বল ট্যাম্পারিং বিতর্কের আট মাস পরে মিডিয়ার সামনে এলেন স্টিভ স্মিথ, প্রত্যাবর্তন নিয়ে বললেন এই কথা
Former Australian cricket captain Steve Smith speaks during a press conference at the Sydney Cricket Ground (SCG) in Sydney on December 21, 2018. (Photo by PETER PARKS / AFP) / -- IMAGE RESTRICTED TO EDITORIAL USE - STRICTLY NO COMMERCIAL USE -- (Photo credit should read PETER PARKS/AFP/Getty Images)

ডেভিড ওয়ার্নার এবং স্টিভ স্মিথ ২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপটাউন টেস্টের সময় বল-টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জড়িত হয়ে বিপাকে পড়েছিলেন।তাদের জন্য অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট এক বছরের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল।তবে গত বছর ইংল্যান্ডে মেগা-ইভেন্ট চলাকালীন এই জুটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিখুঁতভাবে ফিরে এসেছিলো এবং তাদের খ্যাতি পুনর্নির্মাণের জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছিল যা মারাত্মকভাবে চোখে ধরা দিয়েছিলো।

'নির্বাসনের পর ফিরে আসতে চাইনি'- স্টিভ স্মিথ 1
বৃহস্পতিবার “দ্য টেস্ট” নামে একটি ডকুমেন্টারি প্রকাশিত হতে চলেছে, বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির পরে এই দুই খেলোয়াড় কীভাবে তাদের খ্যাতি পুনর্নির্মাণ করেছেন সে সম্পর্কে একটি গল্প আকর্ষণীয়ভাবে তৈরি করা হয়েছে।তাছাড়া স্মিথ ভেবেছিলেন যে তিনি আর কখনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলবেন না।
সেই তথ্যচিত্রটিতে পরিচালকরা একটি বিশদ বিবরণ এবং এমন জিনিস দেখিয়েছেন যা বিশ্বকাপের আগে তাদের প্রত্যাবর্তনের মূল উপাদান হয়ে উঠেছে।প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ যখন দলে যোগ দিয়েছিলেন, তখন তিনি তার সতীর্থদের এই কথাটি বলেছিলেন যে তিনি তার দীর্ঘ স্থগিতাদেশের সময় চিরতরে খেলা থেকে দূরে সরে যাওয়ার কথা ভাবছিলেন।

'নির্বাসনের পর ফিরে আসতে চাইনি'- স্টিভ স্মিথ 2

তাছাড়া ডেভিড ওয়ার্নারও একই কথা বলেছেন।তবে, তার নিজের মধ্যে বিশ্বাস ছিল যে , যার কারণে তিনি দল থেকে বাইরে,সেই কারণ সরিয়ে নিশ্চই শক্তিশালী হয়ে উঠবেন তিনি।ফক্স ক্রিকেটের একটি সাক্ষাৎকারে স্টিভ স্মিথ বলেছিলেন, “ব্যক্তিগত দৃষ্টিকোণ থেকে এটি বেশ শক্ত ছিল এবং আমার এমন সময় হয়েছিল যেখানে আমি সম্ভবত ফিরবো ভাবতে পারি নি এবং পুরোপুরি সৎ হয়ে খেলতে চাইনি।”ওয়ার্নার আরো একটি সত্য যুক্ত করেছিলেন যে তার কাছের মানুষেরা তাকে উদার মনে গ্রহণ করেছেন । এক বছর পরে যখন তিনি ড্রেসিংরুমে ফিরে আসেন, এমনটা মনে হয়নি যে তিনি কখনও নিজের দল ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন।সব খেলোয়াড়ই তাকে অনুভব করেছিলেন যে, তিনি কখনই জাতীয় দল থেকে দূরে নন। অ্যাশেজ চলাকালীন বৈঠক চলছিল, তখন স্মিথ বলেছিলেন, ম্যাচে লড়াই করার সময় তিনি দলের রান ৩০০ র ঘরে নিয়ে যাবেন।

'নির্বাসনের পর ফিরে আসতে চাইনি'- স্টিভ স্মিথ 3
Former Australian cricket captain Steve Smith speaks during a press conference at the Sydney Cricket Ground (SCG) in Sydney on December 21, 2018. (Photo by PETER PARKS / AFP) / — IMAGE RESTRICTED TO EDITORIAL USE – STRICTLY NO COMMERCIAL USE — (Photo credit should read PETER PARKS/AFP/Getty Images)

“গত ১২ মাসে আমি অনেক কিছু নিজে শিখতে পেরেছি। ক্রিকেট নিয়ে এবং অতীতে যা ঘটেছিল তা নিয়েও। দলের সদস্য হিসাবেও আরও ভাল হয়ে উঠেছি। বাইরের দিক থেকে তাকানো হলে আপনি পুরো দলটিকে যে ভাবে দেখতে পাবেন আমি নিজে সেই ভাবে অনুভব করেছি। গত ২৪ ঘন্টার মধ্যে আমায় কীভাবে গ্রহণ করা হয়েছে। আমি তেমন কোনও অস্বস্তি বা কিছুই বোধ করি নি । আমি গতকাল দল থেকে বের হয়ে, আজ ফিরে এসেছি এইটাই আমার কাছে সফলতা , ”ওয়ার্নার বলেছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.