দীর্ঘ সময় ধরে দলের বাইরে থাকা হরভজন সিংয়ের দেশভক্তি নিয়ে এখন এই কথা বললেন তার স্ত্রী 1

শাহিদ আফ্রিদির সাহায্যের জন্য যুবরাজ সিং আর হরভজন সিং একসঙ্গে এগিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু তারপর তাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল হতে হয়েছিল। যুবরাজ সিং তারপর নিজের জবাব দিয়েছিলেন। কিন্তু হরভজন সিংয়ের তরফে এখন তার স্ত্রী গীতা বসরা বড়ো বয়ান দিয়ে বলছেন যে হরভজন সিং ভারতের জন্য বাঁচতেও পারেন আবার মরতেও পারেন।

গীতা বসরা বললেন হরভজন সিং বাঁচেন দেশের জন্য

দীর্ঘ সময় ধরে দলের বাইরে থাকা হরভজন সিংয়ের দেশভক্তি নিয়ে এখন এই কথা বললেন তার স্ত্রী 2

করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করা মানুষদের সাহায্য করা শাহিদ আফ্রিদির প্রশংসা করা হরভজন সিং আর যুবরাজ সিংয়ের জন্য কাল হয়েছিল। ভারতীয় ক্রিকেটার হরভজন সিং যখন শাহিদ আফ্রিদির ফাউন্ডেশনকে সাহায্য করেন ট তাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল হতে হয়েছিল। যারপর এখন হরভজন সিংয়ের তরফে তার স্ত্রী গীতা বসরা এগিয়ে এসেছেন আর জবাব দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমসকে জানিয়েছেন যে,

“হ্যাঁ ও বলে, আর ও জানে যে ওর দেশ ওর জন্য কী গুরুত্ব রাখে। ও মানবতার জন্য করা কাজের ব্যাপারে সাফাই দিতে চায়না। ও ভারতের হয়ে বাঁচে আর তার জন্য মরতেও প্রস্তুত। ও একদম এমনটাই ভাবে। ওর জন্য দেশ সবার আগে”।

হরভজন সিং আর শাহিদ আফ্রিদিকে ভালো বন্ধু বলেছেন গীতা বসরা

দীর্ঘ সময় ধরে দলের বাইরে থাকা হরভজন সিংয়ের দেশভক্তি নিয়ে এখন এই কথা বললেন তার স্ত্রী 3

অফ স্পিনার হরভজন সিং আর প্রাক্তন পাকিস্তান অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদিকে গীতা বসরা ভাল বন্ধু বলেছেন। সে ব্যাপারে বলতে গিয়ে তিনি বলেন যে,

“যখনই ও ক্রিকেট খেলেছে, ও হৃদয় দিয়ে খেলেছে। আর সকলেই জানে যে ভারত ওর জন্য কী গুরুত্ব রাখে। এই ঈশারা ও শাহিদ আফ্রিদির সাহায্যের জন্য করেছিল। যার সঙ্গে ও ক্রিকেট খেলেছে, আর ওদের বন্ধুত্ব বহু বছরের। আর ও নিজের দেশের জন্য নিজের কাজ করার চেষ্টা করছে। ও পুরো বিশ্বে নিজের সমর্থকদের এই ব্যাপারে কথা বলার জন্য বলছে আর মানুষকে ভালো কাজ করার জন্যও উৎসাহিত করছে”।

ধর্মকে না টানার আবেদন করেছেন গীতা

দীর্ঘ সময় ধরে দলের বাইরে থাকা হরভজন সিংয়ের দেশভক্তি নিয়ে এখন এই কথা বললেন তার স্ত্রী 4

করোনা ভাইরাসের সঙ্গে সংঘর্ষ করার এই মুশকিল সময়ে দেশ আর জাতিকে দূরে রাখাই এই মুহুর্তে সঠিক। সকলেই এই মেসেজ করছেন। এখন হরভজন সিংয়ের স্ত্রী আর অভিনেত্রী গীতা বসরা এব্যাপারে বলতে গিয়ে বলেছেন,

“আসুন এতে ধর্ম বা অন্য কিছুকে না আনি। এমনকী এই ভাইরাস কোনো ভেদাভেদ করছে না। যদি ওয়েস্টইন্ডিজ বা ইংল্যান্ডের মতো অন্য দলগুলির থেকে যে কেউ সাহায্য চাইত তো ও (হরভজন) এমনটাই করবে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *