বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা আর ধোনি বিশ্বকাপ ২০১৯ জিততে দেখায়নি উৎসুকতা:বেন স্টোকস

ইংল্যান্ড আর ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের আতিথেয়তায় গত বছর খেলা হওয়া আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে ভারতীয় ক্রিকেট দল প্রবল দাবীদার হিসেবে নেমেছিল। কিন্তু ভারতীয় দলের সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের হাতে হারের সঙ্গেই বিশ্বকাপ জেতার স্বপ্নও ভেঙে যায়। এমনিতে ভারতীয় দল এই বিশ্বকাপে দারুণ প্রদর্শন করতে সফল হয় কিন্তু ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে গ্রুপ চরণে তারা হেরেছিল।

বিশ্বকাপে ইংল্যাণ্ডের বিরুদ্ধে হার নিয়ে বেন স্টোকস ভারতের ব্যাটিং নিয়ে তুললেন প্রশ্ন

বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা আর ধোনি বিশ্বকাপ ২০১৯ জিততে দেখায়নি উৎসুকতা:বেন স্টোকস 1

ভারত গ্রুপ স্টেজের সমস্ত ম্যাচ জিতেছিল কিন্তু ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তারা জিততে পারেনি। ইংল্যাণ্ড বড়ো স্কোর খাড়া করেছিল যা ভারতীয় দল পার করার পরিস্থিতিতেও ছিল কিন্তু ভারতীয় দলের ব্যাটসম্যানরা জরুরী রানরেটের হিসেবে ব্যাটিং করেনি যা হারের কারণ হয়। ভারতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির ব্যাটিং নিয়ে তো বিশ্বকাপ জয়ী ইংল্যান্ড দলের অলরাউন্ডার বেন স্টোকস প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন। বেন স্টোকস ভারতীয় দলের ব্যাটিং নিয়েও প্রশ্ন তুলে ধোনি ছাড়াও রোহিত আর বিরাট কোহলির ব্যাটিং নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।

বেন স্টোকস বলেছেন ধোনির ব্যাটিংয়ে দেখা যায়নি জয়ের উৎসুকতা

বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা আর ধোনি বিশ্বকাপ ২০১৯ জিততে দেখায়নি উৎসুকতা:বেন স্টোকস 2

বেন স্টোক যেখানে রোহিত শর্মা আর বিরাট কোহলির পার্টনারশিপকে রহস্যময় বলেছেন তো অন্যদিকে কোহলির ম্যাচেরপর ৫৯ মিটারের বাউন্ডারিকে হতাশা বলেছেন। অন্যদিকে ধোনির ব্যাটিংয়ের ধরণ নিয়েও তিনি প্রশ্ন তুলেছেন। স্টোকস নিজের বই অন ফায়ারে বিসজ্বকাপের উল্লেখ করেছেন যেখানে তিনি বলেছেন যে,

“যখন ধোনি ব্যাটিং করার জন্য আসেন তো ভারতীয় দলের ১১ ওভারে ১১২ রান দরকার ছিল। আর তিনি অদ্ভুত ধরণের ব্যাটিং করেন। তাকে বলকে বাউন্ডারির বাইরে পাঠানোর চেয়ে এক রান নিতে বেশি আগ্রহী দেখা গিয়েছিল। ভারতীয় দল শেষ ১২ বলেও জিততে পারত”।

বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা আর ধোনি বিশ্বকাপ ২০১৯ জিততে দেখায়নি উৎসুকতা:বেন স্টোকস 3

আগে বেন স্টোকস আরো বলেন,

“ধোনি আর কেদার জাধবের পার্টনারশিপে জয়ের উৎসুকতা কম ছিল বা একদমই ছিল না। আমার মনে হয় যে যদি ওরা বিস্ফোরক ব্যাটিং করতেন তো রান করতে পারতেন। ইংল্যান্ডের ড্রেসিংরুনের মনে হয়েছিল যে ধোনি ম্যাচকে শেষ ওভার পর্যন্ত নিয়ে যেতে চান। ও এই ম্যাচে ৩১ বলে ৩২ রানে অপরাজিত থাকেন কিন্তু বেশিরভাগ রান শেষের ওভারে তখন এসেছিল যখন ম্যাচ ভারতের হাত থেকে প্রায় বেরিয়ে গিয়েছিল। আমাদের ড্রেসিংরুমে আলোচনা হচ্ছিল যে ধোনির খেলার ধরণ এটাই। যদি ভারতীয় দল ম্যাচ জেতে তাও তাদের রানরেট একই থাকে”।

বিরাট কোহলি আর রোহিত শর্মার ব্যাটিং ছিল অদ্ভুত

বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা আর ধোনি বিশ্বকাপ ২০১৯ জিততে দেখায়নি উৎসুকতা:বেন স্টোকস 4

এরপর স্টোকস বলেন যে,

“যেভাবে রোহিত শর্মা আর বিরাট কোহলি খেলছিলেন তা একটা রহস্যের মতো ছিল। আমি জানি যে আমরা সেই সময় দুর্দান্ত বোলিং করেছি, কিন্তু যেভাবে ওরা নিজেদের ব্যাটিং করেছে তা একদমই অদ্ভুত মনে হচ্ছিল। এই দুই ব্যাটসম্যানরা নিজেদের দলকে ম্যাচে যথেষ্ট পেছনে ফেলে দিয়েছিল। ওরা আমাদের দলের উপর চাপ বাড়াতে কোনো ইচ্ছা দেখায়নি। ওরা আমাদের রণনীতির মোতাবেকই খেলছিল। ম্যাচের পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি সীমারেখা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তো আমাদের অদ্ভুত মনে হয়েছিল আমি ম্যাচের পর এমন অভিযোগ কখনো শুনিনি”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *