৫জন ক্রিকেটার যাদের কেরিয়ার মাঠে চোট পাওয়ার কারণে হয়ে গিয়েছিল শেষ

আমরা অনেক সময়ই দেখেছি যে চোট আঘাত অনেক ক্রিকেটারের কেরিয়ার শেষ করে দিয়েছে। বাস্তবে এমন অনেক উদাহরণ আছে যখন মাঠে লাগা চোটের কারণে খেলোয়াড়দের কেরিয়ারে ফুলস্টপ পড়ে গিয়েছে। এই চোট আঘাত এতটাই গুরুতর হয় যে খেলোয়াড়দের কাছে নিজেদের কেরিয়ার শেষ করে ফেলা ছাড়া কোনো পথ খোলা থাকে না। ফলত খেলোয়াড়দের কেরিয়ারের দুঃখজনক পরিসমাপ্তি ঘটে। বাস্তবে এটা খেলোয়াড়দের কাছে সহজ হয়না যখন তাদের চোটের কারণে অবসর নিতে বাধ্য হন। আজ আমরা আমাদের এই বিশেষ প্রতিবেদনে এমন ৫জন খেলোয়াড়ের ব্যাপারে জানাব যাদের কেরিয়ার মাঠে লাগা চোটের কারণে শেষ হয়ে গিয়েছিল।

৫. ক্রেগ কাইজওয়েটার

৫জন ক্রিকেটার যাদের কেরিয়ার মাঠে চোট পাওয়ার কারণে হয়ে গিয়েছিল শেষ 1

ইংল্যন্ডের ডানহাতি উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ক্রেগ কাইজওয়েটারের কেরিয়ার একটি শর্ট ডেলিভারিতে শেষ হয়ে গিয়েছিল। ২০১৪য় একটি কাউন্টি ম্যাচ চলাকালীন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের হেলমেটে বল লাগে এবং তার চোখে আঘাত লাগে। এরপরই এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানকে অপারেশন করাতে হয় এবং তিনি আর সেভাবে ফিরে আসতে পারেননি। বাস্তবে তাকে মাত্র ২৭ বছর বয়সে নিজের কেরিয়ারকে বিদায় জানাতে হয়। কাইজওয়েটার সেই সময় নিজেকে লাইমলাইটে এনে ফেলেছিলেন যখন ২০১০ টি-২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে তিনি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে মাত্র ৪৯ বলে ৬৩ রানের একটি বিস্ফোরক ইনিংস খেলেছিলেন। এর ফলে ইংল্যান্দ তাদের প্রথম বড়ো ট্রফি জয় পেয়েছিল সাত উইকেটে এবং এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ফাইনালে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছিলেন।

৪. ডেভিড লরেন্স

৫জন ক্রিকেটার যাদের কেরিয়ার মাঠে চোট পাওয়ার কারণে হয়ে গিয়েছিল শেষ 2

ইংল্যান্ডের জার্সিতে ডেভিড লরেন্স পাঁচটি টেস্ট ম্যাচ এবং একটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন। নিজের পঞ্চম টেস্ট ম্যাচে রান আপ নেওয়ার সময় লরেন্সের নিক্যাপ ভেঙে যায় এবং তিনি তার রানআপেই পড়ে যান। ঘটনাক্রমে তিনি ১৯৯৮তে কাউন্টি ক্রিকেটে ফিরে আসার চেষ্টা করেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তিনি ব্যর্থ হন আর মাত্র ২৮ বছর বয়সেই নিজের জুতো তুলে রাখতে বাধ্য হন। বাস্তবে ডেভিড লরেন্স এরপর বডিবিল্ডিংয়ে নিজের কেরিয়ার গড়তে চলে যান এবং এই নতুন ফিল্ডে তিনি সফল কেরিয়ার গড়তেও সাফল্য অর্জন করেন।

৩. ফিলিপ হিউজ

৫জন ক্রিকেটার যাদের কেরিয়ার মাঠে চোট পাওয়ার কারণে হয়ে গিয়েছিল শেষ 3

নিজের খেলা শেষ বলে ফিলিপ হিউজের কেরিয়ারই শুধু শেষ হয়নি বরং তার জীবনও শেষ হয়ে গিয়েছিল। অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ট্রফি শেফিল্ড ফিল্ডের একটি ম্যাচে সিন অ্যাবটের বলে এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান ঘাড়ে আঘাত পান। এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান তার পরবর্তী কয়েকদিন কোমায় চলে যান আর এবং শেষপর্যন্ত হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। আঘাত পাওয়ার সময় এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন এবং এটি অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের জন্য একটি বড়ো ধাক্কা ছিল।

২. সাবা করিম

৫জন ক্রিকেটার যাদের কেরিয়ার মাঠে চোট পাওয়ার কারণে হয়ে গিয়েছিল শেষ 4

ভারতীয় উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান সাবা করিমের চোখে ২০০০ সালে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচ চলাকালীন উইকেটের বেল এসে লাগে। ঘটনাক্রমে ওই ঘাতের পর সাবা করিমের কেরিয়ার শেষ হয়ে যায় কারণ তার বল দেখতে অসুবিধা শুরু হয়। এই ডানহাতি উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ভারতের হয়ে একটি টেস্ট ম্যাচ এবং ৩৪টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেন। এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান তার ওয়ানডে কেরিয়ারে ৩৬২ রান করেন। এই মুহূর্তে সাবা করিম বিসিসিআইয়ের ক্রিকেট অপারেশনের জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছেন।

১. মার্ক বাউচার

৫জন ক্রিকেটার যাদের কেরিয়ার মাঠে চোট পাওয়ার কারণে হয়ে গিয়েছিল শেষ 5

দক্ষিণ আফ্রিকার বিস্ফোরক উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মার্ক বাউচারের কেরিয়ারও দুঃখজনকভাবে শেষ হয়েছিল। এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান ২০১২য় সমারসেটের বিরুদ্ধে চোখে একটি গুরুতর আঘাত পান। এই উইকেটকিপার এই ঘাতের পর নিজের কেরিয়ারকে বিদায় জানান। একসময়ের অন্যতম সেরা উইকেটকিপার দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ১৪৭টি টেস্ট ম্যাচ এবং ২৯৫টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন। তার টেস্ট কেরিয়ারে বাউচার ৫১৫৫ রান এবং ওয়ানডে কেরিয়ারে ৪৬৮৬ রান করেছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *