এই ক্রিকেটার মেনে নিলেন শাহরুখ খানের কল আর ব্রেণ্ডন ম্যাকালামের পরামর্শ বদলে দিয়েছে তার কেরিয়ার 1

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের ইতিহাসে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দলকে সবচেয়ে প্রধান দলগুলির মধ্যে একটি মনে করা হয়। কলকাতা নাইট রাইডার্সের মালিকানা বলিউডের বাদশাহ শাহরুখ খানের কাছে রয়েছে, এই অবস্থায় এই দলকে অনেকটা বেশি পছন্দ করা হয়। কলকাতা নাইট রাইডার্সের দল আইপিএলের ইতিহাসে ২বার খেতাব জিতেছে।

যখন কেকেআর ২০১২য় চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল, বিসলা হয়েছিলেন বড়ো নায়ক

এই ক্রিকেটার মেনে নিলেন শাহরুখ খানের কল আর ব্রেণ্ডন ম্যাকালামের পরামর্শ বদলে দিয়েছে তার কেরিয়ার 2

কলকাতা নাইট রাইডার্স প্রথমবার ২০১২য় আইপিএল খেতাব জিতেছিল, যখন গৌতম গম্ভীরের নেতৃত্বে কলকাতা মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসকে ৫ উইকেটে হারিয়েছিল। ২০১২র আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কারণ ব্রেন্ডন ম্যাকালামের একটি পরামর্শ ছিল। ম্যাকালামের একটি পরামর্শ কেকেআরকে চ্যাম্পিয়ন করেছে অন্যদিকে চ্যাম্পিয়ন করায় প্রধান যোগদান দেওয়া এক খেলোয়াড়ের কেরিয়ারই বদলে দিয়েছিল।

বিসলা এই ইনিংসকে বললেন নিজের মাইন্ড সেট বদলে দেওয়া মুহূর্ত

এই ক্রিকেটার মেনে নিলেন শাহরুখ খানের কল আর ব্রেণ্ডন ম্যাকালামের পরামর্শ বদলে দিয়েছে তার কেরিয়ার 3

আমরা এখানে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে ২০১২ মরশুমে খেতাবি লড়াইতে বড়ো যোগদান দেওয়া ব্যাটসম্যান মনবিন্দর বিসলার কথা বলছি। বিসলা ফাইনাল ম্যাচে মাত্র ৪৮ বলে ৮৯ রানের ইনিংস খেলেন যা কেকেআরকে চ্যাম্পিয়ন করা ছাড় বিসলার জন্যও গুরুত্বপূর্ণ প্রমানিত হয়। মনবিন্দর বিসলার মতে ব্রেণ্ডন ম্যাকালামের পরামর্শ তার মাইন্ড সেটকে বদলে দিয়েছিল আর তিনি এই অসাধারণ ইনিংস খেলেছিলেন। বিসলার মতে ফাইনাল ম্যাচের পর ফোনে তার বাবা আর শাহরুখের খানের মধ্যে কথাবার্তা তার জীবনই বদলে দিয়েছিল। বিসলা বলছেন যে ফাইনাল ম্যাচে যা যা তার সঙ্গে হয়েছে তা তার মাইন্ডসেট বদলে দিয়েছে।

ব্রেন্ডন ম্যাকালামের পরামর্শ আমার জন্য বড়ো কাজ করেছে

এই ক্রিকেটার মেনে নিলেন শাহরুখ খানের কল আর ব্রেণ্ডন ম্যাকালামের পরামর্শ বদলে দিয়েছে তার কেরিয়ার 4

মনবিন্দর বিসলা ক্রিকবাজের সঙ্গে কথাবার্তা চলাকালীন সেই জয় আর ড্রেসিংরুমের মুহূর্তকে শেয়ার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, “আমি এখনো ওই ম্যাচের হাইলাইটস দেখি। মানুষ সবসময় ওই ফাইনাল আর ওই ইনিংসের ব্যাপারে কথা বলেন। কিন্ত যে ব্যাপারটা আমার সবসময়ই মনে থাকবে তা হলো ব্রেন্ডন ম্যাকালামের পরামর্শ। টুর্নামেন্টে যখন আমাকে প্রথমবার বাদ দেওয়া হয় তো আমি ওর সঙ্গে কথা বলি, তাকে বলি যে আমি নিরাশ, কারণ আমি বেশি রান করতে পারছি না। এরপর ব্রেণ্ডন ম্যাকালাম বলেন যে যা হওয়ার তা হয়েছে। তুমি এটা বদলাতে পারো। আমাদের বিশ্বাস রয়েছে যে তুমি আমাদের জন্য ভালো প্রদর্শন করতে পারো। তোমাকে ব্যাস তার উপর মনোযোগ দেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *