ট থেকেই বের করে দেওয়া হবে। নিয়মে খেলোয়াড়দের এবং তাদের পরিবার সকলের জন্যই কড়া নিয়ম করা হয়েছে। যারমধ্যে সমস্ত খেলোয়াড়দের রোজ চেকআপ করাতে হবে আর জিপিএস ট্র্যাকর পড়তে হবে। এমনটা না করলে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা ঠিক করা হয়েছে। ফ্রেঞ্চাইজির জন্যও বিসিসিআই বায়ো বাবল মামলায় কোড়া হয়েছে। যার মধ্যে ফ্রেঞ্চাইজি যদি কোনো ব্যক্তিকে খেলোয়াড়দের বা সাপোর্টিং স্টাফেদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার জন্য বায়ো বাবলএ ডাকে তো প্রথমবার ১ কোটি টাকার জরিমানা, দ্বিতীয়বার এক পয়েন্ট কাটা আর তৃতীয়বার দলের ২ পয়েন্ট কেটে নেওয়া হবে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *