COA রাহুল দ্রাবিড়ের কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্ট মামলায় নিল শেষ সিদ্ধান্ত, শোনাল এই রায় 1

রাহুল দ্রাবিড়ের মামলায় মনে হয় সৌরভ গাঙ্গুলীর গুগলী কাজ করে গিয়েছে অথবা তার তীব্র প্রতিক্রিয়া কাজ করে গিয়েছে। রাহুল দ্রাবিড়ের কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্টের মামলায় ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের প্রশাসক কমিটি তাকে ক্লীন চিট দিয়ে দিয়েছে।

সম্প্রতিই পাঠানো হয়েছিল নোটিশ

COA রাহুল দ্রাবিড়ের কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্ট মামলায় নিল শেষ সিদ্ধান্ত, শোনাল এই রায় 2

কিছুদিন আগেই রাহুল দ্রাবিড়কে প্রশাসকের একটি কমিটি কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্টের মামলায় একটি নোটিশ পাঠিয়েছিল, যেখানে তাকে কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্টের বিষয়ে স্পষ্ট কারণ জানতে চাওয়া হয়েছিল। যা নিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলী নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছিলেন। এরপর এখন তাকে এই মামলায় ক্লীন চিট দিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রশাসক কমিটি মঙ্গলবার স্পষ্ট করে দিয়েছিল যে জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির ক্রিকেট প্রধান হিসেবে রাহুল দ্রাবিড়ের নিযুক্তি তে কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্টের কোনো বিষয় নেই। লেফটেন্যান্ট জেনারেল রবি থোড়্গে জানিয়েছেন যে বল এখন বিসিসিআইয়ের লোকপাল কো বিহেভিয়র আধিকারিক ডিকে জৈনের কোর্টে রয়েছে।

লেফটেন্যান্ট জেনারেল রবি থোড়গে বললেন এই কথা

COA রাহুল দ্রাবিড়ের কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্ট মামলায় নিল শেষ সিদ্ধান্ত, শোনাল এই রায় 3

লেফটেন্যান্ট জেনারেল নিজের কথা বলতে গিয়ে বলেন যে,

“রাহুলের মামলায় কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্ট নেই। ওকে নোটিশ পাঠানো হয়েছিল আর আমরা ওর নিযুক্তিকে মঞ্জুরি দিয়ে দিয়েছি। আমরা কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্ট দেখিনি, কিন্তু যদি লোকপালের মনে হয় তো আমরা ওনাকে নিজের পক্ষ স্পষ্ট করে বলব”।

তিনি বলেন,

“এরপর তিনি এটা উপর নজর দেবেন। এটা একটা প্রক্রিয়া যা চালু থাকবে”।

জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে নিযুক্তির পর আনা হয়েছিল এই অভিযোগ

COA রাহুল দ্রাবিড়ের কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্ট মামলায় নিল শেষ সিদ্ধান্ত, শোনাল এই রায় 4

প্রসঙ্গত যে ভারতীয় ক্রিকেটের সবচেয়ে সম্মানিত ব্যক্তিদের মধ্যে একজন রাহুল দ্রাবিড়ের উপর জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে নিযুক্তির পর কনফ্লিক্টস অফ ইন্টারেস্টের অভিযোণ আনা হয়েছিল। কারণ তিনি ইন্ডিয়া সিমেন্টসের কর্মচারি যারা চেন্নাই সুপার কিংস দলের মালিক। দ্রাবিড় নিজের জবাব ডিকে জৈনকে পাঠিয়ে দিয়েছেন, কিন্তু এখনো জানা যায়নি যে তিনি এই পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন কি না। সিওএ তার নিযুক্তির সময়তে স্পষ্ট করে দিয়েছিল যে দ্রাবিড়কে ইন্ডিয়া সিমেন্টসের উপাধ্যক্ষের পদ ছাড়তে হবে বা তার কার্যকাল পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত ছুটিতে থাকতে হবে। দ্রাবিড় ইন্ডিয়া সিমেন্টসের কাছে অবৈতনিক অবসকাশ চেয়েছিলেন যারপর এমপিসিএর আজীবন সদস্য সঞ্জীব গুপ্তা রাহুল দ্রাবিড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.