১৬জন ক্রিকেটারকে সাসপেন্ড করল মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন, কারণটা অবশ্য জঘণ্য 1

মুম্বই: বয়স ভাঁড়িয়ে খেলার অভিযোগে মোট ১৬জন ক্রিকেটারকে সাসপেন্ড করল মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসিসিয়েশন। বিভিন্ন গরমের ছুটির ক্রিকেট ক্যাম্প ও টুর্নামেন্ট থেকে অনূর্ধ্ব ১৪, ১৬, ১৯ ও ২৩ ক্রিকেটারদের ওপর এই কোপ পড়েছে। একটি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, এই সব ক্রিকেটাররা জাল জন্ম নথি জমা দেয়। এটা ধরা পড়ে যায় যখন সেই সব ক্রিকেটাররা নিজেদের রেজাল্ট ও সার্টিফিকেট জমা দেয়। প্রথমে মোট ২৬ জন এই কাণ্ডে ধরা পড়লেও, শেষ পর্যন্ত ১৬ জনকে সাসপেন্ড করে মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। বয়স ভাঁড়ানোর অভিযোগ ওঠে এই ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে।

আইপিএলের মাঝেই বান্ধবীর সঙ্গে ছুটি কাটাতে ব্যস্ত আরসিবি’র এই ক্রিকেটারটি!

এই সব অভিযুক্ত ক্রিকেটারদের বাবা-মা’দের অ্যাসোসিয়েশনে ডেকে পাঠানো হয়েছে। এমসিএ প্রতিটা নথি ফের খতিয়ে দেতে চাইছে। ততক্ষণ পর্যন্ত অভিযুক্ত ক্রিকেটাররা কোন স্থানীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খেলতে পারবে না। এমসিএ’র যুগ্ম সচিব উণ্মেশ খানভিলকর ঠিক এমন কথাই জানিয়ে দিয়েছেন। শোনা যাচ্ছে, শেষ পর্যন্ত দোষ প্রমাণীত হলে সেই সব ক্রিকেটারদের দু’বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হতে পারে।

 

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য টিম ইন্ডিয়ার নতুন জার্সি উদ্বোধন করলো ওপো, দেখে নিন একবার..

এমসিএ’র ম্যানেজিং কমিটির সদস্য রমেশ ভাজগে এই বিষয়ে বলেন, ‘মুম্বই ক্রিকেটের অন্যতম সমস্যা হল বয়স ভাঁড়ানো। বয়স কমিয়ে ক্রিকেট চালানোটা মোটেও ভাল কাজ নয়। এটা একটা বড় সমস্যা। এই সমস্যার সমধান করতেই হবে।’ এমসিএ’র ভাইস প্রেসিডেন্ট বিনোদ দেশপাণ্ডে বলেন, ‘একজন ক্রিকেটার এমন একটা নথি দিল যেখানে লেখা ও ক্লাস এইটে পড়ে। ওই একই ক্রিকেটারের অন্য একটি নথি বলছে ও ক্লাস নাইনের ছাত্র। শেষ বছরে মুম্বইয়ের অনূধ্ব ১৯ দলের নির্বাচন করতে গিয়ে দেখা যায় অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গিয়েছে।’

বয়স ভাঁড়ানোর বিষয়টা ভারতীয় ক্রিকেটে নতুন কিছু নয়। ২০১৫ সালে বিসিসিআই দিল্লির কিছু ক্রিকেটারকে বয়স ভিত্তিক টুর্নামেন্টে বাধা দেয়। এর এক বছর পর ওড়িশার সাতজন মহিলা ক্রিকেটার ও ১২জন অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেটারকে এক বছরের জন্য সাসপেন্ড করা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *