ফ্লেমিং জানালেন চেন্নাইয়ের হারের প্রধান কারণ, এই কমতিকে দূর করা না গেলে খেতাব জেতা যাবে না 1

মঙ্গলবার চেন্নাই সুপার কিংস আর মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের মধ্যে হওয়া প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে চেন্নাইয়ের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু এই সিদ্ধান্তকে মুম্বাইয়ের বোলাররা ভুল প্রমানিত করে করে দেন। মুম্বাইয়ের বোলাররা আঁটোসাঁটো বোলিং করে পাওয়ার প্লেতেই চেন্নাইয়ের ব্যাটসম্যানদের আসহায় করে দেন। পাওয়ার প্লেতে চেন্নাইয়ের মোট ৩টি উইকেট পরে। যা দলের হারের প্রধান কারণ প্রমানিত হয়। এর পর তারা শেষ পর্যন্ত এই ধাক্কা থেকে উঠে দাঁড়াতে পারেনি।

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আবারো ফাইনালে

ফ্লেমিং জানালেন চেন্নাইয়ের হারের প্রধান কারণ, এই কমতিকে দূর করা না গেলে খেতাব জেতা যাবে না 2

ধোনি আর রায়ডুর মধ্যে সংঘর্ষপূর্ণ ইনিংসের কারণে দল ১৩১ রানের স্কোর পর্যন্ত পৌঁছতে পারে। মুম্বাই এই ম্যাচ জিতে আরো একবার ফাইনালের সফর পূর্ণ করে ফেলেছে। সূর্যকুমার যাদবের ব্যাট থেকে বেরনো ৭১ রানের ইনিংসের সৌজন্যে মুম্বাইয়ের দল এবার ৯ বল বাকি থাকতেই ফাইনালে পৌঁছে গিয়েছে। অন্যদিকে চেন্নাইয়ের ফাইনালে পৌঁছনোর আরো একটি সুযোগ রয়েছে যার ফায়দা তোলার জন্য দল প্রস্তুত রয়েছে।

পাওয়ার প্লে নিয়ে কোচ ফ্লেমিং জানালেন চিন্তা

ফ্লেমিং জানালেন চেন্নাইয়ের হারের প্রধান কারণ, এই কমতিকে দূর করা না গেলে খেতাব জেতা যাবে না 3

চেন্নাইয়ের কোচ স্টিফেন ফ্লেমিং এই ম্যাচের পর বলেন যে যদি তাদের দলকে ফাইনালে পৌঁছতে হয় তো কিছু কথাকে ধ্যান রেখে এই সফরকে আগে এগোতে হবে। তিনি বলেন যে দলের জন্য পাওয়ার প্লেতে রান করা এই মরশুমে লোহার চানা চেবানোর বরাবর দেখাচ্ছে। যা নিয়ে উন্নতি করার আবশ্যকতা রয়েছে। পাওয়ার প্লেতে দল উইকেট হারাতে থাকে অন্যদিকে ৬ ওভারের পর ২০ ওভার পর্যন্ত প্রদর্শন দেখা গেলে দেখা যাচ্ছে যে দল ভাল স্কোর সেট করতে পারছে। অন্যদিকে দল পাওয়ার প্লেতে ৩৭ রানই করতে পারছে যা চিন্তার বিষয়।

ফ্লেমিং জানালেন চেন্নাইয়ের হারের প্রধান কারণ, এই কমতিকে দূর করা না গেলে খেতাব জেতা যাবে না 4

পাওয়ার প্লেতে কম সে কম উইকেট হারানোর সঙ্গেই কম সে কম ৪০ রান করা উচিৎ দলের। যাতে দল ১৫০-১৬০ পর্যন্ত স্কোর করতে পারে যা একটা ফাইটিং স্কোর হিসেবে সামনে আসবে। এই ধরণের প্রদর্শন করে দল ফাইনালে জায়গা করে নিতে পারে।

Leave a comment

Your email address will not be published.