অবসরের পর আবারো ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন এই ভারতীয় ক্রিকেটার, দিলেন এই সংকেত

বিশ্বকাপ চলাকালীণ ভারতীয় ব্যাটসম্যান আম্বাতি রায়ডু ক্রিকেটের সমস্ত ফর্ম্যাট থেকে অবসর ঘোষণা করে সকলকে চমকে দিয়েছিলেন। তার এই হঠাত করে অবসর নেওয়ার খবর সকলেই চমকে গিয়েছিলেন। এখন এরপর আম্বাতি রায়ডু দ্বিতীয়বার ভারতীয় ক্রিকেট দলের সীমিত ওভারের দলের জন্য খেলার সংকেত দিয়ে জানালেন যে অবশ্যই আমি ভারত আর আইপিএলের হয়ে খেলতে চাই।

অবসর নেওয়ার সময় রায়ডু জানিয়েছিলেন সকলকে ধন্যবাদ

অবসরের পর আবারো ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন এই ভারতীয় ক্রিকেটার, দিলেন এই সংকেত 1

অবসর নেওয়ার সময় রায়ডু বলেছিলেন যে,

“আপনাদের জানাতে চাই যে আমি খেলার থেকে সরে দাঁড়ানোর আর খেলার সমস্ত ফর্ম্যাট আর স্তর থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছি। আমি এটা নিয়ে বিসিসিআই আর সমস্ত রাজ্য অ্যাসোসিয়েশনকে ধন্যবাদ দিতে চাই, যাদের সাহায্যে আমি হায়দ্রাবাদ, বরোদা, অন্ধ্র আর বিদর্ভের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছি”। রায়ডু ২০০২ এ রঞ্জি ট্রফিতে অভিষেক করেছিলেন।

অধিনায়ক কোহলিকে বলেছিলেন স্পেশাল থ্যাঙ্ক ইউ

অবসরের পর আবারো ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন এই ভারতীয় ক্রিকেটার, দিলেন এই সংকেত 2

রায়ডু আগে বলেছিলেন,

“আমি দুটি আইপিএল ফ্রেঞ্চাইজি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আর চেন্নাই সুপার কিংসকে তাদের সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানাতে চাই। এটা আমাদের দেশের প্রতিনিধিত্ব করার এক সম্মান আর বিশেষাধিকার। আমি সেই অধিনায়কদের ধন্যবাদ জানাতে চাই যাদের অধীনে আমি খেলেছি, এমএস ধোনি, রোহিত শর্মা আর বিশেষ ভাবে বিরাট কোহলি। যিনি সবসময় ভারতীয় দলের সঙ্গে আমার পুরো কেরিয়ারে ভীষণই বিশ্বাস দেখিয়েছিলেন”।

উপেক্ষা করার কারণে রায়ডু নিয়েছিলেন অবসর

অবসরের পর আবারো ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন এই ভারতীয় ক্রিকেটার, দিলেন এই সংকেত 3

ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান আম্বাতি রায়ডু বিশ্বকাপ চলাকালীন অবসর নিয়ে সকলকে অবাক করেছিলেন। আসলে বিশ্বকাপ দলে নির্বাচনের সময় রায়ডুকে একজন ব্যাকআপ প্লেয়ার হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছিল, কিন্তু প্রথমে শিখর ধবন আর তারপর বিজয় শঙ্করের আহত হয়ে দেশে ফেরার পরও তাকে দলে সুযোগ দেওয়া হয়নি। বরং শিখর ধবনের রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে তরুণ খেলোয়াড় ঋষভ পন্থকে আর বিজয় শঙ্করের রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে ময়ঙ্ক আগরওয়ালকে ইংল্যান্ড পাঠানো হয়েছিল। আম্বাতি রায়ডুকে দুবারই উপেক্ষা করা হয়। যার পর সকলেরই এমন ধারণা ছিল যে তিনি আবেগী হয়ে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *