কুইন্টন ডি’কক বললেন করোনা ভাইরাসের প্রভাব সত্ত্বেও তারা করবেন এই কাজ

করোনা ভাইরাসের প্রভাব বেড়ে চলেছে। এখন পুরো বিশ্ব এই ভাইরাসের দ্বারা প্রভাবিত হচ্ছে। এর মধ্যে ভারত আর দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে একদিনের সিরিজ শুরু হচ্ছে। ভারতীয় দল এই সিরিজে বলকে থুতু দিয়ে চকচকে না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক কুইন্টন ডি’কক বলেছেন তাদের দল অবশ্যই বলকে চকচকে করবেন থুতু দিয়ে।

কুইন্টন ডি’কক বললেন আমরা বলকে করব সাইন

কুইন্টন ডি’কক বললেন করোনা ভাইরাসের প্রভাব সত্ত্বেও তারা করবেন এই কাজ 1

ভারতে এখনো পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের ৬০টি আক্রান্তের ঘটনা সামনে এসেছে। যে কারণে অনেক বেশি সতর্কতা নেওয়া হচ্ছে। ভ্রত আর দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে এই সময় একদিনের সিরিজ শুরু হতে চলেছে। তবে ধর্মশালা, লখনৌ আর কলকাতায় একটিও করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের ঘটনা সামনে আসেনি আর এই ম্যাচগুলো এই শহরেই খেলা হবে। বলকে সাইন করার ব্যাপারে বলতে গিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক কুইন্টন ডি’কক বলেছেন যে,

“হ্যাঁ, একদম আমরা করোনা ভাইরাসের ব্যাপারে জানি। আমরা এটাও জানি যে কী চলছে। ব্যক্তিগত স্বচ্ছতা একটা বড়ো বিষয়। কিছু লাইন ভীষণই ছোটো হয়। আমরা দেখেছি যে দুই দলই সুস্থ। আমাদের এখানে রাস্তায় পরীক্ষা করা হয়েছে, এই কারণে আমার মনে হয় যে আমরা এখনো বলকে চকচকে করব”।

দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক কুইন্টন ডি’কক বললেন আমাদের ডাক্তারদের উপর রয়েছে ভরসা

কুইন্টন ডি’কক বললেন করোনা ভাইরাসের প্রভাব সত্ত্বেও তারা করবেন এই কাজ 2

নিজেদের কোচিং স্টাফ আর ডাক্তারদের ব্যাপারে বলতে গিয়ে কুইন্টন ডি’কক বলেছেন যে,

“আমাদের দলের ডাক্তার আর ম্যানেজমেন্ট সুনিশ্চিত করেছে যে আমরা সকলেই ফিট আর আমাদের কাছে করোনা ভাইরাস নেই। আমরা এখনো এর মধ্যে শামিল হব আর বলকে চকচকে করে রাখব”।

শ্রীলঙ্কা আর ইংল্যান্ডের মধ্যে হতে চলা সিরিজ চলাকালীন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে দুই দলের খেলোয়াড়রা একে অপরের সঙ্গে হাত মেলাবেন না। যে ব্যাপারে এই সিরিজ চলাকালীন আলোচনাও হয়েছে। তবে ওই শহরগুলিতে করোনা ভাইরাস না থাকার কারণে স্বয়ং বিসিসিআইও খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্য নিয়ে ভাবনাচিন্তা করছে।

ধর্মশালায় খেলা হবে প্রথম ম্যাচ

কুইন্টন ডি’কক বললেন করোনা ভাইরাসের প্রভাব সত্ত্বেও তারা করবেন এই কাজ 3

নিজেদের ঘরোয়া মাঠে অস্ট্রেলিয়ার দলকে হারানোর পর ভারতের মাটিতে খেলতে আসা দক্ষিণ আফ্রিকার দল প্রথম ম্যাচ ১২ মার্চ ধর্মশালায় খেলা হবে। এছাড়াও সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ ১৫ মার্চ লখনৌতে তো অন্যদিকে সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ম্যাচ ১৮ মার্চ কলকাতায় খেলা হবে। এই সিরিজ দুই দলের জন্যই অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর ডি’কক এখন আরো ভালো ফল করতে চাইবেন। অন্যদিকে ভারতীয় দলের জোরে বোলার ভুবনেশ্বর কুমার পরিস্কার করে দিয়েছেন যে টিম ইন্ডিয়া থুতু দিয়ে বল চকচকে করবে না।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *